কালী পুজোর কিছু আলোকচিত্র ( পর্ব ৫ )

in আমার বাংলা ব্লগ2 months ago
হ্যালো বন্ধুরা, সবাই কেমন আছেন? আশা করি সবাই ভালো আছেন। সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে আজকের ব্লগটি শুরু করছি।

Photo by @winkles

Photo by @winkles

Photo by @winkles

Photo by @winkles

আজকে আপনাদের সাথে কালী পুজোর কিছু আলোকচিত্র শেয়ার করে নেবো। এই পর্বে ভাটরাপল্লী নামক একটি স্থানের প্যান্ডেল এবং মায়ের কিছু আলোকচিত্র তুলে ধরবো। তো ওইদিন নবপল্লীর পুজো দেখার পরে আমরা চলে গিয়েছিলাম এই ভাটরাপল্লী নামক একটি জায়গায় পুজো দেখতে, যদিও এইগুলো প্রায় সব কাছাকাছি ছিল, তাই আমরা বাইকগুলো এক জায়গায় পার্কিং করে সবাই হেঁটে চলে গিয়েছিলাম দেখতে। এইটা অনেকটা ভিতরে অর্থাৎ গলি দিয়ে যেতে হয়। ভাটরাপল্লীর পুজোটা প্রায় বছর মোটামুটি করে থাকে, তবে সব বছর তেমন এখানে দেখতে যাওয়া হয়ে ওঠে না।

Photo by @winkles

Photo by @winkles

Photo by @winkles

সবাই একসাথে দেখতে গেলে দেখার মধ্যেও যেমন একটা আগ্রহ কাজ করে তেমন আবার ভালোও লাগে। তবে এই বছর তাদের চিন্তাধারা ছিল হলো "উৎসর্গ"। প্যান্ডেলগুলো দেখে আপনাদের কাছে মনে হতে পারে যে এইরকম খোলামেলা কেন। আসলে এইবার সবকিছু তারা সাজিয়েছিল খড়, বাঁশ আর কুলোর মাধ্যমে। এইবার স্ট্রাকচারটা সাজিয়েছে এইভাবে। লাইটিংগুলো খুব সাধারণভাবে এখানে তুলে ধরেছে আর দেওয়ালে অর্থাৎ এই দেওয়ালটা কিন্তু চটের মাধ্যমে টানানো চারিপাশে আর এর গায়ে বিভিন্ন নকশা এঁকে তুলে ধরেছে, বিষয়বস্তুগুলো বেশ ভালো সাজিয়েছে।

Photo by @winkles

Photo by @winkles

Photo by @winkles

এখানে যে বাইরের দিকে প্যান্ডেল মতো সাজিয়েছে, সেগুলোতে দুই পাশ জুড়ে ঝুড়ির মতো সাজিয়েছে আর তার ভিতরে লাইটিং দিয়ে আরো সৌন্দর্যটা বাড়িয়েছে। তবে এই লাইটগুলো কিন্তু ছোট একধরণের মিনি বাল্ব পাওয়া যায় সেগুলো দেওয়া ভিতরে। আর উপরের দিকে হ্যারিকেন, কোদাল, কাস্তে এবং লাঙ্গল দিয়ে সাজিয়েছে। সবকিছুই ঝুলিয়ে রেখেছে আর এইগুলোর মাধ্যমে উৎসর্গের বিষয়টা তুলে ধরার চেষ্টা করেছে। এরপর আপনারা দেখতে পাবেন সাইটে হাতের গঠন তৈরি করেছে আর এই হাতগুলোর তালুতে প্রদীপ জ্বালিয়ে রেখে দিয়েছে।

Photo by @winkles

Photo by @winkles

Photo by @winkles

Photo by @winkles

এই প্রদীপগুলোকে দূর থেকে দেখলে মনে হবে সত্যিকারের তেল আর সলতে দিয়ে জ্বালিয়ে রেখেছে, যেটা আমি প্রথম মনে করেছিলাম। কিন্তু এখানে সবকিছুই মিনি বাল্ব দিয়ে বিষয়টা এমনভাবে উপস্থাপন করেছে যেটা দেখলে সত্যিকারের মতো দেখতে লাগবে। এছাড়া এখানে মাটির উনুনও আছে আর এই সবগুলোই একইভাবে লাইটিং করা। একদম মায়ের মণ্ডপের সামনে কুলো দিয়ে বিষয়গুলো একইভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করেছে।

Photo by @winkles

Photo by @winkles

Photo by @winkles

আসলে এখানে বিষয়টা একই, কিন্তু সেটাকে বিভিন্ন ক্যাটাগরির মাধ্যমে সাজিয়ে উপস্থাপন করেছে আর এটা দেখতেও অনেক সুন্দর লাগছিলো। মায়ের মণ্ডপের জায়গাটাও অর্থাৎ উপরের দিকে খড়ের মাধ্যমে দারুন একটা স্টাইলে সাজিয়ে তুলেছে আর মায়ের মূর্তিটাও ভালো লাগছিলো। ওখানে মণ্ডপের সামনে ভিড় ছিল খুব অর্থাৎ দাঁড়িয়ে কিছুক্ষন থাকবো, সেটার উপায় নেই, গিয়েই সাথে সাথে আবার বেরিয়ে আসতে হয়।


শুভেচ্ছান্তে, @winkles

ক্যামেরাস্যামসুং গ্যালাক্সি M33 5G
লোকেশনবারাসাত
তারিখ১৩ নভেম্বর ২০২৩


Support @heroism Initiative by Delegating your Steem Power

250 SP500 SP1000 SP2000 SP5000 SP

Heroism_3rd.png

Sort:  

Upvoted! Thank you for supporting witness @jswit.

 2 months ago 

দাদা ভাটরাপল্লীর কালী পূজার আয়োজন এককথায় দুর্দান্ত হয়েছে। তাদের থিমটাও দারুণ লেগেছে উৎসর্গ। আসলেই দাদা একসাথে কয়েকজন মিলে এমন জায়গায় ঘুরাঘুরি করলে অনেক আনন্দ করা যায় এবং মন ভরে সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। হাতের গঠন তৈরি করে হাতগুলোর তালুর মধ্যে প্রদীপ রেখে দিয়েছে, এই ব্যাপারটা একেবারে ইউনিক লেগেছে। এতো সুন্দর সুন্দর কুলা দেখে খুবই ভালো লেগেছে। সবমিলিয়ে তাদের আয়োজন একেবারে চোখ ধাঁধানো। প্রতিটি ফটোগ্রাফি চমৎকার ভাবে ক্যাপচার করেছেন দাদা। পোস্টটি পড়ে এবং ফটোগ্রাফি গুলো দেখে ভীষণ ভালো লাগলো। সবমিলিয়ে পোস্টটি বেশ উপভোগ করলাম। যাইহোক এতো চমৎকার একটি পোস্ট আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ দাদা।

Posted using SteemPro Mobile

 2 months ago 

দাদা দেখতে দেখতে কালীপুজোর পাঁচটা পর্ব শেষ হয়ে গিয়েছে। আমি কালীপুজোর সবগুলো পর্ব দেখেছি। এই পর্বে দেখছি আপনি ভিন্ন একটা স্থানের পূজো প্যান্ডেলের আলোকচিত্র আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন। আর দেখছি এই জায়গাটার নাম ছিল ভাটরাপল্লী। এই জায়গাটার পূজো প্যান্ডেল কিন্তু অনেক সুন্দর ভাবে সাজানো হয়েছে, যেটা দেখতে অনেক সুন্দর লাগতেছে। আর তাদের অনেক সুন্দর চিন্তাধারা ছিল যেটা হচ্ছে "উৎসর্গ"। এরকম সুন্দর এবং ইউনিক চিন্তাধারা নিয়ে কাজ করলে সত্যি অনেক ভালোই লাগে। হাতের মধ্যে প্রদীপ রাখা হয়েছে এরকম সুন্দর দৃশ্য দেখলাম। হাতগুলো দেখে প্রথমে তো ভেবেছিলাম বাস্তবিক পরে বুঝতে পেরেছি এগুলো অন্য কিছুর। লাইটিং গুলো এত বেশি সুন্দর ছিল যে, লাইটিং এর কারনে মূলত সব কিছুর সৌন্দর্য বেশি বৃদ্ধি হয়েছে। দাদা আপনি অনেক সুন্দর করে সবগুলো ফটোগ্রাফি করেছেন, আর সুন্দর ভাবেই তুলে ধরলেন। ধন্যবাদ দাদা সুন্দর করে অন্য গুলোর মত কালীপুজোর পঞ্চম পর্বটা শেয়ার করার জন্য।

 2 months ago 

ভাটরাপল্লী নামক স্থানের কালী পুজোর প্যান্ডেল এবং কালী মায়ের মূর্তি দেখে অনেক ভালো লাগলো দাদা ৷ আসলে আপনাদের ওদিকে কালীপুজো বেশ জাঁকজমক ভাবে হয় , তা আপনার তোলা আলোকচিত্র গুলোর মধ্যে বেশ ভালো ভাবে বোঝা যাচ্ছে ৷ অনেক সুন্দর ভাবে প্যান্ডেল সাজানো হয়েছে , আলপনা এবং মায়ের মূর্তি ও খুবই সুন্দর ভাবে সাজানো হয়েছে ৷ চারদিক বেশ আলোকিত ৷ নিশ্চয়ই সেখানে দারুণ কিছুটা কাটিয়েছেন ৷ অসংখ্য ধন্যবাদ দাদা পোস্টটি শেয়ার করার জন্য ৷ আপনার মাধ্যমে মায়ের দর্শন সহ আরো কিছু জানতে এবং দেখতে পেলাম ৷

Posted using SteemPro Mobile

 2 months ago 

পূজা মন্ডপের আলোকসজ্জা ও কারুকার্য ছিল একদম নান্দনিক। যদিও সাধারণভাবে সবকিছু উপস্থাপন করেছে, তারপরেও বেশ ভালো লেগেছে। দারুন সব ছবি তুলেছেন দাদা।

 2 months ago 

দাদা কালিপুজোর জমজমাট আসর তা আসলে ফটোগ্রাফি গুলো না দেখলে বোঝা যেত না ৷ সত্যি বলতে ফটোগ্রাফি গুলো দেখে মুগ্ধ হলাম ৷ বাশ খড় খুটো দিয়ে কি সুন্দর সজ্জা ৷ সত্যি অসাধারণ ৷

 2 months ago 

দাদা আজকে কালী পুজোর যে ফটোগ্রাফি গুলো শেয়ার করেছেন, এগুলো অন্যান্য দিনের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা সিস্টেম করেছে। ভাটরাপল্লী একটু অন্যভাবে চিন্তা ভাবনা করেছে। যার ফলে এমন একটি প্যান্ডেল সাজাতে পেরেছে। উপরের ফটোতে দেখলাম হ্যারিকেন, কোদাল, কাস্তে এবং লাঙ্গল এগুলো উপরে ঝুলিয়ে রেখেছে। আর বাহিরের অংশে দেখলাম কোলা দিয়ে সাজিয়েছে। ভিতরেও কোলা আছে। সব থেকে ইউনিক বিষয় হলো তারা লাটিং করে প্রদীপ গুলো এমন ভাবে জ্বালিয়েছে যে দুর থেকে বুঝার কোন ক্ষমতা নেই যে, এগুলো আসল না কি নকল। আমি তো প্রথমে অরিজিনাল সলতে দিয়ে জ্বালিয়েছে ভেবেছিলাম। কিন্তুু আপনি পোষ্টের মধ্যে সেটা বলে দিলেন। আর একটি জিনিষ দেখলাম মাটি দিয়ে অনেক গুলো হাত ও উনুন বানিয়েছে। সেই হাত ও উনুনে প্রদীপ জ্বালিয়েছে। দেখতে ভালোই লাগে। তাদের উৎসর্গের চিন্তা ধারা অনুযায়ী ঠিক আছে। ধন্যবাদ দাদা।

 2 months ago 

দাদা আপনি কালীপুজোর এত সুন্দর কিছু আলোকচিত্র, সবার মাঝে ভাগ করে নিয়েছেন দেখে জাস্ট অসাধারণ লেগেছে দেখতে। কালীপুজোর এর আগের পর্বগুলো আমি দেখেছিলাম। এজন্য ৫ নাম্বার পর্বটা আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে। আজকে আরেকটা স্থানের আলোকচিত্র তুলে ধরেছেন আপনি। ভিন্ন স্থানের আলোকচিত্র গুলো পর্বের মাধ্যমে সুন্দর করে শেয়ার করতেছেন আপনি। ডেকোরেশন টা অনেক বেশি সুন্দর হয়েছে। প্রদীপের মতো করে সাজানো হয়েছে যদিও লাইট ছিল। লাইটিং টা একেবারে মুগ্ধ হয়ে তাকিয়ে থাকার মত ছিল। খালি চোখে অপরূপ দৃশ্যগুলো দেখতে বেশি ভালো লেগেছিল মনে হয়। নবপল্লীর পূজোর পর আপনি ভাটরাপল্লী নামক জায়গাটাতে পূজো দেখার জন্য গিয়েছিলেন জেনে ভালো লাগলো। জায়গাটাতে পুজোর ডেকোরেশন দারুন ভাবে করেছে তারা। আর চিন্তা ভাবনা ও দেখছি অসম্ভব ভালো ছিল। উৎসর্গ এই চিন্তা ভাবনা দেখে ভালো লেগেছে। ধন্যবাদ দাদা পর্বটা সুন্দর করে শেয়ার করার জন্য। পরবর্তী পর্বের অপেক্ষায় আছি।

 2 months ago 

ভাটরাপল্লী দারুন ভাবে তাদের পূজা প্যান্ডেল সাজিয়েছে। সত্যি দাদা এরকম পূজা প্যান্ডেল কখনো দেখা হয়নি। খোলামেলা হলেও তাদের ডেকোরেশনের মাঝে ভিন্নতা ছিল। আর সবকিছুর মাঝে নতুনত্ব ছিল। "উৎসর্গ" থিমের উপর সুন্দর করে সবটা সাজানো হয়েছে দেখে ভালো লাগলো। খড়, বাঁশ আর কুলোর মাধ্যমে এত সুন্দর করে সাজানো হয়েছে দেখে সত্যিই ভালো লেগেছে। সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে হাতের উপর রাখা প্রদীপ গুলো। দেখতে অসাধারণ লাগছে। আর হ্যারিকেন, কোদাল, কাস্তে এবং লাঙ্গল দিয়ে এত সুন্দর করে ডেকোরেশন করা হয়েছে দেখে সত্যিই ভালো লাগলো। বিশেষ করে উপরে লাগানো হ্যারিকেন গুলো দেখতে অনেক সুন্দর লাগছে। মনে হচ্ছে যেন গ্রামীন প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে গিয়েছি। আর এরকম দৃশ্য দেখে সত্যিই অনেক ভালো লাগে। পুজো প্যান্ডেলে ঘোরাঘুরি করেছেন আর দারুন সব ফটোগ্রাফি করেছেন দেখে ভালো লাগলো দাদা। ফটোগ্রাফি গুলো দারুন হয়েছে।

Coin Marketplace

STEEM 0.29
TRX 0.11
JST 0.033
BTC 63945.57
ETH 3135.76
USDT 1.00
SBD 4.00