কিছু মানুষের পাল্লায় পরলে সারাদিন মাটি!

in আমার বাংলা ব্লগ10 days ago
🌼 হ্যালো, আসসালামু আলাইকুম।সবাই কেমন আছেন? আশাকরছি সকলে ভালো আছেন,আমিও আলহামদুলিল্লাহ্ ভালো আছি ।

এক বিড়ম্বনা!

IMG_20221123_192336.jpg

Canva দিয়ে তৈরি

nowrin,.png


হ্যালো হ্যালো হ্যালো,আবার ও চলে আসলাম নতুন একটা লেখা নিয়ে।তবে আজকে পোস্ট করার ইচ্ছে একেবারেই ছিলো না।অর্থাৎ এতো বেশি টায়ার্ড যে ইচ্ছে করছে এখন ই ঘুমিয়ে পরি চুপটি করে শুয়ে।তবে সে উপায় যে নেই আমার!সেই ভোর ৬ টায় বের হয়ে সন্ধ্যে ৬ টায় বাসায় ফিরলাম।এরপর আসলে শরীরে আরো কোনো রকমের শক্তি ই অবশিষ্ট থাকেনা বললেই চলে।কারণ সারাদিন বাইরে থাকাটা সত্যিই খুব কষ্টের।


আসলে সকালে তো মূলত গিয়েছিলাম ভার্সিটি।এরপর খালামণিকে ফোন দিলাম ভার্সিটিতে থেকেই। কারণ আম্মুর জন্যে একটা হিজাব নিতে হতো।তাই বললাম আমি ভার্সিটি থেকেই শপিং কমপ্লেক্স এ যাবো।তো খালামণিও যেনো সেখানে থাকে।সময়টা ঠিক ঠাক বলে দিলাম।এরপর আমিও যথারীতি চলে আসলাম শপিং সেন্টারের সামনে।


আমি ভাবলাম একসাথে কিছু কেনাকাটা করে এরপর দ্রুত বাসায় চলে যাবো।তো প্রথমে খালামণি মতো উনি একটা ব্যাগ কিনবে।তো আমি ভাবলাম হ্যান্ড ব্যাগ কিনতে আর কতোক্ষণ ই লাগবে!তাই আমি বললাম আচ্ছা আগে কিনে নিন।তো সারা মার্কেট ঘুরলো তবে ব্যাগ পছন্দ হলোনা!মার্কেটে সব দোকানে দেখেছে,তাও পছন্দ হলোনা!কি একটা ভয়ংকর অবস্থা ভাবুন একবার।আমার তো পা ব্যথায় শেষ।ওদিকে আমি এসেছিও ক্লাস করে।এসবের ফাঁকে কিন্তু শুধু যে হেটেছি তাও নয়।স্টিম ওয়াচার এর ও কাজ করেছি,স্টিমিটের ও কাজ করেছি।তাহলে ভাবুন আমার অবস্থা!


এরপর ঠিক করা হলো,অন্য শপিং মল এ যাবো।আমিও রাজি হলাম উপায় না পেয়ে।এরপর অন্য শপিং মল এর ও সব দোকান ঘুরা হলো।তবে!তবে তাও ব্যাগ কেনা হলোনা!কেনো?কারণ তাও ব্যাগ পছন্দ হয়নি।কি অদ্ভুৎ ভেবেছেন?আমার তখন মেজাজ আর মন দুটোই খারাপ।সে সাথে মন ও খারাপ।কারণ আমি যে কাজ করতে এসেছে তাও করা হয়নি এখনো অর্থাৎ ওইযে বলেছিলাম আম্মুর জন্যে হিজাব কিনতেই মূলত এসেছিলাম।তো এরপর আমি আর উপায় না পেয়ে বললাম আচ্ছা আম্মুর হিজাবটা অন্তত কিনে নেই।তো ওটা আমি বেশ দ্রুত ই কিনে ফেললাম।কারণ এতোক্ষণ ঘুরার প্রশ্ন ই আসে না কোনো!তাইনা?


এরপর খালামণি বললো আরেকটা শপিং মল এ যাওয়ার জন্যে।আমার তখন পা আর দিচ্ছে না!অর্থাৎ মনে হচ্ছিলো পা ছিড়ে পরেই যাবে জাস্ট ব্যথায়।এতোটা খারাপ লাগছিলো।সে সাথে গলা ও ব্যথা করছিলো প্রচন্ড যেহেতু অনেক সকালে বের হতে হয়।তাই ঠান্ডাও লেগে গিয়েছে সহজেই।


এরপর আমি বললাম,আমি আর পারবোনা।আপনি কিনেন আমি বাসায় চলে যাই।কারণ এতোটা খারাপ লাগছিলো যা ভাষায় প্রকাশ করার মতোন ই না।এরপর তো আবার বাসায় ফিরতে হয়েছে।বাসা ও কম দূর তো আর নয়!বাসায় এসে তাই আর জাস্ট কিছুই করতে ইচ্ছে হচ্ছিলো না।কিন্তু আজ আবার সুপার একটিভ লিস্টের কাজ আছে।তাই কাজ না করেও উপায় নেই।এখন এমন অবস্থা যে নিশ্বাস নিতেও কষ্ট হচ্ছে এতোটা গলা ব্যথা।তাই ভাবলাম একটু কিছুক্ষণ শুই,সে ফাঁকেই এই পোস্টটা লিখে ফেললাম।


এজন্যেই আসলে বললাম যে কিছু মানুষের পাল্লায় পরলে এভাবেই দিনটা যে কোনদিকে চলে যায় তা জাস্ট ভাবতেও পারিনা।

The End📍

আশা করি আপনাদের সকলের ভালো লেগেছে আজকের লেখাটি।মন্তব্যের মাধ্যমে আপনাদের মতামত গুলো জানার ইচ্ছে পোষণ করছি।


ভালোবাসা নিবেন ❤️
ইতি,
@nusuranur


8FF7198D-D313-4FC3-ADE4-05C262C64B9E.png

Sort:  
 10 days ago 
আপু আপনার অনেক ব্যস্ত সময় যাচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরে। গেলেন আপনার আম্মুর হিজাব কেনার জন্য আর আপনার খালামণি উনার ব্যাগ পছন্দ করতেই তিন শপিং মল চেঞ্জ করে নিয়েছে। আপনার পায়ে ব্যথার ব্যাপারে হয়ত উনি বুঝেননি। যাই হোক শেষ পর্যন্ত হিজাব না কিনেই চলে এসেছেন জেনে খারাপ লাগছে। ধন্যবাদ আপু।
 9 days ago 

হ্যা, প্রচুর বিরক্ত লেগেছিলো শেষের দিকে।

Thank you, friend!
I'm @steem.history, who is steem witness.
Thank you for witnessvoting for me.
image.png
please click it!
image.png
(Go to https://steemit.com/~witnesses and type fbslo at the bottom of the page)

The weight is reduced because of the lack of Voting Power. If you vote for me as a witness, you can get my little vote.

 10 days ago 

খালামুনি আজকে চক্কর দেখাইছে ৷ হিহিহি
তিনটা শপিংমল ঘুরেও পছন্দ হয় নি ৷ তাহলে তো ব্যাগ ফেক্টেরিতে যাওয়া উচিত ৷ তাহলে নিজের মতো করে বানিয়ে নিতে পারবে ৷ যা হোক সারাদিন তো সেই ঘুরলেন৷
খুব ভালো করে একটু রেস্ট নিন ভালো লাগবে ৷

 9 days ago 

হ্যা রে ভাই,পা ব্যথা করেছিলো প্রচুর রাতে।হাহাহা,ভালো বুদ্ধি।

 10 days ago 

আপু আপনার কষ্টটা আমি ঠিকই বুঝতে পারছি, এরকম কষ্ট আমারও হয় যখন আমার বড় আপুর সাথে আমি মার্কেট করতে যায় আপু পছন্দ হয় না,আবার পছন্দ হলেও সারা মার্কেট ঘুরে।তাই সত্যিই আজকে আপনার খালামণি আপনাকেও অনেক কষ্ট দিলো। মার্কেট ঘুরে ঘুরে অবস্থা খারাপ।এটা অনেক কষ্টকর কারণ আমি এটা জানি। আর অনেত বিরক্তকর। আমি নিজে তাই মার্কেট বেশি ঘুরি না।কিন্তু আপুর সাথে গেলে এই কষ্টটা উপভোগ করতে হয়।

 9 days ago 

হ্যা,আসলে বসে বসে কেনাকাটা করতে পারলে সারাদিন হলেও সমস্যা হয়না।তবে টানা হাঁটাটা খুব কষ্টের।

 10 days ago 

আপনি তো দেখছি বেশ বড়সড় একটা বিরম্বনায় পড়েছিলেন। আসলে এমন কিছু মানুষ আছে যাদের পছন্দ সহজে হতে চাই না। কি আর করার সবার ব্যক্তিত্ব আর এক নায়। আসলে মানুষের মস্তিষ্ক টা অনেক জটিল। যাক ভালো আমি আজ পর্যন্ত ওরকম ফাঁদে পরিনি। ধন্যবাদ।

 9 days ago 

হ্যা তাই একদম।

 10 days ago 

আপু আপনার কষ্টের কথা শুনে আসলে কাঁদবো না হাসবো সেটাই ভেবে পাচ্ছিলাম না। আমার একটা বন্ধু আছে তাকে নিয়ে যদি কোন রকম মার্কেটে যাওয়া যায় মন মানসিকতার সাথে পাও ব্যথা দুটোই খারাপ হয়ে যায়। এক কথায় বাসায় আসলে মরার মত পড়ে থাকতে হয়। সে থেকে কানে ধরে ছি যে আর তার সাথে কখনো মার্কেটে যাবো না। মার্কেট করতে তার যে সময় লাগে ওই সময়তে আমি পাঁচ বার মার্কেট করে পাঁচ বার বাসায় আপডাউন করতে পারব। অতএব আমি বুঝে গেছি আপনার কি অবস্থা হয়ে গিয়েছিল। তবে আপনার খালামণির সাথে আর কখনো মার্কেটে যাবেন না। নাহলে আপনার অবস্থা আরো খারাপ হতে পারে। এতো ব্যস্ততা এবং অসুস্থতার মাঝেও আমাদের সাথে আপনার মনের অনুভূতিগুলো শেয়ার করার জন্য শুভেচ্ছা রইল।

 9 days ago 

আসলেই তাই,কি যে বিরক্ত লাগে এতোটা হাঁটতে।

 9 days ago 

আপনার খালামনির মত আমার মামী আছে😉।একদিন গিয়েছিলাম তার সাথে কাপড় কিনতে,কি যে ভয়ংকর অবস্থা 😜।কালার পছন্দ হলে ডিজাইন পছন্দ না,ডিজাইন পছন্দ হলে সুতা পছন্দ না সব মিলিয়ে। এরপর থেকে শপিং যাওয়ার সময় আমাকে বললে বিভিন্ন বাহানা দিয়ে চলে আসি😂😂।যাই হোক অবশেষে যে আপনার মায়ের জন্য হিজাব কিনতে পেরেছেন তাই অনেক।আর সকালে বের হওয়ার আগে গরম পানি খেয়ে বের হয়েন।ধন্যবাদ

 9 days ago 

আমিও এরপর থেকে তাই করবো আপু,বুঝতে পারিনি প্রথমবার তাই।

 9 days ago 

আপনার খালামনির মতো এরকম কয়েকজন মানুষ আছে, যারা কিনা সামান্য একটা জিনিসের জন্য পুরা শপিংমল, মার্কেট সবকিছু ঘুরেও পছন্দ করতে পারে না। মাত্র একটা ব্যাগ কিনবে তার জন্য এত সব জায়গায় ঘুরতে হল। তাও যদি কিনতে পারতো তাহলে না হয় হতো। ভালোই হয়েছে আপনি অন্তত হিজাব টা কিনে ফেললেন। আসলে সকালে বেরিয়ে সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরা তারপর আবারও কাজ করা এত কিছু সত্যিই একজন মানুষের পক্ষে করা কঠিন। এরকম কিছু কিছু মানুষের পাল্লায় পড়লে অবস্থা খারাপ হয়ে যায়।

 9 days ago 

হ্যা ওটাই,শেষ এ নাকি নিয়েছে শুনলাম তাও ৩ মার্কেট ঘুরে।

 9 days ago 

আপু একটা কথা কি জানেন,বেশি দেখলে কোনটাই শেষে আর ভাল লাগে না।আপনার খালামনির তেমনটাই হলো।সারাটা দিন একটা জিনিস কেনার জন্য শেষ হয়ে গেল।খুবই দুঃখজনক ব্যাপার হলো। অনেক কষ্টে কাটলো আপনার দিনটি খুব বুঝতে পারলাম।শেয়ার করার জন্য অনেক ধন্যবাদ আপু। তাইতো জানতে পারলাম।

 9 days ago 

একদম,এটা আমার ও মনে হয়।

 9 days ago 

এই হলো অবস্থা 🙂। একটা ব্যাগের জন্য সারা মার্কেট ঘুরালো! আসলে মহিলাদের সাথে মার্কেটে গেলে এমনি! সারা মার্কেট ঘুরে একটা জিনিস পছন্দ করে 🙂। আপনার মায়ের জন্য হিজাব কেনাও হলো না! মজার ব্যাপার হলো খালামনিকে মার্কেট করাতে নিয়ে স্টিমে কাজ করছেন 😁। যাক, এখন ভালো আছেন তো?

 7 days ago 

হাহাহা,নাহ কেনা হয়েছে শেষ এ।হ্যা আলহামদুলিল্লাহ ভালোই আছি।

 7 days ago 

আপনি খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠুন এই কামনা করি। সত্যি কিছু মানুষ আছে এত বেশি চুজি হয় যে তাদের সঙ্গে বেরোনো মানে, কিছু কিনতে যাওয়া মানে পুরো দিনটা নষ্ট। আমার নিজেরও এক বান্ধবী আছে।সে যদি একটা শাড়ি কিনতে যায়, মিনিমাম ৫ ঘন্টা সে একটা শাড়ি কেনার জন্য লাগাবে। আমি একবার গিয়েই শিক্ষা হয়ে গিয়েছিল তার সাথে।তারপর আমাকে যতবারই শপিং করতে বলেছে আমি কখনো যাইনি ওর সাথ। বাহানা দিয়ে দিয়েছি । আর সত্যি বলতে আমার ঘুরে ঘুরে শপিং করতে একদমই ভালো লাগে না।আমি চেষ্টা করি সব সময় অনলাইনে কেনার। আর যদি কখনো দোকানে যাই, তবে মোটামুটি যদি শাড়ি কেনার থাকে পাঁচটা শাড়ি দেখে তার মধ্যে একটা কিনে চলে আসবো। আমার একদম ভালো লাগে না এরকম হাটাহাটি করতে।যাইহোক আপনার খুবই ধকল গেছে সেটার জন্য খারাপ লাগলো।

 7 days ago 

আসলে কাপড়গুলো পরলেই বেশি ভালো লাগে।তবে এভাবে এতোগুলো জিনিষপত্র দেখলে পরে আর কোনোটাই ভালো লাগেনা।

Coin Marketplace

STEEM 0.18
TRX 0.05
JST 0.023
BTC 17052.14
ETH 1291.99
USDT 1.00
SBD 2.08