নিস্তব্দ এক রাত্রিকালীন দৃশ্য অঙ্কন || ডিজিটাল আর্ট #196

in আমার বাংলা ব্লগlast month

হে লো আমার বাংলা ব্লগ বাসী। কেমন আছেন সবাই। আশা করি ভালো আছেন। আমিও অনেক ভালো আছি। আবার ও হাজির হলাম একটি পোস্ট নিয়ে। আশা করি সবার ভালো লাগবে।



সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি আমার আজকের পোস্ট। কি খবর সবার। আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমিও ভালোর দলে। তবে অফিসে রয়েছি একটু চাপের মধ্যে। আর চাপের মাঝে থাকলেই আমার একটিভিটি আর পোস্ট করা মিস হয়ে যায়। আসলে ঈদের জন্য একটু বেশি চাপ যাচ্ছে। হয়তো ঈদের পর এই চাপ আর থাকবেনা। যাই হোক আজ একটি আর্ট নিয়ে হাজির হয়ে গেলাম। আশা করি ভালো লাগবে।


196.png

আমার তৈরি আর্ট

images (17).jpeg

needed things.png


ডিজিটাল আর্ট করতে বেশি কিছু লাগেনা। আমার যা যা লেগেছে-

  • কম্পিউটার
  • Adobe Photoshop CC 2019
  • ফ্রি কাস্টম ব্রাশ Brusheezy! থেকে। এখান থেকে কপিরাইট ফ্রি কাস্টম ব্রাশ প্রিসেট নামাতে পারবেন)

images (17).jpeg

art details.png

অঙ্কনের ধাপ-১

1.png

প্রথমে আমি ফটোশপ ওপেন করে নিউ ফাইল তৈরি করি যার সাইজ রেশিও ২০০০X১১২৪ পিক্সেল।


অঙ্কনের ধাপ-২

2.png
প্রথমেই আমি নতুন একটি লেয়ার খুলে নেই।


অঙ্কনের ধাপ-৩

3.png
এবার আমি লেসো টুল ব্যবহার করে নিচের মাটির অংশ তৈরি করি। তারপর এটিকে গাঢ় নীল রঙ দিয়ে ভরাট করি।


অঙ্কনের ধাপ-৪

4.png
এবার ব্রাশ টুল দিয়ে একটি ঘর যুক্ত করি। যেটি হবে ভৌতিক এক ঘর।


অঙ্কনের ধাপ-৫

5.png
এবার কাস্টম ব্রাশ টুল দিয়ে কিছু গাছ যুক্ত করি।


অঙ্কনের ধাপ-৬

6.png
এবার পুরো ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড এ গ্র্যাডিয়েন্ট রঙ যুক্ত করি।


অঙ্কনের ধাপ-৭

7.png
এবার সেই ঘর গুলোর জানালাতে রঙ করি। যেনো মনে হয় ভেতরে লাইট জ্বলছে।


অঙ্কনের ধাপ-৮

8.png
এবার কিছু পাম্পকিন যুক্ত করি। একটু ভয়ানক করার জন্য।


অঙ্কনের ধাপ-৯

9.png
এবার এলিপ্টিক্যাল মারকিউ টুল ব্যবহার করে আকাশে বিশাল বড় এক চাঁদ এঁকে দেই।


অঙ্কনের ধাপ-১০

10.png
এবার প্রথমে কালার কারেকশন করি এরপর আমার নাম যুক্ত করে ড্রইং শেষ করি।

images (17).jpeg

final art.png

196.png

আমার করা আর্ট।


তো এই ছিলো আজকের পোস্ট এ। কেমন হলো কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। সবাই সাবধানে থাকবেন ভালো থাকবেন।



░▒▓█►─═ ধন্যবাদ ═─◄█▓▒░

break .png

Purple Yellow Black Neon SciFi YouTube Banner (800 × 260 px) (800 × 250 px).gif

break .png

আমি রাজু আহমেদ। আমি একজন ডিপ্লোমা ইন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার। বি.এস.সি ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ছি সোনারগাঁও ইউনিভার্সিটি থেকে। আমি বাঙ্গালী তাই বাংলা ভাষায় লিখতে ও পড়তে পছন্দ করি। ফোন দিয়ে ছোটখাট ছবি তোলাই আমার সখ। এছাড়াও ঘুরতে অনেক ভালো লাগে।

break .png

Banner.png

break .png

VOTE @bangla.witness as witness


witness_vote.png

OR

SET @rme as your proxy

witness_proxy_vote.png

Sort:  
 last month 

নিস্তব্দ এক রাত্রিকালীন দৃশ্য অঙ্কন এর অনেক সুন্দর ডিজিটাল আর্ট আপনি আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন ভাইয়া। আপনার অংকন করা ডিজিটাল আর্ট গুলো আমার কাছে খুবই ভালো লাগে। বাদুড়ের চিত্রগুলো আপনি অনেক ভাবে অঙ্কন করতে সক্ষম হয়েছেন।

 last month 

সুন্দর খুবই সুন্দর একটি ডিজিটাল চিত্র অংকন দেখতে পেলাম। রাতের দৃশ্য আপনি খুবই সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন। এই চিত্রটি আমার অনেক বেশি ভালো লেগেছে, শেয়ার করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

 last month 

ডিজিটাল আর্ট গুলো আমার কাছে অন্যরকম ভালো লাগে। আজকে আপনি চমৎকার রাত্রি কালের দৃশ্য আর্ট করেছেন। তবে ডিজিটাল আর্ট এর মাধ্যমে আলাদা একটা সৌন্দর্য লুকিয়ে থাকে। আপনার ডিজিটাল আর্ট এর মধ্যে বড় চাঁদ আর্ট করার কারণে দেখতে বেশ ভালই লাগতেছে। চমৎকার আর্ট করে আমাদের মাঝে শেয়ার করেছেন তাই ধন্যবাদ আপনাকে।

 last month 

আপনি সব সময় খুব সুন্দর সুন্দর কিছু আর্ট শেয়ার শেয়ার করে আসছেন। আজকেও খুব সুন্দর একটি আর্ট শেয়ার করেছেন এবং এখানে আপনি সবগুলো ডিজাইন ও রঙের সংমিশ্রণ খুব সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন। অসংখ্য ধন্যবাদ এরকম সুন্দর একটি আর্ট শেয়ার করার জন্য৷

 last month 

ঈদের ছুটি শুরু হয়ে যাবে তার জন্য অফিসে একটু কাজের চাপ বেশি থাকছে। আশা করি কয়েকদিন পরে লম্বা ছুটি কাটাতে পারবেন। যাইহোক ভাইয়া আপনার আজকের ডিজিটাল আর্টটি খুব সুন্দর হয়েছে। একেবারে ভূতের বাড়ির মত লাগছে দেখতে। এরকম একটি ভূতের বাড়িতে নিয়ে আপনাকে ছেড়ে দিলে কেমন হবে তাই ভাবছি। যাইহোক খুব ভালো লেগেছে আর্টটি।

 last month 

এটাকে দেখে তো ভাই হন্টেড হাউজ মনে হচ্ছে। একটা নিস্তব্ধ পরিবেশ চারিদিকে বাদুর উড়ছে একটা বিড়াল একেবারে নিশব্দে হেঁটে আসছে। কী একটা অবস্থা। চমৎকার করেছেন ডিজিটাল আর্ট টা ভাই। ধন্যবাদ আমাদের সাথে শেয়ার করে নেওয়ার জন্য।।

Coin Marketplace

STEEM 0.20
TRX 0.13
JST 0.029
BTC 66599.03
ETH 3421.37
USDT 1.00
SBD 2.63