হাতে বানানো মজাদার আমের জুস |•| 10% Beneficiary To @shy-fox 🦊

in আমার বাংলা ব্লগlast month
আজ শনিবার • ১৪ই জ্যৈষ্ঠ • ১৪২৯ বঙ্গাব্দ • ২৮ মে -২০২২


মার বাংলা ব্লগের সকল বাংলাভাষী ব্লগার ভাই এবং বোনদের ঈদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। সবাই কেমন আছেন? আশা করি সবাই মহান সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমতে অনেক ভালো আছেন। আমিও আপনাদের দোয়ায় এবং মহান সৃষ্টিকর্তার রহমতে বেশ ভালই আছি।



Picsart_22-05-28_22-05-07-123.jpg

আমের জুস

আজ সকাল থেকেই প্রচুর গরমের অবস্থা একদম খারাপ। গরমে যেন শরীরের অবস্থা কাহিল। কি করবো না করবো ভেবে পাচ্ছিলাম না। সকাল থেকে বাহিরেও যাই নি, এক মাত্র গরমের কারনেই। কারন আমি গরম একদমই সহ্য কর‍তে পারি না।

দুপুর বেলা গরমের প্রকোপ যেনো আরো অনেক গুনে বেরে গেলো। তাই ভাবলাম সরবত বানিয়ে খাই। বাসায় সরবত বানানোর পাউডারও ছিলো। ঠান্ডা পানি দিয়ে সরবত বানিয়ে খেলে পরানটা একদম ঠান্ডা হয়ে যাবে। তাই আমি দেরি না করে সরবত বানাতে রান্না ঘরে চলে গেলাম।

রান্না ঘরে গিয়ে চোখে পরলো আমাদের গাছের আম গুলো। আম গুলো দেখেই আমার মন ঘুরে গেলো, ভাবলাম আমের জুস বানিয়ে খাওয়া যাক। কিন্তু দুঃখজনক ব্যাপার হল বাসার ব্লেন্ডার মেশিন টি বের করে দেখি সেটি নষ্ট হয়ে গিয়েছে । আহ কিযে টেনশনে পরেছিলাম। পরে আম্মু আমাকে বললো চালুনি দিয়ে আমের রস বের করে আমের জুস বানাতে, তাই দেরি না করে চালুনি দিয়েই আমের জুস বানানো শুরু করলাম।

আজ আপনাদের মাঝে সেই আমের জুস বানানোর রেসিপিটিই শেয়ার করবো। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে। তাহলে চলুন দেরি না করে দেখে আসা যাক আমের জুস বানানোর রেসিপিটি।



image.png

PicsArt_03-21-12.47.38.png

উপকরণের ছবিউপকরণপরিমাণ
IMG_20220528_223209.jpgআমনিজের ইচ্ছা মত
IMG_20220528_223323.jpgচিনিস্বাদ অনুযায়ী
IMG_20220528_223552.jpgলবনস্বাদ অনুযায়ী
IMG_20220528_223725.jpgফ্লেভার১ টেবিল চামচ
IMG_20220528_223903.jpgপানিপরিমান মত
IMG_20220528_224129.jpgচালুনি১ টি

PicsArt_03-21-12.54.27.png

⊕ ধাপ-১ ⊕

IMG_20220528_224308.jpg

প্রথমে আম গুলোকে পিচ করে কেটে নেবো। যেনো চালুনি দিয়ে রস বের করতে সুবিধা হয়।

image.png

⊕ ধাপ-২ ⊕

IMG_20220528_224617.jpg

তারপর আম গুলোগুলোকে চালুনিতে নিয়ে ভালো ভাবে ডোলে আমের রস গুলো একটি বাটিতে নিতে হবে।

image.png

⊕ ধাপ-৩ ⊕

IMG_20220528_224902.jpg

আম গুলোর রস বের করে নেয়ার পর আমের রস গুলো থেকে আমের আঁশ গুলোকে বের করে নেব। আপনারা চাইলে ছাকুনি দিয়ে নিতে পারেন।

image.png

⊕ ধাপ-৪ ⊕

IMG_20220528_225339.jpg

এবার আমের রস গুলোর মধ্যে পরিমাণমতো পানি দিয়ে নেব।

image.png

⊕ ধাপ-৫ ⊕

IMG_20220528_225812.jpg

এবার পরিমাণমতো ফ্লেভার যোগ করব। আপনারা চাইলে এই ফ্লেভার নাও যোগ করতে পারেন আমি একটু ভিন্ন স্বাদের জন্য এই ফ্লাইওভারটি যোগ করেছি।

IMG_20220528_230030.jpg

এবার স্বাদ অনুযায়ী চিনি যোগ করব।

IMG_20220528_230123.jpg

এবার স্বাদ অনুযায়ী লবণ দিয়ে সব গুলোকে একসাথে মিশিয়ে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে মজাদার আমের জুস।

image.png

আশা করি আপনাদের সকলের কাছে আমার জুসের রেসিপিটি ভালো লেগেছে। সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ আমার এই পোষ্টে আসার জন্য। সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন শুভকামনা রইল সকলের। জন্য

4i88GgaV8qiFU89taP2MgKXzwntUGAvkoQiKU7VxyD37q97fefnfWhQ13UMRWeknr7xdZZ6cbo4v6hWwmCHKLHP4BgwejnDSbMjPKVuX1pcruLDgsQFvWBK4Pp.png

PicsArt_03-22-02.27.17.png

আমি মাহির শাহরিয়ার ইভান। আমার বাসা বাংলাদেশের রংপুর বিভাগে । আমি একজন ব্লগার, ফটোগ্রাফার এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। নতুন কোন বিষয়ে লিখতে এবং সবাই কে অজানা বিষয়ে জানাতে আমার ভিষণ ভালো লাগে। ছবি তুলতে, জাঙ্ক ফুড খেতে এবং ঘুরতেও আমি ভিষণ পছন্দ করি । আর আমার সব থেকে বড় শখ ছবি তোলা।

FacebookTwitterYouTube

4i88GgaV8qiFU89taP2MgKXzwntUGAvkoQiKU7VxyD37q97fefnfWhQ13UMRWeknr7xdZZ6cbo4v6hWwmCHKLHP4BgwejnDSbMjPKVuX1pcruLDgsQFvWBK4Pp.png

standard_Discord_Zip.gif

Support @heroism Initiative by Delegating your Steem Power

250 SP500 SP1000 SP2000 SP5000 SP

Heroism_3rd.png

JOIN WITH US ON DISCORD SERVER

Sort:  
 last month 

পাইডারের বানানো শরবত থেকেও আমের জুসের শরবত খাওয়া ভালো। ব্লেন্ডার ছাড়াই ভালোকরেই শরবত বানিয়ে ফেলেছেন। খেতেও মজা হয়েছে নিশ্চয়।

 last month 

আমার খুবই পছন্দের একটি ফল, আর আমের জুস সেটাতো আরো বেশি পছন্দ, সাথে টেং ব্যবহার করেছেন এটি মনে হয় আরো বেশি স্বাদ বাড়িয়ে দেবে। চমৎকার হয়েছে আপনার আজকের তৈরি করা এই জুস।

 last month 

ট্যাং ব্যবহার করার কারণে আলাদা রকম একটা ফ্লেভার এসেছে ভাইয়া। আমার কাছে ফ্লেভার টি বেশ ভালোই লেগেছে। আপনিও চাইলে ট্রাই করে দেখতে পারেন আশা করি আপনার কাছে ভালো লাগবে।

Upvoted! Thank you for supporting witness @jswit.
Please check my new project, STEEM.NFT. Thank you!
default.jpg

 last month 

সময় উপযোগী পোস্টটি করার জন্য আপনাকে প্রথমেই ধন্যবাদ জানাচ্ছি ।আমের শরবত মোটামুটি সবাই পছন্দ করে ।তবে সবার নাকি পেটে সহ্য হয়না ।তো অনেক ভালো ছিল।

 last month 

কেন ভাইয়া পেটে সহ্য হয় না কেন? এটা ঠিক বুঝলাম না। বললে খুব ভালো হতো ☺️

 last month 

আপনি খুব মজাদার রেসিপি তৈরি করলেন ভাই। আজকে আপনার আমের রেসিপি দেখে খেতে ইচ্ছা করছে। এই গরমের দিনে আমের রেসিপি খেতে খুবই ভালো লাগতো, শুভকামনা রইল আপনার জন্য।

 last month 

আমার পোস্ট টি অনুসরণ করে বানিয়ে খেয়ে ফেলুন ভাইয়া। 😋

 last month 

ভাইয়া আপনি নিজের হাতে খুব সুন্দর করে মজাদার আমের জুস তৈরি করেছেন। জুস টি দেখে আমার খুব খেতে ইচ্ছে করছে। অবশ্য নিজের হাতে বানানো সহজ দেখতে যেমন আকর্ষণীয় হয় খেতেও তেমন ভালো হয়। আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া আমের জুসের রেসিপি টা আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।আপনার জন্য শুভেচ্ছা রইল।

 last month 

আসলে দোষটা ব্লেন্ডার ছাড়া হাতে তৈরি করেছিলাম তবুও খেতে ভীষণ সুস্বাদু হয়েছিল। আপনিও এভাবে ট্রাই করে দেখতে পারেন আশা করি আপনার কাছে খুবই ভালো লাগবে।

 last month 

নিজের নিজের গাছের আম দিয়ে এভাবে মজাদার আমের জুস তৈরি করে খেতে ভালো লাগে নিশ্চয়ই। আপনার ব্লেন্ডার নষ্ট হয়ে গেছে ভালো হয়েছে আপনি ব্লেন্ডার নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারণে নিজে হাতে তৈরি করে আমের জুস বানিয়ে খেতে পারলেন ।খুব সুন্দর করে প্রতিটি ধাপে ধাপে নিজের হাতে বানানো জুসের রেসিপি শেয়ার করেছেন অনেক ভালো হয়েছে।

 last month 

আসলেই নিজেদের গাছের আম দিয়ে রকম জুস বানিয়ে খেতে মজাই আলাদা। হ্যাপি ঠিক বলেছেন ব্লেন্ডার নষ্ট হওয়াতে হাতে বানিয়ে খাওয়া হলো। এটার আলাদা একটা মজা।

 last month 

আপনি খুব সুন্দর ভাবে একটি আমের জুস বানানোর রেসিপি আমাদের মাঝে তুলে ধরেছেন। বর্তমান আমের মৌসুম চলতাছে এই সময় আমের বিভিন্ন ধরনের রেসিপি আমাদের তো পাবো। কিছুদিন আগে কাঁচা আম থাকতে যেমন আমরা আমের আচার দেখতে পেয়েছিলাম ।এখন পাকা আমের জুস থেকে শুরু করে অনেক রকমের মজাদার মজাদার পোস্ট দেখতে পাবো। এই গরমে ঠান্ডা আমের জুস খেতে এক আলাদা প্রশান্তি কাজ করবে। এত সুন্দর একটি জুস তৈরি করার প্রক্রিয়া আমাদের মাঝে তুলে ধরার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

 last month 

চেষ্টা করব আপু আপনাদের মাঝে আরও পাকা আমের রেসিপি নিয়ে হাজির হতে।
অনেক অনেক ধন্যবাদ আপু আপনার মূল্যবান মতামত দিয়ে আমাকে উৎসাহিত করার জন্য।

 last month 

আপনি খুবই সুন্দর একটি জিনিস তৈরি করেছেন দেখেই তো আমার খেতে ইচ্ছে করছে। আমের জুস খেতে আমার খুবই ভালো লাগে। ধন্যবাদ আপনাকে এত সুন্দর একটি পোস্ট আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।

 last month 

আম খেতে আমার ভীষণ ভালো লাগে। আমের গুটি অন্যরকম একটা ভালোবাসা রয়েছে আমার। আপনি খুব সুন্দর করে আমের জুসের রেসিপি আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন ভাই। গরমের সময় এরকম আমের জুসের রেসিপি খেলে কলিজা ঠান্ডা হয়ে যাবে। সাথে আপনার উপস্থাপনা অনেক ভাল ছিল। শুভকামনা রইল আপনার জন্য ভাই।

 last month 

আসলেই ভাই সেদিন প্রচুর গরম ছিল তাই এই জুসটি খাওয়ার পর কলিজা যেন একদম ঠান্ডা হয়ে গিয়েছিল।
🥰

 last month 

এই গরমে এক গ্লাস ঠান্ডা আমের জুস খেলে শরীর ঠান্ডা হয়ে যায়। আমার খুবই পছন্দের একটি ফল। ব্লেন্ডার ছাড়াই চমৎকার আমের জুস তৈরি করলে। আমের জুস তৈরি করার পদ্ধতি টি শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ। শুভকামনা রইল।

 last month 

গরমের সময় জুস অনেক কাজে আসে। আপনার হাতে বানানো মজাদার আমের জুস দেখে খুব খেতে মন চাচ্ছে ভাই। আসলে আমি গরমের সময় জুস অনেক পছন্দ করি। 😁

 last month 

তাহলে ভাই আমার বাসায় চলে আসুন, দুই ভাই মিলে আবার জুস বানিয়ে খাবো আমার বাসায় অনেক আম রয়েছে হাহাহা। ধন্যবাদ আপনার মতামতের জন্য।

 last month 

ফলের রাজা আম আর এই আম খেতে কে না পছন্দ করে। আর আপনি আম দিয়ে খুবই মজাদার জুস তৈরি করে ফেললেন তাও আবার ব্লেন্ডার করা ছাড়াই। এই গরমে এরকম এক গ্লাস আমের জুস খেতে পারলে শরীর একদম ঠান্ডা হয়ে যাবে। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি জুস তৈরি রেসিপি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য আপনার জন্য শুভেচ্ছা ও শুভকামনা রইল।

 last month 

হঠাৎ দেখি ব্লেন্ডার মেশিন নষ্ট হয়ে গিয়েছে তাই চিন্তা করলাম হাত দিয়েই তৈরি করে ফেলি, গরমে খেতে তো হবেই। ধন্যবাদ আপু আপনার মূল্যবান মতামত দেয়ার জন্য।

 last month 

আপনি খুবই চমৎকার ভাবে আমাদের মাঝে মজাদার আমের জুস রেসিপি শেয়ার করেছেন আপনার এই মজাদার আমের জুস দেখে আমার জিভে জল এসে যাচ্ছে। খুবই চমৎকার ভাবে আমাদের মাঝে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত শেয়ার করেছেন। এত মজাদার একটি আমের জুস রেসিপি শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

 last month 

আমার রেসিপিটি আপনার কাছে ভাল লেগেছে জেনে খুশি হলাম, অবশ্য এভাবে আমের জুস বানিয়ে খেয়ে দেখবেন আশা করি আপনার কাছে খুবই ভালো লাগবে। ধন্যবাদ।

 last month 

আমের জুস বরাবরই আমার অনেক ফেভারিট আপনার জুস বানানো দেখেই জিভে জল চলে আসলো খেতে নিশ্চয়ই ভারি মজা হয়েছিল যদিও এ বছরে এখনো আমের জুস খাওয়া হয়নি

 last month 

আমি দুঃখিত আমিও ভীষণ পছন্দ করি ভাইয়া। আপনি এখনো আমের জুস খাননি! তাড়াতাড়ি খেয়ে ফেলুন না হলে আমের মৌসুম চলে যাবে তো। 😁

 last month 

ভাইয়া আমিও গতকালকে হাতে বানানো আমের জুসের রেসিপি শেয়ার করেছিলাম। আমার কাছে এই জুস খেতে অনেক ভালো লাগে। আপনার জুস দেখতে অনেক সুন্দর হয়েছে। এভাবে পাকা আমের জুস খেতে খুবই সুস্বাদু লাগে। গরমের মধ্যে এই জুস খেলে শরীর ঠান্ডা হয়ে যায়। আপনি খুব সুন্দর ভাবে হাতে বানানো পাকা আমের জুসের ধাপগুলো বর্ণনা করেছেন। ধন্যবাদ ভাইয়া মজাদার জুস রেসিপি শেয়ার করার জন্য। আপনার জন্য শুভকামনা রইল।

 last month 

আপনার রেসিপিটি আমি দেখেছিলাম আপু, বেশ সুন্দর হয়েছিলো। আর এই আমের জুস আমারো ভীষণ পছন্দের। ধন্যবাদ আপু।

 last month 

দারুন তো।ব্লেন্ডার ছাড়াই জুস বানিয়ে ফেলনেন।আমার মনে হয় ফ্লেভার ছাড়াই ন্যাচারাল স্বাদ হবে।কালারটা নেশ দারুন।প্রতিটি ধাপ খুব সুন্দর করে দেখিয়েছেন।ধন্যবাদ আপনাকে।

 last month 

আসলে ফ্লেভার এড করার কারণ আমি একটু ভিন্ন স্বাদের জিনিস পছন্দ করি। তবে ফ্লেভার এড না করলেও খেতে বেশ দারুন হত। সেটা পরে বুঝতে পেরেছি। ধন্যবাদ।

 last month 

যে কোন ফল আমার কাছে অনেক ভালো লাগে। তবে আম খেতে আমার বেশি ভালো লাগে। ভীষণ পছন্দের আমার আম আপনি আজকে আমের জুস তৈরি করে আমাদের মাঝে উপস্থাপন করেছেন আপনার জুস দেখেই তো খেতে ইচ্ছে করছে। অনেক ধন্যবাদ আপনাকে

 last month 

আমারও খুবই পছন্দের একটি ফল।
ধন্যবাদ ভাই আপনার মূল্যবান মতামত দেয়ার জন্য। শুভকামনা রইল আপনার জন্য।

 last month 

আপনি মজাদার আমের জুস রেসিপিটা অসাধারণ ভাবে তৈরি করেছেন। দেখে আমার লোভ লেগে গেল। আপনি খুবই সুন্দর ভাবে এটা উপস্থাপন করেছেন। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এই ধরনের রেসিপি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

 last month 

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ আপনার গঠনমূলক মতামত দিয়ে আমাকে উৎসাহিত করার জন্য।

 last month 

ঠান্ডা পানি দিয়ে সরবত বানিয়ে খেলে পরানটা একদম ঠান্ডা হয়ে যাবে।

বাজার থেকে আমের জুস ক্রয় করে না খেয়ে আমি মনে করি এই ধরনের হাতে তৈরি করা আমের জুস খাওয়ায় ভালো। কেননা বাজারে যে জুস তৈরি করা হয় তাতে বিভিন্ন ধরনের কেমিক্যাল ব্যবহার করা হয় কিন্তু নিজে হাতে যদি ঠাণ্ডা পানি দিয়ে এই ধরনের জুস তৈরি করা হয় তাহলে পরানটা ঠান্ডা হয়ে যায়। সেই পদ্ধতিটাই আজকে আপনি আমাদের মাঝে চমৎকারভাবে শেয়ার করেছেন ভাইয়া।

 last month 

জ্বি ভাই আমিও তাই মনে করি‌, বাজারে যে জুস গুলো পাওয়া যায় সেগুলো কে এড়িয়ে চলাই উচিত।
আর আমার বানানো এই যে আমি ঠাণ্ডা পানি ব্যবহার করেছিলাম ভাইয়া খেয়ে একদম পরানটা জুরিয়ে গিয়েছিল। ধন্যবাদ আপনার মূল্যবান মতামত দেওয়ার জন্য।

 last month 

এই গরমের ভেতর আমের জুস দেখে খুব লোভ লাগছে। আপনার জুস তৈরি রেসিপি দেখে বোঝা যাচ্ছে এটা অনেক সুস্বাদু হয়েছে গরমের ভিতর খেতে বেশ ভালোই লাগবে ।

 last month 

আপনিও খুব সহজেই বানিয়ে ফেলুন ভাইয়া এই মজাদার আমের জুস। ধন্যবাদ আপনার মূল্যবান মতামত দেয়ার জন্য।

Coin Marketplace

STEEM 0.22
TRX 0.07
JST 0.027
BTC 19526.10
ETH 1066.14
USDT 1.00
SBD 2.89