DIY-(এসো নিজে করি)//রঙিন কাগজ দিয়ে সুন্দর একটি ওয়ালমেট তৈরি।

in আমার বাংলা ব্লগlast month
আসসালামু-আলাইকুম/আদাব🤝


আমার প্রাণ প্রিয় বন্ধুরা, কেমন আছেন আপনারা সবাই। আশা এবং বিশ্বাস করি আপনারা সবাই আল্লাহর অশেষ রহমতে ভালো এবং সুস্থ আছেন। আলহামদুলিল্লাহ আমিও আপনাদের দোয়ায় এবং আল্লাহর অশেষ রহমতে ভালো ও সুস্থ আছি ।আমি @mahfuzur888, বাংলাদেশের রাজশাহী বিভাগ থেকে আপনাদের সাথে আছি ।


প্রিয় বন্ধুরা,বেশ কিছুদিন পর আবারো আপনাদের সবার মাঝে হাজির হলাম নতুন একটা ডাই পোস্ট নিয়ে। আমার প্রচন্ড ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও কাজের চাপে বেশ কয়েকদিন ডাই পোস্ট তৈরি করতে পারিনি। তবে অনেক কষ্ট করে একটু সময় বের করে এই ওয়ালমেট টি তৈরি করেছিলাম। ওয়ালমেটটা তৈরি করতে আমার বেশ কিছু সময় লেগেছিল।তারপরেও শত ব্যস্ততার মাঝে আমি যে একটা নতুন ওয়ালমেট তৈরি করে সেটা পোস্ট আকারে আপনাদের সবার মাঝে শেয়ার করতে পেরেছি, এটা ভাবতেই এখুন আমার অনেক ভালো লাগছে । ওয়ালমেটটা দেখতে প্রথম দিকে যেরকম লেগেছিল কিন্তুু ওয়ালমেটটা তৈরি করার পরে যখন আমি ওয়ালে ঝুলিয়ে দিলাম তখুন ওয়ালমেটটা দেখতে অনেক সুন্দর দেখাচ্ছিল। এবং রুমের যে পাশের ওয়ালে ঝুলিয়ে রেখেছিলাম সে পাশের ওয়ালটা অনেক পরিষ্কার এবং সুন্দর দেখাচ্ছিল। যাই হোক যে ওয়ালমেটটা তৈরি করেছিলাম তা এখুন আপনাদের মাঝে শেয়ার করতে চলেছি। আশা করি এই ওয়ালমেটটা দেখতে আপনাদের কাছেও অনেক ভালো লাগবে। তো বন্ধুরা চলুন তাহলে দেখে নেয়া যাক আমি কিভাবে রঙিন কাগজ দিয়ে এই ওয়ালমেটটা তৈরি করেছিলাম।

রঙিন কাগজ দিয়ে সুন্দর একটি ওয়ালমেট তৈরি।

Picsart_24-06-04_19-26-27-538.jpg

আমি রঙিন কাগজ দিয়ে কিভাবে সুন্দর একটি ওয়ালমেট তৈরি করেছি তা ধাপে ধাপে আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করলাম।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

প্রয়োজনীয় উপকরণ

১। রঙিন কাগজ ।
২। কেচিঁ।
৩। পেন্সিল কম্পাস ।
৪।গ্লু গান।
৫।বাম্বু স্টিক ।
৬। কালো কস্টেপ।
৭। কাচেঁর গ্লাস।
৮। ঘাম।

Picsart_24-06-04_19-30-59-115.jpg

Picsart_24-06-04_19-28-53-074.jpg

যেহেতু আমি একটি ওয়ালমেট তৈরি করবো সেহেতু
এ ফোর সাইজের ১৩ পিস রঙিন কাগজ, ১৫ টা বাম্বুষ্টিক, কালো কস্টেপ,কাটার জন্য কেচিঁ,একটি কাচঁর গ্লাস, পেন্সিল কম্পাস, এবং একটি গ্লু গান নিয়ে আমি ওয়ালমেটটা তৈরি করতে বসলাম।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

ধাপ-১
Picsart_24-06-04_16-33-32-865.jpgPicsart_24-06-04_16-46-47-104.jpg
20240603_203549~2.jpgPicsart_24-06-04_16-52-52-342.jpg

Picsart_24-06-04_16-54-17-466.jpg

প্রথমে আমি ৫ পিস এ ফোর সাইজের রঙিন কাগজ নিলাম। একটি গ্লাসের মুখের মাপ অনুযায়ী প্রথমে লম্বা-লম্বি ভাজ পরে পাশাপাশি ভাজ করে নিলাম। এবং কেচির সাহায্যের ছোট ছোট টুকরা করে নিলাম। টোটাল আমার ৩০ পিস পাপড়ি হয়েছিল। একটা এ ফোর সাইজের কাগজের ছয় টুকরো হয়েছিল। যেমনটি আপনারা ফটোগ্রাফিতে দেখতে পারছেন।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

ধাপ-২
Picsart_24-06-04_16-55-55-358.jpgPicsart_24-06-04_16-57-37-166.jpg

Picsart_24-06-04_17-06-43-766.jpg

এবার কাগজের টুকরো গুলোকে কোনাকুনি ভাঁজ করে নিলাম। এবং সামনের অংশ কেচিঁর সাহায্যে গোল করে কেটে নিলাম।যেমনটি আপনারা ফটোগ্রাফিতে দেখতে পারছেন।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

ধাপ- ৩
Picsart_24-06-04_17-08-13-898.jpgPicsart_24-06-04_17-09-42-465.jpg
Picsart_24-06-04_17-11-09-608.jpgPicsart_24-06-04_17-12-26-710.jpg
Picsart_24-06-04_17-13-56-201.jpgPicsart_24-06-04_17-18-05-281.jpg

Picsart_24-06-04_17-21-45-437.jpg

এবার ফুলের পাপড়িগুলো একটা করে গ্লাসের ভিতরে মাছ বরাবর বসিয়ে দিলাম। এবং একটার সাথে আর একটা জোড়া দেওয়ার জন্য গ্লু গানের সাহায্য নিলাম। এবং এভাবে একের পর এক তিরিশটি পাপড়ি বসানোর পরে, কাচেঁর গ্লাসের মুখ থেকে ফুলটি ছাড়িয়ে নিলাম।যেমনটি আপনারা ফটোগ্রাফিতে দেখতে পারছেন।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

ধাপ- ৪
Picsart_24-06-04_17-23-29-140.jpgPicsart_24-06-04_17-24-48-060.jpg

Picsart_24-06-04_17-26-02-898.jpg

এবার ১৫ পিস বাসের কাঠি কালো কস্টেপ দিয়ে মুড়িয়ে দিলাম এবং ৫ পিচ বাসের কাঠি অর্ধেক করে ভেঙে নিলাম।যেমনটি আপনারা ফটোগ্রাফিতে দেখতে পারছেন।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

ধাপ- ৫
Picsart_24-06-04_17-48-25-013.jpgPicsart_24-06-04_17-49-36-599.jpg
Picsart_24-06-04_17-50-54-181.jpgPicsart_24-06-04_17-51-57-284.jpg

এবার পাঁচ সেন্টিমিটার ব্যাসার্ধে দুটি হার্ডবোর্ড কেটে নিলাম। এবং ফুলের পিছনের অংশে গ্লু গানের সাহায্যে ঘাম লাগিয়ে হার্ড বোর্ডের উপর লাগিয়ে দিলাম। যেমনটি আপনারা ফটোগ্রাফিতে দেখতে পারছেন।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

ধাপ- ৬

Picsart_24-06-04_17-53-43-813.jpg

Picsart_24-06-04_17-55-01-911.jpg

এবার গ্লু গানের সাহায্যে হার্ডবোর্ড এর উপরে আটঁপিচ বড় এবং আটপিস ছোট বাঁশের কাঠিগুলো লাগিয়ে দিলাম। যেমনটি আপনার ফটোগ্রাফিতে দেখতে পারছেন।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

ধাপ- ৭
Picsart_24-06-04_17-59-57-949.jpgPicsart_24-06-04_18-01-14-350.jpg
Picsart_24-06-04_18-02-19-439.jpgPicsart_24-06-04_18-03-19-872.jpg
Picsart_24-06-04_18-04-24-708.jpgPicsart_24-06-04_18-05-17-846.jpg

Picsart_24-06-04_18-06-24-927.jpg

এবার ফুলের পাপড়ি তৈরি করার জন্য এ ফোর সাইজের ৮ পিস রঙ্গিন কাগজ নিলাম। রঙিন কাগজগুলো ১৯. ৭৫ সেন্টিমিটার করে কেটে নিলাম। তারপর কাগজগুলো কোনাকুনি ভাঁজ করে মাঝখান দিয়ে কেটে নিলাম। এবং কুচি কুচি করে ভাজ করে নিলাম। সবশেষে কুচুকুচি ভাঁজ করা কাগজ গুলোর মাঝখানে আটা দিয়ে জোড়া দিয়ে ১৬পিস ফুলের পাপড়ি তৈরি করে নিলাম।যেমনটি আপনারা ফটোগ্রাফিতে দেখতে পারছেন।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

ধাপ- ৮
Picsart_24-06-04_19-15-23-491.jpgPicsart_24-06-04_19-16-42-300.jpg

Picsart_24-06-04_19-17-35-594.jpg

এবার ফুলের পাপড়ি গুলোকে প্রত্যেকটি বাঁশের কাঠির আগায় গ্লু গানের সাহায্যে লাগিয়ে দিলাম।যেমনটি আপনারা ফটোগ্রাফিতে দেখতে পারছেন।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

সর্বশেষ ধাপ-
Picsart_24-06-04_19-19-21-430.jpgPicsart_24-06-04_19-20-15-185.jpg

Picsart_24-06-04_19-21-25-498.jpg

20240604_001441~2.jpg

এবার ফুল যুক্ত হার্ড বোর্ডটির পিছনের অংশে গ্লু গানের সাহায্যে আঠা লাগিয়ে।বাঁশের কাঠি যুক্ত হার্ড বোর্ডের উপর লাগিয়ে দিলাম। এবং ওয়ালমেট এর পিছনের অংশে এক টুকরো উভয় পাশে ঘামযুক্ত টেপ লাগিয়ে রুমের ওয়ালের সাথে লাগিয়ে দিলাম। যেমনটি আপনারা ফটোগ্রাফিতে দেখতে পারছেন। আর এভাবেই রঙিন কাগজ দিয়ে ওয়ালমেট তৈরির শেষের ধাপে এসে পৌঁছাইলাম।

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

উপস্থাপন
Picsart_24-06-04_19-25-11-011.jpgPicsart_24-06-04_19-23-54-183.jpg

20240604_001433~2.jpg

রঙিন কাগজ দিয়ে সুন্দর একটি ওয়ালমেট তৈরি করতে পেরে আমার খুব ভালো লাগছে। ওয়ালমেটটা দেখতেও অনেক সুন্দর দেখাচ্ছে। এরকম ওয়ালমেট বানিয়ে রুমের ওয়ালে ঝুলিয়ে রাখলে খুব সুন্দর লাগবে।আশা করি রঙিন কাগজ দিয়ে সুন্দর এই ওয়ালমেট টি আপনাদের কাছেও অনেক ভালো লাগবে। তো বন্ধুরা আজ তাহলে এ পর্য্যন্ত্যই পরবর্তীতে আপনাদের মাঝে হাজির হব যেকোনো একটা পোস্ট নিয়ে সে পর্য্যন্ত্য সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন ।


ফোনের বিবরণ

Zskj9C56UonWToSX8tGXNY8jeXKSedJ2aRhGRj6HDecqreqo2XAMzrcrFMezsQ2JYvnkCG8natanTeTWALXvA2X1jsqXD4Nf1w7BTTxEyx7JRMmmeNnz.png

ক্যামেরাস্যামসাং গ্যালাক্সি
ধরণডাই পোস্ট ।
মডেলএম ৬২
ক্যাপচার@mahfuzur888
অবস্থানরাজশাহী- বাংলাদেশ

19-28-53-banner-abb3.png

আমার পরিচয়


IMG-20240412-WA0011.jpg

আমার নাম মোঃমাহফুজুর রহমান।আমি বাংলাদেশের রাজশাহী বিভাগে সিরাজগঞ্জ জেলায় বসবাস করি। আমি বাংলাদেশের একজন সুনাগরিক। সর্বদাই নিজেকে দেশের মঙ্গল কামনায় ব্যস্ত রাখি। আমার জন্মভূমিকে আমি মায়ের মতো ভালোবাসি।আমি ভ্রমণ করতে খুবি ভালোবাসি।তাছাড়া ফটোগ্রাফি করতে আমার ভালো লাগে,আর রান্না করা আমার নেশা, এবং সৃজনশীলতার মাধ্যমে নতুন কিছু তৈরি করতে আমার খুবই ভালো লাগে। তাই আমি আমার সৃজনশীলতা ও দক্ষতা কাজে লাগিয়ে আমার বাংলা ব্লগের মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলতে চাই। এই ছিল আমার সংক্ষিপ্ত পরিচয়,ধন্যবাদ সবাইকে।🌹💖🌹।

Amar_Bangla_Blog_logo_png-3.png

👉 বিশেষভাবে ধন্যবাদ সকল বন্ধুদের যারা এই পোস্টকে সমর্থন করছেন💖

Posted using SteemPro Mobile

Sort:  
 last month 

রঙিন কাগজ দিয়ে খুবই সিম্পল এবং সুন্দর একটি ওয়ালমেট তৈরি করে আমাদের মাঝে উপস্থাপন করেছেন ভাইয়া। ওয়ালমেট তৈরির প্রক্রিয়া প্রত্যেকটি ধাপের মাধ্যমে খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করেছেন। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।

 last month 

জি আপু আমি আমার পক্ষ থেকে যথাসাধ্য চেষ্টা করি ডাই প্রজেক্ট গুলো সুন্দর এবং সহজভাবে আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করার জন্য। যাইহোক এত সুন্দর গঠনমূলক মন্তব্য করে আমার পাশে থেকে আমাকে উৎসাহ দেওয়ার জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ আপু।

 last month 

ভাইয়া আপনি এত ব্যস্ততার মাঝেও একটু সময় বের করে এই সুন্দর ওয়ালমেট বানিয়েছেন জেনে ভালো লাগলো। আপনার এই ওয়ালমেট আমার কাছে অনেক ভালো লেগেছে। মাঝখানে গোলাপ ফুল আর চারপাশে পাতা দিয়ে খুব সুন্দর একটি ওয়ালমেট বানিয়েছেন। এই ধরনের কাজ করতে অনেক সময়ের প্রয়োজন। তবে যখন সম্পূর্ণ বানানোর পর দেখতে সুন্দর লাগে তখন নিজের কাছে খুব ভালো লাগে। রঙিন কাগজ দিয়ে বানানো ওয়ালমেট গুলো দেখতে সবসময়ই ভালো লাগে। ধন্যবাদ ভাইয়া এত সুন্দর ওয়ালমেট আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

 last month 

জি আপু আপনি একদম ঠিক বলেছেন আমি বেশি কিছুদিন যাবত খুব ব্যস্ততার মধ্যে কাটাচ্ছিলাম। তবে ব্যস্ততার মাঝেও আমি আপনাদের মাঝে একটা ওয়ালমেট শেয়ার করতে পেরে আমার খুব ভালো লেগেছিল। আমার এই ওয়ালমেট আপনার কাছে ভালো লেগেছে জেনে আমারও খুব ভালো লাগলো। আমার জন্য দোয়া করবেন আপু আমি যেন শত ব্যস্ততার মাঝেও আপনাদের মাঝে ভালো ভালো কিছু শেয়ার করতে পারি। পরিশেষে এত সুন্দর একটি গঠনমূলক মন্তব্য করে আমার পাশে থেকে আমাকে উৎসাহ দেওয়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ আপু।

 last month 

রঙিন কাগজ দিয়ে অসাধারণ ভাবে একটি ওয়ালমেট তৈরি করেছেন আপনি। আপনার দক্ষতা মেনে নিতে হবে। অসংখ্য ধন্যবাদ এমন একটি ক্রিয়েটিভিটি আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।

 last month 

আমি আমার পক্ষ থেকে যথাসাধ্য চেষ্টা করি ভাই ভালো কিছু আপনাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য। যাইহোক এত সুন্দর একটি মন্তব্য করে আমার পাশে থেকে আমাকে উৎসাহ দেয়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ভাই।

 last month 

রঙিন কাগজ দিয়ে অসাধারণ সুন্দর একটি ওয়ালমেট তৈরি করেছেন দেখে চোখ দাঁড়িয়ে গেল। মাঝের ফুলের সৌন্দর্য টা সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে। আপনার কাজের দক্ষতা আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ভাইয়া।

 last month 

রঙিন কাগজ দিয়ে তৈরি করা আমার এই ওয়ালমেট আপনার কাছে ভালো লেগেছে জেনে আমার খুব ভালো লাগলো। আমি আমার পক্ষ থেকে যথেষ্ট চেষ্টা করেছি ভালো কিছু আপনাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য। যাই হোক এত সুন্দর একটি গঠনমূলক মন্তব্য করে আমার পাশে থেকে আমাকে উৎসাহ দেয়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ভাই।

 last month 

খুবই সুন্দর একটা ওয়ালমেট তৈরি করে আজকে আপনি আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন ভাইয়া। ওয়ালমেট তৈরি করতে আমারও অনেক ভালো লাগে। ওয়ালমেট তৈরি করার ক্ষেত্রে যদি ফুল সুন্দর করা যায় তাহলে ওয়ালমেট দেখতে বেশি ভালো লাগে।

 last month 

আপনি একদম ঠিক বলেছেন ভাই ওয়ালমেট তৈরি করার ক্ষেত্রে যদি ফুলগুলো সুন্দর হয় তাহলে ওয়ালমেটটা দেখতে আরো বেশি সুন্দর লাগে। রঙ্গিন কাগজ দিয়ে বানানো আমার ওয়ালমেটটি আপনার কাছে ভালো লেগেছে জেনে আমার অনেক ভালো লাগলো।যাইহোক এত সুন্দর একটি গঠনমূলক মন্তব্য করে আমার পাশে থেকে আমাকে উৎসাহ দেয়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ভাই।

 last month 

আসলে রঙিন কাগজের তৈরি করা ওয়ালমেট গুলো আমার কাছে অনেক বেশি ভালো লাগে। আপনি আজকে খুবই সুন্দর করে রঙিন কাগজ দিয়ে সুন্দর একটি ওয়ালমেট তৈরি করেছেন। আপনার করা ওয়ালমেট টি আমার কাছে অনেক বেশি ভালো লেগেছে। তবে ভিন্ন কালারের রঙিন কাগজ ব্যবহার করলে আরো বেশি ভালো লাগতো।

 last month 

রঙিন কাগজ দিয়ে তৈরি করা ওয়ালমেট গুলো আপনার ভালো লাগে আমিও জানলাম আজকে। আমার তৈরি করা ওয়ালমেটটি আপনার ভালো লেগেছে জেনে আমারও খুব ভালো লাগলো। আপনার উপদেশও আমি গ্রহণ করলাম পরবর্তীতে চেষ্টা করবো কালার টা আরো ম্যাচিং করার জন্য। যাইহোক এত সুন্দর একটি গঠনমূলক মন্তব্য করে আমার পাশে থেকে আমাকে উৎসাহ দেওয়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ভাই।

 last month 

আপনার তৈরি ডাই প্রজেক্ট গুলো দেখতে অনেক সুন্দর লাগে। পাতা এবং ফুল দিয়ে চমৎকার একটি ওয়ালমেট তৈরি করে দেখিয়েছেন। এধরনের ওয়ালমেট গুলো তৈরি করে ঘরের দেওয়ালে ঝুলিয়ে রাখলে ঘরের সুন্দর্য্য দিগুন বেরে যায়। ভালো লাগলো ধন্যবাদ আপনাকে ভাই।

 last month 

আমার তৈরি করার ডাই প্রজেক্ট গুলো আপনার ভালো লাগে জেনে আমারও খুব ভালো লাগলো। আপনি একদম ঠিক বলেছেন ওয়ালমেট গুলো রুমের ওয়ালে ঝুলে রাখলে রুমের সৌন্দর্য অনেক গুণে বৃদ্ধি পায়। যাইহোক এত সুন্দর মন্তব্য করে আমার পাশে থাকে আমাকে উৎসাহ দেওয়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ভাই।

Upvoted! Thank you for supporting witness @jswit.

 last month 

রঙিন কাগজ দিয়ে খুবই চমৎকার একটা ওয়ালমেট তৈরি করে আপনি আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন দেখে মুগ্ধ হলাম। এ ধরনের ওয়ালমেট তৈরি করতে আসলেই অনেক বেশি সময় এবং ধৈর্যের প্রয়োজন হয়। এরপরেও আপনি এটা খুবই চমৎকার ভাবে তৈরি করে আমাদের মাঝে তুলে ধরেছেন। ধন্যবাদ আপনাকে আমাদের মাঝে চমৎকারভাবে শেয়ার করার জন্য।

 last month 

জি ভাই আপনি একদম ঠিক বলেছেন এ ধরনের ওয়ালমেট তৈরি করতে অনেক সময় এবং ধৈর্যের প্রয়োজন হয়। তারপরেও আমি আমার পক্ষ থেকে যথেষ্ট চেষ্টা করেছি সহজ এবং সুন্দরভাবে আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করার জন্য। পরিশেষে এত সুন্দর একটি মন্তব্যের মাধ্যমে আমার পাশে থাকে আমাকে উৎসাহ দেওয়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ভাই।

Coin Marketplace

STEEM 0.18
TRX 0.14
JST 0.029
BTC 58068.07
ETH 3133.85
USDT 1.00
SBD 2.44