একটি বাঘ একটি হরিণকে শিকার করছে তার দৃশ্য অঙ্কন ।। অরিজিনাল আর্টওয়ার্ক

in আমার বাংলা ব্লগlast month
হ্যালো বন্ধুরা, সবাই কেমন আছেন? আশা করি সবাই ভালো আছেন। সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে আজকের ব্লগটি শুরু করছি।

আজকে আমি আপনাদের সামনে একটা নতুন অঙ্কন নিয়ে হাজির হলাম। আজকে আমি দুটি প্রাণীর চিত্র অঙ্কন করেছি যেখানে একজন আরেকজনকে শিকার করছে। এখানে আমি মূলত একটা বাঘ আর একটি হরিনের শিকারের দৃশ্যটা ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি। হরিণ খুব চালাক হয়ে থাকে ফলে মাঝেমধ্যে বাঘও বোকা হয়ে যায়। তবে চিতা বাঘগুলো হিংস্র হয় বেশি, ওদের হাত থেকে কোনো শিকারী প্রাণী সহজে নিস্তার পায় না। আমি মাঝেমধ্যে ডিসকভারি চ্যানেলগুলোতে দেখি এই শিকারের বিষয়গুলো, আমার কাছে বেশ ভালো লাগে দেখতে। যাইহোক এখানে ক্ষুধার্থ বাঘ একটা হরিণকে শিকারের জন্য তাড়া করেছে আর হরিণটি তার হাতের থেকে বাঁচার জন্য লাফ দিয়ে দিয়ে দ্রুত বেগে ছুটছে, বিষয়টা এমনভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। আশা করি আজকের এই অঙ্কনটি আপনাদের কাছে ভালো লাগবে।


☬উপকরণ:☬

আর্ট পেপার
বোর্ড
স্কেচ পেন্সিল
পেন
কালার পেন্সিল
রাবার

✎এখন অঙ্কনের ধাপগুলো আমি নিচের দিকে তুলে ধরবো---

➤প্রথম ধাপে আমি একটি হরিনের ছবি সম্পন্নভাবে অঙ্কন করে নিয়েছি। এখানে হরিণটি লাফ দিচ্ছে সেই বিষয়টা তুলে ধরেছি।

➤দ্বিতীয় ধাপে হরিনের পিছনে একটি ক্ষুধার্থ শিকারী বাঘকে সম্পন্নভাবে অঙ্কন করেছি।

➤তৃতীয় ধাপে পেনের কালী দিয়ে উভয় পক্ষের চিত্রকে আরো ভালোভাবে ফুটিয়ে তুলেছি।

➤চতুর্থ ধাপে বাঘটির পিছনে একটা বড়ো গাছের মতো তৈরি করে দিয়েছিলাম এবং সেখানে কিছু বড়ো বড়ো পাথরের মতো দেখতে অঙ্কন করে দিয়েছিলাম। এরপর দূরে মেঘ এর মতো তৈরি করে নিয়েছিলাম।

➤পঞ্চম ধাপে আকাশি কালার দিয়ে আকাশের দৃশ্য ফুটিয়ে তুলেছিলাম।

➤ষষ্ঠ ধাপে গাছের পাতাগুলোতে কালার দিয়ে দিয়েছিলাম।

➤সপ্তম ধাপে মেঘের মতো দেখতে দৃশ্যতে কালার দিয়ে দিয়েছিলাম। এরপর গাছের বডিতে কালার করে দিয়েছিলাম।

➤অষ্টম ধাপে হরিণ এবং বাঘের সম্পূর্ণ বডিতে কালার করে দিয়েছিলাম।

➤নবম ধাপে পাথর দুটিতে কালার দিয়ে দিয়েছিলাম এবং সাথে কর্নারের দিকে বড়ো ঘাসের মতো বোঝাতে তৈরি করে দিয়েছিলাম। এরপর শেষে উড়ে যাওয়া কিছু পাখির দৃশ্য ফুটিয়ে তুলেছিলাম।

আর্ট বাই, @winkles

শুভেচ্ছান্তে, @winkles


Support @heroism Initiative by Delegating your Steem Power

250 SP500 SP1000 SP2000 SP5000 SP

Heroism_3rd.png

Sort:  
 last month (edited)

ডিসকভারি চ্যানেল দাদা এটা আমার কাছে বেশ লাগে,আমিও সময় পেলেই দেখি।বিভিন্ন জীব-জন্তুর ভিডিও খুব সুন্দরভাবে তুলে ধরে এই চ্যানেলে।তাছাড়া কখনো মানুষ গিয়ে কিভাবে পোকা -মাকড় ,সাপ ধরে খেয়ে জীবন ধারণ করে বেঁচে থাকে।যেমন ভয়াবহ, তেমনি দৃশ্যটি দেখলে ঘৃণা লাগে আমার।দাদা আমি শুনেছি কোনো কোনো সময় বাঘের সঙ্গে মায়াবী হরিণ থাকে তাঁদেরকে বাঘমসাই কিছুই বলে না। দাদা দিন দিন আপনি নতুন চিন্তাভাবনার আর্ট করছেন যেটি আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে।তবে আপনার আর্ট নিয়ে কোনো কথা হবে না কারন খুবই নিখুঁত ও স্পষ্টভাবে আপনি তুলে ধরেন।দাদা মনে হচ্ছে হরিণটি মাঝারি সাইজের আর বাঘটির মুখ দেখে মনে হচ্ছে অতটা শিকারি নয় হি হি☺️☺️,চমৎকার অঙ্কন।অনেক ধন্যবাদ আপনাকে, ভালো থাকবেন।

 last month 

দাদা, আপনার প্রতিটি আর্ট এক একটি আকর্ষন। আজকের চিত্রটি আমার কাছে অনেক অনেক ভালো লেগেছে। বিশেষ করে বাঘের শিকারের দৃশ্য দেখেই আমার সেই ছোট বেলার কথা মনে পড়ে গেলো। আগে আমার ডিসকভারী চ্যানেলে এই ভিডিওগুলো না দেখলে ভালো লাগতো না। আপনি চিত্রের মাধ্যমে খুব সুন্দর ভাবে এই শিকারের দৃশ্যটি ফুটিয়ে তুলেছেন দাদা। তবে এই কথাটা সত্য, বাঘের হাত থেকে অনেক সময় হরিণ বেঁচে যায় শুধু মাত্র তার গতি ও বুদ্ধির জন্য।

দাদা, আমি মনে করি সবার ভালো লেগেছে আপনার চিত্রাঙ্কন। আমার কাছে অনেক ভালো লেগেছে। বিশেষ করে কালার করার পর চিত্রটি অনেক সুন্দর ভাবে ফুটে উঠেছে। দাদা, আপনার ভিন্নধর্মী চিত্রাঙ্কন আমাদের উপহার দেওয়ার জন্য আপনকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

 last month 

দাদা আজকে আপনার চিত্র অংকনটি আমার খুবই ভালো লেগেছে। আপনি খুবই সুন্দর ভাবে বাঘ এবং হরিণের দৃশ্য ফুটিয়ে তুলেছেন। আসোলে বাঘ হিংস্র প্রাণী এবং সে বনের হরিণসহ অন্যান্য প্রাণী শিকার করে, হরিণও অনেক চালাক কিন্তু চিতাবাঘের কাছে মাঝেমধ্যে টিকে থাকতে পারে না। তবে ডিসকভারি চ্যানেলে আমিও দেখি এই বাঘ হরিণকে শিকার করছে,এগুলো দেখে আমার ভালো লাগে। তবে যখন বাঘ শিকার করতে দৌড়ে হরিণকে ধরতে পারে না। তখন আমার খুবই ভালো লাগে।আজকে আপনার চিত্রটি দেখে আমার খুবই ভালো লেগেছে, আপনি সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন।

 last month 

আরে বাহ্ বাহ্ চমৎকার একটা ছবি আর সুন্দর থিম। আশে পাশের প্রকৃতির রং গুলো খুব সুন্দর করেছেন। ছবিটা দেখছি আর ভাবছি, এই বাঘ টা যদি আমি হতে পারতাম, তবে কিছু নোংরা মানুষের ঘাড় মটকে আসতাম। সমাজ টা মুক্তি পেত এদের থেকে।

 last month 

তুমি বাঘ হলে নোংরা লোকের ঘাড় মটকানোর আগে কিন্তু চিড়িয়াখানায় চালান হয়ে যেতে। হা হা।

 last month 

ঠিকই বলেছেন দাদা হরিণ খুব চালাক তবে হিংস্র বাঘের হাত থেকে মনে হয় বাঁচার কোনো সম্ভাবনাই নাই ।ডিসকভারি চ্যানেল আমি আগে খুব দেখতাম আমার কাছে ভালো লাগে ইদানিং খুব একটা দেখা হয়না। তবে আপনি আর্টটা কিন্তু একেবারে দারুণ এঁকেছে।ন আপনার এই আর্টগুলো খুব ভালো হয় সবার থেকে আনকমন আনকমন আর্টগুলো আপনি করেন। সত্যি অনেক ভালো লাগে আর আর্টটা এতো নিখুঁত করে করেন একেবারে রিয়েল মনে হয়। ইস মনে হচ্ছে যে বাঘটি আরেকটু হলেই হরিণকে ধরে ফেলবে।

 last month 

ডিসকভারি চ্যানেলগুলোতে এগুলো দেখতে ভালোই লাগে। আমিও মাঝেমধ্যে সময় পেলে দেখি। বাঘ হরিণকে ধরার জন্য যেভাবে পিছন পিছন ছুটে আপনার আর্টটি একদম সেরকমই হয়েছে। এখানে হরিণটিকে দেখে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে যে হরিণটি তার জীবন বাঁচানোর জন্য শরীরে যত শক্তি আছে তা দিয়ে দৌড়াচ্ছে। আর বাঘটিও কোন ভাবে হার মানবে না । তাকে হরিণকে ধরতেই হবে । আপনার আর্টের মাধ্যমে পুরো বিষয়টি খুব চমৎকারভাবে ফুটে উঠেছে। দাদা প্রতিটি বিষয় আপনি খুব নিখুঁতভাবে অংকন করেছেন। আকাশ, পাখি , গাছ, পাথর সব মিলিয়ে আরটি অনেক সুন্দর লাগছে।

 last month 

দাদা চিত্রাংকন টি সুন্দর হয়েছে তবে বাঘের মুখখানি আরেকটু গম্ভীর এবং আক্রশে ভরা হলে ভাল হতো। সাধারনত বানর গাছের কচি পাতা নিচে ফেলে সেগুলো খেতে হরিন আসে আর সেই সুযোগ টি নেয় বাঘ। তবে বানর ও কম চালক নয় মুখ দিয়ে শব্দ করে হরিন কে জানিয়ে দেয়। ফলে বাঘ আসার আগেই হরিন দৌড় । আর বানর বসে বসে মজা দেখে। যাই হোক আজকের ছবিতে যদিও বানর ছিল না। তবে এমন ঘটনা ঘটে ওদের মধ্যে। চিত্রটির অন্যান্য দিক খুবি সুন্দর ফুটিয়ে তুলেছেন। আপনাকে ধন্যবাদ । শুভেচ্ছা নেবেন।

 last month 
দাদা আপনি আজকে খুব সুন্দর একটা চিত্র অঙ্কন করেছেন শিকার রত অবস্থায় থাকা একটি বাঘ এবং শিকার হতে যাওয়া একটি হরিণের। এছাড়াও যে পরিবেশ টা এঁকেছেন তাও বেশ দারুণ লাগছে৷
ডিসকভারি চ্যানেল আমারও দেখা হতো এক সময় প্রচুর৷ ন্যাশনাল জিওগ্রাফিয়াতেও বেশ কয়েকটা ডেডিকেটেড প্রোগ্রাম ছিলো যারা প্রতিনিয়ত এইসব ভিডিও চিত্র ধারণ করে তা প্রচার করতো।
হরিণ চালাক প্রাণী আমরা মোটামুটি সবাই যেমন জানি ঠিক এটাও জানি যে চিতা বাঘও বেশ ক্ষিপ্ত৷ দুজনেরই গতি দারুণ৷ তো এক্ষেত্রে হরিণের বেচে যাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম৷ সে চিত্র আপনি খুব নিখুঁত ভাবে উপস্থাপন করেছেন৷
ধন্যবাদ দাদা আপনাকে৷
 last month 

আর্টটি খুব ই সুন্দর হয়েছে।তবে আঁকাটা যতোটা বেশি সুন্দর লাগছে।বাস্তবে এ ঘটনা ততটাই ভয়ংকর।

 last month 

যাইহোক এখানে ক্ষুধার্থ বাঘ একটা হরিণকে শিকারের জন্য তাড়া করেছে আর হরিণটি তার হাতের থেকে বাঁচার জন্য লাফ দিয়ে দিয়ে দ্রুত বেগে ছুটছে, বিষয়টা এমনভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।

দাদা আপনার অঙ্কন চিত্রগুলো যতই দেখি ততই মুগ্ধ হয়ে যাই। মনে হয় যেন বাস্তবিক চিত্র আপনার অঙ্কনের মাধ্যমে ফুটে উঠেছে। আমরা অনেক সময় ডিসকভারি চ্যানেলে এই দৃশ্য গুলো দেখি। হিংস্র প্রাণী তার শিকার ধরার জন্য আরো বেশি হিংস্র হয়ে ওঠে। ক্ষুধার্ত এই বাঘ হরিণ শিকারের জন্য চেষ্টা করছে। আর হরিণটি নিজের প্রাণ বাঁচানোর জন্য চেষ্টা করছে। এই দৃশ্যগুলো দেখলে আমার কাছে খুবই খারাপ লাগে। আসলে এই ভয়ানক দৃশ্য আপনি আপনার অঙ্কনের মাধ্যমে এত সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করেছেন দেখে মুগ্ধ হয়েছি। আপনার আর্ট গুলো খুবই নিখুঁত হয়। আপনি একজন সেরা আর্টিস্ট এতে কোন সন্দেহ নেই। দারুন এই চিত্র অঙ্কন করে সকলের মাঝে উপস্থাপন করেছেন এবং বাস্তবের প্রতিচ্ছবি ফুটিয়ে তুলেছেন এজন্য আপনাকে জানাচ্ছি ধন্যবাদ। শুভকামনা ও ভালোবাসা রইলো দাদা।♥️♥️♥️

 last month 

দাদা আপনার ছবি আঁকার কথা কি আর বলব। তবে আমার মনে হয় আপনি রং আর তুলি ব্যবহার করলে আরো ভালো ছবি আঁকতে পারতেন। কারণ আপনার মধ্যে ছবি আঁকার সহজ একটা প্রবণতা আছে। শুভকামনা রইল আপনার জন্য

 last month 

দাদা আপনার প্রতিটি আর্টওয়ার্ক আমার কাছে ভীষণ ভালো লাগে। এমনকি প্রত্যেকটা আর্টওয়ার্কের মধ্যে শিক্ষনীয় কিছু বিষয় থাকে। আজকে তো দেখছি একটা বাঘ একদম হরিণকে তাড়া করছে। আসলে দাদা একটা কথা ঠিক বলেছেন হরিণ অনেকটা চালাক হয়ে থাকে। এজন্য মাঝে মাঝে বাঘ ও বোকা হয়ে যায়। কিন্তু আবার চিতা বাঘ অনেক হিংস্র প্রাণী হয়ে থাকে। আজকের বাঘ এবং হরিণ দুটোই অনেক সুন্দর এঁকেছেন। তার সাথে গাছটা আমার কাছে বেশি ভালো লেগেছে। গাছের নিচের অংশের কালার কম্বিনেশনটা অনেক অসাধারণ হয়েছে। এত সুন্দর একটা চিত্রাংকন আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য অনেক ধন্যবাদ দাদা।

 last month 

দাদা নিঃসন্দেহে চিত্র অঙ্কনটি অসাধারণ সুন্দর হয়েছে। কিন্তু হরিণের মাথায় খাড়া শিং তো দেখছি না।

 last month 

ষষ্ঠ ধাপে গাছের পাতাগুলো কালার করার সাথে সাথে আপনার দৃশ্যের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে এবং হরিণকে তাড়া করা অবস্থায় বাঘের দৃশ্যটা আরো মনোমুগ্ধকর হয়ে আমাদের মাঝে ফুটে উঠেছে।

 last month 

চমৎকার একটি অংকন আপনি আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন দাদা আপনার অংকন গুলো আমার কাছে এত বেশি ভালো লাগে যে বলে বোঝাতে পারবো না। একটি বাঘ একটি হরিণকে স্বীকার করছে এই দৃশ্যটি আমার কাছে অনেক বেশিই ভালো লেগেছে। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আমাদের সকলের মাঝে ধাপে ধাপে শেয়ার করার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

 last month 

ওরে বাঘ এবার একটু থাম। হরিণকে আর তাড়া করিস নে। পুরো বন জুড়ে কি শুধু তোর রাজত্ব হরিণরাও তো বাঁচতে ইচ্ছে করে নাকি। আরে আমি এসব কি বলছি এটা তো একটা ছবি আর ছবিটা যদি এত সুন্দর হয় তাহলে তো বাস্তব চিত্রের কথাই মনে পড়ে যাবে। দাদা আসলেই নিখুঁত হয়েছে যা দেখে আমি ভেবেছি আমি কোন টেলিভিশনে দিকে তাকিয়ে আছি। মনে হচ্ছে বাঘটি এক্ষুনি থাবা মেরে হরিণকে গিলে ফেলবে আর হরিণ খুবই কম্পিত হৃদয়ে দৌড়ানোর চেষ্টা করছে। সম্পূর্ণ ছবিটি আপনি আপনার দক্ষতার সাথে তুলে ধরতে পেরেছেন জাস্ট অসাধারণ।

 last month 

দাদা আপনার আর্টটি খুবই চমৎকার হয়েছে ।দেখে মনে হচ্ছে যেন সত্যি সত্যি একটি ক্ষুধার্ত বাঘ একটি হরিণকে শিকারের জন্য তাড়া করেছে ।আর হরিণটি দ্রুত পালিয়ে যাচ্ছে ।খুবই চমৎকারভাবে অংকনের মাধ্যমে পুরো বিষয়টাকে ফুটিয়ে তুলেছেন । মনে হচ্ছে যেন একদম বাস্তব চিত্র ।আর আপনার মত আমারও ডিসকভারি চ্যানেলে এইসব শিকারের বিষয় গুলো দেখতে বেশ ভালো লাগে। হরিণটি খুবই চমৎকার হয়েছে। এছাড়া ঘাস এবং গাছের আর্ট টিও আমার কাছে বেশ ভালো লেগেছে। সব মিলিয়ে আপনি দারুন একটি আর্ট করেছেন ।ধন্যবাদ আপনাকে আমাদের সঙ্গে এত সুন্দর একটি আর্ট শেয়ার করার জন্য।

 last month 

আমার কাছেও ডিসকভারি চ্যালেনে পশু পাখি দেখতে ভালোই লাগে।হরিন নিজের প্রান বাঁচানোর জন্য প্রাণপনে দৌড়েছে।বেশ সুন্দর হয়েছে ভাইয়া অঙ্কনটা।কালারটাও বেশ সুন্দর করেছেন।ধাপগুলো বেশ সুন্দর করে দেখিয়েছেন। ভালো ছিলো।ধন্যবাদ

 last month 
দাদা আপনার একটি বাঘ একটি হরিণকে শিকার করছে তার দৃশ্য অঙ্কন ।। অরিজিনাল আর্টওয়ার্কটি সত্যিই অসাধারণ ভাবে তুলে ধরেছেন আপনি যা কল্পনাকেও হার মানায়।আপনার এই চিত্রাঙ্কন দেখে মনে হচ্ছে দক্ষ হাতের নিপুন কারুকাজ।মনের মাধুরী দিয়ে ছবিটি চিত্রাংকন করেছেন।আমার ভীষণ ভালো লেগেছে প্রিয় দাদা।আসলে এত চমৎকার চিত্রাংকন প্রশংসার দাবিদার।অনেক অনেক শুভকামনা আপনার জন্য♥

Coin Marketplace

STEEM 0.26
TRX 0.07
JST 0.032
BTC 22994.25
ETH 1687.91
USDT 1.00
SBD 3.21