আমার সাথে ঘটে যাওয়া একটি ভয়ানক ঘটনা 👻

in আমার বাংলা ব্লগ5 months ago (edited)
💖 সবাইকে স্বাগতম 💖

house-4830491_1920.jpg

Image Source

এই ঘটনা খুব রিসেন্ট আমার সাথে ঘটেছে, বেশিদিন হবেনা। তখন আমি নরসিংদী থাকতাম। আমরা কয়েকজন বন্ধু মিলে ভার্সিটির পাশেই একটি ফ্ল্যাট নিয়ে থাকা শুরু করলাম। সেই ফ্লাট একটু অন্যরকম ছিল। একদম নতুন তেমন কোন ভাড়াটিয়া ওঠেনি, শুধুমাত্র আমরা থাকবো বলে ফ্লাট টা বাসার মালিক কোনোভাবেই ঠিক করে। দেয় কিছুদিন পরে আরো দুই ভাড়াটিয়া উঠে। ছয়তলা বিল্ডিং ছিল এবং শুধুমাত্র তিনটা ফ্লাটে মানুষ ছিল।বাকি ফ্ল্যাটগুলোতে তখনও কোন ভাড়াটিয়া উঠেনি। তখন পুজোর মৌসুম চলছে। আমার বন্ধুরা সবাই মিলে ঠিক করলো তারা ঘুরতে যাবে, পরবর্তীতে সেই প্লান ক্যানসেল করা হলো এবং সবাই বাসায় যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিল। পূজোর ছুটি মাত্র ৪ দিন ছিল এবং আমার বাসা থেকে নরসিংদী দূরত্ব অনেক তাই যেতে আসতেই দুদিন লেগে যাবে। এত দূরে যাওয়া আসা জার্নি একটু সমস্যা হয়ে যাবে। তাই চিন্তা করলাম এই চার দিন কোন ভাবে একাই কাটিয়ে দেবো।

পুজোর ছুটিতে প্রায় সবাই বাসায় যেতে শুরু করল। আমি এবং আমার রুমমেট ফ্ল্যাটে ছিলাম এবং আমাদের ফ্লাটে ছিল একদম টপ ফ্লোরে অর্থাৎ ৬ তালায়। আমার রুমমেটের গাড়ি পরদিন সকালবেলা ছিল, তাই সেদিন রাতে আমি এবং আমার রুমমেট একাই ছিলাম। সেখানে সে-রাতে তেমন কোনো সমস্যা হয়নি যদিও আমি একটু ভীতু প্রকৃতির মানুষ। তাই সব সময় ভয় আমার দিকে অগ্রসর হতে থাকে। যাই হোক পরদিন আমার রুমমেট কে বিদায় দিয়ে রুমে আসলাম এবং আমাদের ভার্সিটির অনেকেই বাসায় যায়নি। তাদের ম্যাচ বা ফ্লাটে একই অবস্থা। কেউ দুইজন তো কেউ একজন রয়েছে। এমন কিছু বন্ধু বান্ধবের সাথে সারাদিন আড্ডা দিলাম, কথা বললাম। পরবর্তীতে সন্ধ্যার পরে বাসায় চলে আসলাম। বাসায় এসে রান্নাবান্না করে খাওয়া দাওয়া শেষ করে পড়াশোনায় বসলাম।

wolf-3603190.jpg

Image Source

রাত তখন আনুমানিক দশটা হবে, পড়াশোনা করতে ইচ্ছা করছিল না। তাই Discord এ ঢুকে সবার সাথে চ্যাটিং করছিলাম। এমন সময় কারেন্ট চলে গেল। আমার ভয় যেন বাড়তেই থাকল, এদিকে এদিকে চার্জার জ্বালিয়ে কিছুক্ষণ সবার সাথে আড্ডা দিচ্ছিলাম। কিছুক্ষণ পরেই কারেন্ট চলে আসলো। আমি যেন একটু শান্তি পেলাম। পরবর্তীতে সবার সাথে গল্প গুজব করতে করতে রাত প্রায় বারোটা বেজে গেল। অনেক ঘুম পাচ্ছিলো তাই বিছানা ঠিক করে ঘুমানো সিদ্ধান্ত নিলাম। এমন সময় মনে হচ্ছিল আমার মেইন গেটে কেউ যেন নক করছে। আমি চিন্তা করলাম এত রাতে আমাদের ফ্ল্যাটে আসার মত আর কেউ নেই। আবার চিন্তা করলাম হয়তো কোন ভুল ধারণা হচ্ছে আমার। এরপরে যখন আবার ঘুমানোর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম তখন দেখি আবার সেই দরজায় নক করছিলো। আমি আবারও মনের ভুল বলে বিষয়টাকে ইগনোর করলাম। কিন্তু এবার কান খাড়া রেখে শোনার চেষ্টা করলাম। এবার কোন শব্দ হলে যেন শুনতে পাই। বেশ কিছুক্ষন অপেক্ষা করার পরে মনে হলো না দরজায় কেউ নেই, কেউ নক করছে না। যখন একটু চোখ বন্ধ করলাম আবার সেই শব্দ শুনতে পেলাম। এবার আমার ভয় আতঙ্ক দুটোই বেড়ে গেল। তাছাড়া আমাদের দরজায় কলিং বেল লাগানো আছে। যদি কোন মানুষ থাকতো তাহলে দরজায় নক না করে অবশ্যই কলিং বেল বাজাতো।

আমি আর দরজার কাছে গেলাম না। আমি আমার রুমের দরজা টি ও ভালভাবে লাগিয়ে আমার বিছানায় বসে পড়লাম। এই দিকে ল্যাপটপ অন করে একটি মুভি চালিয়ে দিলাম। কারণ এই দিকে আমার ভয় লাগছে তাই কমেডি মুভি দেখছি যাতে করে ভয়টা কেটে যায়। মুভিটি শেষ করলাম আনুমানিক রাত ১.৩০ হবে। তখন Discord এ অনেকেই আড্ডা দিচ্ছিল, এর পরে তাদের সাথে কথা বলতে বলতে এত কিছু যে ঘটে গিয়েছে সে সবার মনে নেই। এদিকে আমাকে ওয়াসরুমে যেতে হবে তাই দরজা খুলে ওয়াশ রুমের দিকে গেলাম, শেষ করে বেসিনের সামনে দাঁড়ালাম। হাত ধুলাম, মুখে পানি দিচ্ছিলাম এমন সময় মনে হচ্ছে পাশের থাকা জালানা থেকে কেউ আমাকে দেখছে।

window-5470985.jpg

Image Source

তৎক্ষণাৎ আমি জানালার দিকে তাকালাম এবং যা দেখলাম তা দেখার জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিলাম না। দেখলাম একটি কালো ছায়া সেখানে দাঁড়িয়ে রয়েছে। আমি তাকাতেই সেটি যেন ভেননিস হয়ে গেল। আমার এতটা ভয় লাগছিল তা আমি প্রকাশ করতে পারছিনা। তাড়াহুড়ো করে বেসিন থেকে এসে আমার রুমের দরজা লাগিয়ে দিলাম। এর মধ্যে চলে গেল কারেন্ট। ভয় যেন আরও বাড়তে থাকল। লাইট অন করে বিছানার এক কোণে মোবাইল হাতে নিয়ে বসে রইলাম। তখন দরজায় নক করার শব্দ গুলো স্পস্ট শুনতে পারছিলাম। দোয়া পড়তে থাকলাম। এমন ভাবেই সারা রাত অতিবাহিত করে দিলাম। ভোর বেলা আযান দিলো, তখনই বাসা থেকে বেরিয়ে পড়লাম এবং ঢাকার একটি আত্মীয়র বাসায় যেয়ে ফ্রেশ হলাম। পরবর্তীতে সেই দিনই বাসার উদ্দেশ্যে রওনা দেই।

পরবর্তীতে জানতে পারি সেই বিল্ডিং তৈরি করার সময় ২ জন শ্রমিকের প্রাণ গিয়েছিল। বিষয়টা কাকতালীয় হলেও আমার সাথে কেন জানি ছোটবেলা থেকেই এরকম অসংখ্য ঘটনা ঘটেছে। তাই সহজে আমার পরিবার একা থাকতে দেয় না আমাকে।। সেই রাতে আরো বেস কিছু ঘটনা ঘটেছে, অনেক কিছু দেখেছিলাম কিন্তু সেগুলো আর এখানে বলতে চাচ্ছি না। আশা করি আমার এই ঘটনাটি আপনাদের ভালো লেগেছে।



Support @heroism Initiative by Delegating your Steem Power

250 SP500 SP1000 SP2000 SP5000 SP

Heroism_3rd.png


photo_2021-06-30_13-14-56.jpg

photo_2021-06-28_11-13-39.jpg

আমি আল সারজিল ইসলাম সিয়াম। আমি বাঙালি হিসেবে পরিচয় দিতে গর্ববোধ করি। আমি বর্তমানে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বিএসসি-র ছাত্র। আমি স্বতন্ত্র স্বাধীনতা সমর্থন করি। আমি বই পড়তে এবং কবিতা লিখতে পছন্দ করি। আমি নিজের মতামত প্রকাশ করার এবং অন্যের মতামত মূল্যায়ন করার চেষ্টা করি। আমি অনেক ভ্রমণ পছন্দ করি। আমি আমার অতিরিক্ত সময় ভ্রমণ করি এবং নতুন মানুষের সাথে পরিচিত হতে ভালোবাসি। নতুন মানুষের সংস্কৃতি এবং তাদের জীবন চলার যে ধরন সেটি পর্যবেক্ষণ করতে ভালোবাসি। আমি সব সময় নতুন কিছু জানার চেষ্টা করে যখনই কোনো কিছু নতুন কিছু দেখতে পাই সেটার উপরে আকর্ষণটি আমার বেশি থাকে।

A5tMjLhTTnj4UJ3Q17DFR9PmiB5HnomwsPZ1BrfGqKbjddgXFQSs49C4STfzSVsuC3FFbePnB7C4GwVRpxUB36KEVxnuiA7vu67jQLLSEq12SJV1etMVkHVQBGVm1AfT2S916muAvY3e7MD1QYJxHDFjsxQDqXN3pTeN2wYBz7e62LRaU5P1fzAajXC55fSNAVZp1Z3Jsjpc4.gif



বিষয়: আমার সাথে ঘটে যাওয়া একটি ভয়ানক ঘটনা 👻

কমিউনিটি : আমার বাংলা ব্লগ

আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাই এই কমিউনিটির সকল সদস্য কে, ধন্যবাদ.......

Sort:  
 5 months ago 

আপনার সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি আসলে একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা একাকী থাকলে অনেকের জীবনে এধরনের ঘটনা ঘটে থাকে।তাই আশা করব এর পরবর্তীতে কখনো একা একা কখনো কোন জায়গায় থাকবেন না। আপনার জন্য দোয়া এবং শুভকামনা রইল।

 5 months ago 

অপরিচিত কোন জায়গায় একা না থাকার চেস্টা করি।

 5 months ago 

ভাইয়া ভাগ্যিস ঘটনাটা রাত্রে শেয়ার করেন নি । একা রুমে বসে এই পোস্ট পড়তে থাকলে আমার জানালাতেও যে কালো ছায়া দেখে চোখের ভুল হবেনা এর গ্যারান্টি ছিল না ।
আমি সাধারণত উঠানের শেষ প্রান্তে দুইটা রুমের একটাতে থাকি । পাশের রুমে দাদি থাকতো । তিনি মারা যাওয়ার পর এখন প্রায় রাত্রে ফাঁকায় থাকে । শব্দ যা করার ইঁদুরে করে সারা রাত । তবে রাত্রে বসে বসে এই ঘটনা পড়লে নিশ্চিত ভয় পেতাম ।
তবে ভাইয়া যায় হোক ওভাবে একা একা আপনার ফ্লাটে থেকে যাওয়া মোটেও উচিৎ ছিল না । মনের ভয় থেকে মানুষ অনেক কিছু দেখে থাকে ।

 5 months ago 

ঠিক বলেছেন ভাই, তবে আমি বলতে পারি এটা মনের ভয় ছিলো না। আমার দাদি ১ বছর হল মারা গিয়েছে, দাদির রুম একটু ডেকোরেশন করে এখানেই থাকি এখন।

 5 months ago 

তবে ভাইয়া এমন ঘটনা দেখে যে আপনি সেই রাত সুস্থ ভাবে পার করে ফেলেছেন এই থেকে ধারণা করা যায় আপনি কিন্তু অতটাও ভীতু না । আমি এমন অনেকের থেকে শুনেছি একাকি ঘরে থেকে এমন ভয় পেয়েছিল সকালে তাদের অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে লেগেছিল ।

 5 months ago 

কিছুদিন আগে আপনার সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি সত্যি ভীতিকর ছিলো। আসলে একা থাকলে আমারও খুব লাগে। তারপর ও রাত্রিটি আপনি অতিক্রম করতে পেরেছেন।আমি হলে আমার অবস্থা আরো খারাপ হয়ে যেত, ভাই।আসলে পুরোনো বিল্ডিং হলে বা নিরিবিলি হলে জ্বিনের আসা-যাওয়া হতে পারে। কারন মানুষ ছাড়াও জ্বিনের অস্তিত্ব আছে।আপনার সাথে ঘটে যাওয়া ভীতিকর মুহূর্তটি এত সুন্দর ও চমৎকার ভাবে আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ভাইয়া। আপনার জন্য অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও শুভকামনা।

 5 months ago 

তখন জানতাম না সেখানে ২ জন মারা গিয়েছিলো। ভয় পেয়েছিলাম অনেক।

 5 months ago 

আগে থেকে না জানার কারনে আপনার খুবই ভালো হয়েছে। আগে থেকে জানলে যে কেউ ভয়ে অবস্থা আরো খারাপ হয়ে যেত, ভাই।

 5 months ago 

ভাই, গা শিউরে যাওয়া ঘটনা বর্ণনা করেছেন। আপনার সাথে ঘটে যাওয়া ভয়ানক ঘটনাটি পড়ে আমারও ভীষণ ভয় করছে। আপনার জায়গায় আমি হলে হয়তো বা জ্ঞান হারিয়ে ফেলতাম। আপনি খুবই সাহসিকতার সাথে সেই ভয়ানক রাতটি পার করেছেন। আপনি যে সেদিন সুস্থ সবল ছিলেন এটাই আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জানাচ্ছি। এত সুন্দর একটি ভয়ানক ঘটনা আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ।

 5 months ago 

ভয় লাগলেও পড়তে কিন্তু সেই লাগে। আগের লেখাটার মতন এটাও জবরদস্ত ছিল। তাহলে আরেকটা গল্প শুনিয়েই দিলেন।

 5 months ago 

হু আপু, রাতে পড়লেই ভয় লাগবে কিন্তু।

 5 months ago 

অবশ্য এমন জাতীয় ঘটনা গুলো রাতে পড়া ঠিক নয়। এরপরেও আপনার ঘটনাটি পড়ে একটু গা শিউরে উঠলো। আসলে আপনার ওই অবস্থায় একা থাকা উচিত হয়নি। কারণ মনের মধ্যে অন্যরকম ভয় জন্মায় একা থাকার ফলে। যাইহোক, গল্পটা বেশি গুছিয়ে লিখেছেন এবং খুব ভীতিকরজনক।

 5 months ago 

ভাইয়া আপনার পোস্টটি পড়ে আমি বুঝতে পারলাম ঘটনাটি খুবই ভীতি করছিল এবং ঘটনাটি পড়ার সাথে সাথে আমার শরীর শিউরে উঠলো। ভাইয়া রাত্রে একা একা থাকা অথবা কোথাও যাওয়ার বিষয়ে সচেতন হওয়া উচিত কেননা সবাইকে মনের ভয় বলে উড়িয়ে দেয়া উচিত নয়। রাতের আঁধারে এরকম ভয় মনের মধ্যে থাকলে অনেক ধরনের মানসিক সমস্যা পরবর্তীতে দেখা দিতে পারে।

Coin Marketplace

STEEM 0.20
TRX 0.06
JST 0.028
BTC 23058.12
ETH 1598.10
USDT 1.00
SBD 2.55