হ্যাপি নিউ ইয়ার ২০২৩ (Happy New Year 2023)steemCreated with Sketch.

in আমার বাংলা ব্লগlast year


Copyright Free Image Source : PixaBay


🅷🅰🅿🅿🆈 🅽🅴🆆 🆈🅴🅰🆁

সুপ্রভাত,

আজ ২০২৩ সালের জানুয়ারি মাসের ১ তারিখ । নতুন বছরের প্রথম দিন আজ । বিশাল আয়োজন করে সারা পৃথিবীব্যাপী নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে নিউ ইয়ার উদযাপন করা হলো । লক্ষ কোটি টাকার বাজি পুড়িয়ে, লাখ লাখ গ্যালন মদ গিলে আর লক্ষ লক্ষ নিরীহ পশু পাখির শ্রাদ্ধ করে নতুন বছর উদযাপিত হলো । শব্দ দূষণ, বায়ু দূষণ আর রাত ভোর পার্টি করে শুরুতেই নতুন বছরের পিন্ডি চটকানো হলো ।

সভ্য মানুষের নতুন বছরকে স্বাগত জানানো উচিত ছিল সভ্য ভাবে । কিন্তু, প্রত্যেক বছরই সেটা একদমই অধরা থেকে যায় । উৎসব উদযাপন আর উৎসবের নামে বেলেল্লাপনা এক নয় । একটা শান্ত সমাহিত রূপ হওয়া উচিত ছিল এই হ্যাপি নিউ ইয়ার উদযাপনের ।

আর একটি বছর ফুরিয়ে নতুন একটি বছর জীবনে আসা মানেই আমাদের সবারই জীবন থেকে একটি বছর ঝরে গেলো । বড় অমূল্য সেই বছরটি । এক একটি বছর শেষ হবে নতুন বছর আসবে আর আমাদের সবাই একটু একটু করে মৃত্যুর সন্নিকটবর্তী হবো । এটাই চিরন্তন । এ বিশ্বসংসারে সবাই আমরা সময়ের অধীন । এই পৃথিবী, সৌরমণ্ডল এমনকি এই গ্যালাক্সি, এই মহাবিশ্ব সব কিছুই সময়ের অধীন । শুধু সময়ই কারো অধীন নয় ।

তাই একটি নতুন বছর জীবনে আসা মানেই একটা ওয়ার্নিং যে তোমার সময় কিন্তু ফুরিয়ে আসছে । তুমি কি করেছো জীবনে ? এ ক্ষুদ্র মনুষ্য জীবন বড়ই দ্রুত ফুরিয়ে যায় । চলে আমাদের যেতে হবেই একদিন । কিন্তু, চলে যাওয়ার আগে একটা চিহ্ন রেখে তো যেতে হবে । মানুষ ফুরিয়ে যায়, ফুরোয় না তার কর্ম, তা জীবনাদর্শ । মৃত্যর আগে, ফুরিয়ে যাওয়ার আগে তুমি এই বিশ্বসংসারে একটা চিহ্ন রেখে যাও যাতে তোমার উত্তরসূরী তোমাকে মনে রাখে ।

মনে রাখবে ভালো মানুষের ভালো কর্ম তাঁর মৃত্যুর পরেও তাঁকে অমর করে রাখে । তুমি অতি ক্ষুদ্র একজন মানুষ, কিন্তু তোমার কর্ম কিন্তু ক্ষুদ্র নয় । ভালো কাজ করে যাও । মৃত্যুর আগ অব্দি শুধু ভালো কাজই করে যাও । কে কি বললো, কি কি ভাবলো এসব কিচ্ছু দেখার দরকার নেই । তুমি যে কাজটা ভালো বলে মনে করো সেই কাজটি একনিষ্ঠ ভাবে করে যাও । তাহলে মৃত্যুর পরেও একটা চিহ্ন রেখে যেতে পারবে ।

মানুষ ষড়রিপুর বশ । কাম, ক্রোধ, লোভ, মোহ, মদ এবং মাৎসর্য । এগুলোর ঊর্ধে কেউই নয় । কিন্তু, আমরা কঠোর অনুশীলন ও ক্রমাগত ভালো কাজ এবং স্ব স্ব ধর্ম চর্চার মাধ্যমে এই ষড়রিপু কিছুটা হলেও চেপে রাখতে পারি । সেটাই মনুষ্যজীবনের সার্থকতা ।

ভালো কর্মের অসংখ্য দিক রয়েছে । যে কেউ যে কোনো একটা দিক বেছে নিতে পারেন । এ দুনিয়া হিংসা, লোভ, ঈর্ষা, অসততা আর মিথ্যায় পর্যবসিত । কিন্তু, কেউ কেউ এদের মধ্যে এসবের ঊর্ধে । শুধুমাত্র তাঁদের জন্যই আজ পৃথিবী চলছে । কিছু ভালো মানুষ ডেফিনিটলি আছে । অন্যরা তাঁদেরকে বোকা বলে থাকেন । চালাকের দুনিয়ায় এই বোকারা আছে বলেই পৃথিবীটা নরক হয়নি এখনো ।

পৃথিবীতে কোনো দিনই ১০০% সবাই ভালো হবে না । কিন্তু, আমরা যদি সবাই ভালো কিছু গুণের অধিকারী হতে পারি তবে আলো আর আঁধারের সহবস্থান সম্ভবপর হবে । দোষ গুণ সব কিছু মিলিয়েই এক জন মানুষ । কেউই ১০০% ভালো বা, ১০০% খারাপ হতে পারে না । শত খারাপের মধ্যে যেমন কিছু ভালো গুণ তার থাকবেই ঠিক তেমনই শত ভালোর মাঝে কিছু খারাপ গুণও থাকবে । এটাই স্বাভাবিক ।

এই নিকষ কালো আঁধারের মাঝে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অগ্নি স্ফুলিঙ্গ গুলো একীভূত করে একটি সত্য, জ্ঞান এবং প্রজ্ঞার মশাল প্রজ্জ্বলিত করতে হবে । তবেই আমরা মানুষ হতে পারবো, তবেই আমাদের মনুষ্য জীবন সার্থক হবে ।

পরোপকার একটি মহৎ গুণ । ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগর খুবই পরোপকারী একজন মানুষ ছিলেন । সারা জীবনে অসংখ্য মানুষের উপকার করে গিয়েছেন নিঃস্বার্থ ভাবে । আর এ জন্য তাঁর অনেক শত্রুও তৈরী হয়েছিল । তা জেনেও তিনি পরোপকার করা ছাড়েননি । একটা সময় যাঁদেরকে তিনি নিঃস্বার্থ ভাবে উপকার করে জান-মান রক্ষা করেছিলেন, যাঁদেরকে দয়ার ফলে নিশ্চিত মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে এনেছিলেন একটা সময় তারাই বিদ্যাসাগরের প্রাণ নাশ করার প্রচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছিলেন । কারণ, বিদ্যাসাগর বিধবা বিবাহ আইন প্রনয়ণের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছিলেন । তাঁর একক অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলেই ইংরেজ সরকার হিন্দু বিধবা বিবাহ আইন পাশ করেন ।

বিদ্যাসাগর এমন একজন মানুষ ছিলেন যে তিনি তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের সবাইকেই ক্ষমা করে দিয়েছিলেন । তাঁর বক্তব্য ছিল পরোপকার একটা মহৎ গুণ, কারো উপকার করলে সেটা সম্পূর্ণ নিঃস্বার্থভাবে করা উচিত এবং ভবিষ্যতে তার কাছ থেকে বিপদের আশংকা আছে জেনেও পরোপকার করা উচিত ।

আর আমার বক্তব্যও ঠিক তাই । একজন পরোপকারী মানুষ নিশ্চিত বাঁশ খাবে জেনেও পরোপকারে পিছপা হয় না । এবং ভালোমতো বাঁশ খাওয়ার পরে প্রতিজ্ঞা করে - আর নয় , আর কোনোদিন কোনো শালার উপকার করবে না এ জীবন থাকতে । অথচ মাস খানেক যেতে না যেতেই আবার বাঁশ খাওয়ার জন্য মন ছটফট করে ওঠে । সো, আবার পরোপকার করতে মাঠে নেমে পড়া। এ এমন এক নেশা যার থেকে আমিও কোনোদিনও বেরিয়ে আসতে পারিনি ।

আমাদের কমিউনিটির একজন ভূতপূর্ব ব্লগার শুভ দত্ত-র ঘটনাটি সবাই জানেন । হয়তো আমি তার কিছু উপকার করেছিলাম । ভুলে গিয়েছে সে কথা সে । আমারও মনে নেই হয়তো । কারণ আমি কারো উপকার করলে মনে রাখি না । তো, সে পাওয়ার ডাউন দিতে চেয়েছিলো, আমিও বলেছিলাম টিকেটে অনুমতি চাইতে । কারণ, পাওয়ার ডাউন এর রুলসটা অ্যাডমিনদের করা, আমার করা নয় । তাই ওনারাই এটা হ্যান্ডেল করে থাকেন ।

এর মধ্যে সে কয়েকজন অ্যাডমিনকে ডিএম করে পাওয়ার ডাউনের ব্যাপারে বলেছিলো । এর মধ্যে আমাদের মডারেটর রূপক ভাই তাকে বলেন যে পাওয়ার ডাউন দিলে আমি নাকি তাকে সাপোর্ট আর দেব না । অথচ এ কথা আমি বলা তো দূরের কথা , জানতামই না । বহুদিন পরে রূপকের মুখ থেকেই শুনেছি এ কথা। যাই হোক এ কথা জানার পরে শুভ দত্ত টিকিটে কিছুটা উদ্ধত আচরণ করে পাওয়ার ডাউনের ব্যাপারে । এটাও আমি বেশ পরে জেনেছি । maybe সপ্তাহ খানেক পরে দীপ্র জানিয়েছিল আমাকে । তখন আমি বলেছিলাম তাহলে শুভ দত্তকে সাপোর্ট না দিতে যতদিন না উনি ক্ষমা চান । এবং আমিও শুভকে ডিএম করে কন্ফার্ম করে জানতে পারি উনি ইচ্ছে করেই এমনটা করেছেন ।

যাই হোক, এরপরে উনি ওই পোস্টটি করেন, যেটি আপনার সবাই দেখেছিলেন । এতটা নোংরা, এতটা কদর্য ভাষা আমি জীবনেও দেখিনি । এর ফলে আমি ক্রোধ দমন না করতে পেরে কিছু কথা হ্যাংআউট এ বলেছিলাম । তবে আমার কথার মধ্যে কোনো গালি গালাজ বা খারাপ কোনো ভাষা ছিল না । ছিল শুধুই রাগ আর একটা চাপা অভিমান । উপকারের প্রত্যুপকার বেশ ভালোই পেলাম তো তাই ।

যাই হোক নতুন বছরের শুরুতে আমি শুভ দত্তকে সর্বান্তঃকরণে ক্ষমা করে দিলাম । সে যা করেছে সবই চিরতরে মুছে দিলাম মন থেকে । তার প্রতি আমার আর বিন্দুমাত্রও কোনো রাগ রইলো না মনে । সে যদি পোস্টটা মুছে দেয় তবে সেটা তার জন্যও ভালো হবে। কারণ সেই পোস্টে শুধু আমি নই, আমাদের বেশ কিছু অ্যাডমিন এবং নুসুরা সম্পর্কে অতি জঘন্য ভাষা প্রয়োগ করা হয়েছে । মেয়েদের এত অসম্মান করতে নেই । কোনো অবস্থাতেই নয় ।

আর বলবো পরোপকারের নেশা গড়ে তুলুন সবাই নতুন বছরের প্রথম সূর্য্যকিরণ গায়ে মেখে । পৃথিবীটা হিংসা, দ্বেষ, ঘৃণা আর লোভের বিষ বাষ্পে ছেয়ে গিয়েছে । আসুন না সবাই নিজেদের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভালো কাজের সমন্বয়ে হাতে হাত রেখে এই বিষ বাষ্পকে চিরতরে দূর করি । তাহলেই উন্নত সভ্য এ মনুষ্য বসতি আবার সূর্য্যের প্রখর আলোয় চির সমুজ্জল হবে।

সকলের তরে সকলে আমরা,
প্রত্যেকে মোরা পরের তরে

★ 🎀 𝐻𝒜𝒫𝒫𝒴 𝒩𝐸𝒲 𝒴𝐸𝒜𝑅 🎀 ★

░2░0░2░3░


Sort:  
 last year 

নতুন বছরের অনেক অনেক শুভেচ্ছা দাদা,পুরান বছরের যত সব দুঃখ গ্লানি সব মুছে ফেলে নতুন বছরে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে নিজেকে প্রস্তুত করা এটাই নতুন বছরের শিক্ষা । দাদা আপনি একজন মানবিক লোক আর নতুন বছরে শুরুতেই এত বড় মানবিকতাটা দেখে অনেক বেশি ভালো লাগলো।শুভ দত্ত যে কর্মকাণ্ড করেছে আমরা হলে সহজে ক্ষমা করে দিতে পারতাম না, যেটি আপনি মানবতার দিক থেকে খুব সহজেই ক্ষমা করে দিয়েছেন। এটি নিতান্তই মহৎ গুণ ছাড়া আর কিছু নয়। অনেক অনেক দোয়া ও ভালোবাসা রইলো দাদা আপনিও আপনার ফ্যামিলির জন্য। আশা করব এভাবেই আমাদের সবার মাঝে ছায়া হয়ে থাকবেন। ❤❤❤❤

 last year 

আর আমার বক্তব্যও ঠিক তাই । একজন পরোপকারী মানুষ নিশ্চিত বাঁশ খাবে জেনেও পরোপকারে পিছপা হয় না । এবং ভালোমতো বাঁশ খাওয়ার পরে প্রতিজ্ঞা করে - আর নয় , আর কোনোদিন কোনো শালার উপকার করবে না এ জীবন থাকতে । অথচ মাস খানেক যেতে না যেতেই আবার বাঁশ খাওয়ার জন্য মন ছটফট করে ওঠে । সো, আবার পরোপকার করতে মাঠে নেমে পড়া। এ এমন এক নেশা যার থেকে আমিও কোনোদিনও বেরিয়ে আসতে পারিনি ।

ঠিক বলেছেন দাদা। আর আপনার মত এমন মানুষ আর একজন পাব কিনা সিন্দেহ আছে।উপকার করা যার স্বভাব সে যে কোনো বাঁশ খেলেও উপকার করেই যাবে। আর আপনি যে বললেন আপনি শুভ দত্তকে ক্ষমা করে দিয়েছেন তা জেনে সত্যিই আপনার মহত্ব অনেকেই বুঝতে পারবে। আপনাকেও নতুন বছরের অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল দাদা। সব সময় ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন এই কামনা করি।

 last year 

নতুন বছরের শুভেচ্ছা বার্তায় পৃথিবীতে যে অসভ্যতার রূপ নেয় বিভিন্ন খারাপ কর্মকাণ্ড দ্বারা নতুন বছর বরণ করে সত্যিই এটা প্রাপ্য নয়। সবারই উচিত অতীতের সকল দুঃখ দুর্দশা ভুলে গিয়ে নতুন বছরের পথ চলা শুভ হোক সেই ধরনের কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হওয়া। দাদা আপনার লেখা পোস্ট খুব মনোযোগ সহকারে পড়লাম যেটা নিজেকেই অনেকটা পরিবর্তন করে তুলেছে সত্যিই আপনি অনেক মহৎ।

Hi @rme,
my name is @ilnegro and I voted your post using steem-fanbase.com.

Come and visit Italy Community

 last year 

খুব সুন্দর কিছু কথা বলেছেন দাদা, এগুলো হয়তো আমাদের সকলের জানা কিন্তু প্রশ্ন থেকে যায় মানা নিয়ে, তবুও কিছুটা নতুন করে নতুন বছরের প্রথম দিনে অনুপ্রাণীত হলাম। আর আপনার সাথে সুরে সূর মিলিয়ে বললাম-

সকলের তরে সকলে আমরা,
প্রত্যেকে মোরা পরের তরে

হ্যাপি নিউ ইয়ার-২০২৩।

 last year 

আপনাকে জানাই নতুন বছরের অনেক অনেক শুভেচ্ছা দাদা। কিন্তু ঠিক বলেছেন দাদা সভ্য মানুষদের উচিত সভ্যতা বজায় রেখে নতুন বছর পালন করা। কিন্তু নতুন বছরকে সামনে রেখে সবাই অশ্লীলতা করে নতুন বছর পালন করে। এটা আসলে আমার নিজেরও ভালো লাগেনা। আর একজন মানুষের মধ্যে খারাপ এবং ভালো দুটো মিলেই থাকবে এটাই স্বাভাবিক। তবে আপনি যে নতুন বছরকে কেন্দ্র করে শুভ দত্তকে ক্ষমা করে দিয়েছেন এটা আপনার বড় মনের পরিচয়। তবে সে পোস্টটা ডিলিট করবে কি করবে না সেটা সম্পূর্ণ ওর ব্যাপার। আর না করলেও আমাদের কারোই কিছু যায় আসবে না। নতুন বছরে আপনি আপনার পরিবারকে নিয়ে ভালো থাকুন, আনন্দে থাকুন, এটাই কামনা।

Thank you, friend!
I'm @steem.history, who is steem witness.
Thank you for witnessvoting for me.
image.png
please click it!
image.png
(Go to https://steemit.com/~witnesses and type fbslo at the bottom of the page)

The weight is reduced because of the lack of Voting Power. If you vote for me as a witness, you can get my little vote.

 last year 

নতুন বছর হ্যাপি হবে যদি আপনার এই লেখা গুলো সবার অন্তরে গেঁথে থাকে।

https://m.facebook.com/story.php?story_fbid=pfbid0UKc5F63XV6saswf3no5KH1McSsgSE7oF8CNPu7ZW5fcwGDdGnb5axMUdkgTnCP2Kl&id=104699825374169&mibextid=NnVzG8

দেখুন দাদা কি বাজে পর্যায়ে এদের উন্মাদনা। নিষ্পাপ পশু পাখি, শিশু, অসুস্থদের কষ্ট দিয়ে কিসের হ্যাপি নিউ ইয়ার।।।।

এ এমন এক নেশা যার থেকে আমিও কোনোদিনও বেরিয়ে আসতে পারিনি ।

আপনাকে কিসের সাথে তুলনা দেই। এজন্যই আপনাকে অনেক ভালোবাসি দাদা। আপনি আপনার কর্মে বেঁচে থাকবেন সকলের অন্তরে।

হ্যাপি নিউ ইয়ার ২০২৩

 last year 

এটাই হলো আমাদের বিবেক। স্রষ্টার সৃষ্টির সেরা জীব হয়ে ও অন্য প্রাণীগুলোকে কষ্ট দিচ্ছি প্রতিনিয়ত। প্রতিবেশীরা না খেয়ে কিংবা শীতের পোশাক না পেয়ে থরথর করে কাঁপছে আর আমরা এদিকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাওয়াই ভাসিয়ে ফেলছি।

আফসোস

Happy new year everyone. Welcome @rme

 last year 

উপরের কথাগুলো একদম খাঁটি কথা🙂,এসব কাজকর্মে অন্যদের বাঁধা না দিয়ে বা তাদের না বুঝিয়ে মনে হচ্ছে নিজেও অনেক বড় অপরাধ করে ফেলেছি।
কমেন্টে সুমন ভাইয়ের দেয়া লিংকের ভিডিওটা দেখে এতোটা খারাপ লাগলো!
যাইহোক,আপনি আমি একা চেয়ে কিচ্ছু করতে পারবোনা।সবার সম্মিলিত বোধের দরকার।
নতুন বর্ষের শুভেচ্ছা জানাই,ভালো কাটুক সময়।

Coin Marketplace

STEEM 0.28
TRX 0.11
JST 0.031
BTC 68789.22
ETH 3862.34
USDT 1.00
SBD 3.66