‘আমার বাংলা ব্লগ’-সাপ্তাহিক হ্যাংআউট রিপোর্ট-৬১ (ABB Weekly Hangout Report-61)

in আমার বাংলা ব্লগ4 months ago

weekly hangout cover 3-1.png

ভূমিকাঃ

“আমার বাংলা ব্লগ”- এখন শুধু একটি কমিউনিটির নাম না বরং সকলের নিকট জনপ্রিয় মাধ্যম, নিজের ভাষায় আবেগ, অনুভূতি ও ভালোবাসা প্রকাশের। দিন দিন যার জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং শীর্ষে উঠে আসছে র্যাংকিং এ। আসলে আমার বাংলা ব্লগ এর যাত্রা শুরু হয় মাতৃভাষায় মনের ভাব প্রকাশে স্টিম ব্লকচেইন এ সুযোগ সৃষ্টি করার লক্ষ্য নিয়ে। পুরো পৃথিবীতে ছড়িয়ে থাকা বাংলা ভাষাভাষী কমিউনিটিকে এক প্লাটফর্মে নিয়ে আসা এবং পারস্পরিক সম্পর্ক সৃষ্টির মাধ্যমে ভাষার প্রতি ভালাবাসা সৃষ্টি করা এবং নিজেদের বন্ধনকে আরো মজবুত করা। আমাদের বিশ্বাস আমরা খুব দ্রুততম সময়ের মাঝে আমাদের লক্ষ্যে পৌছাতে সক্ষম হবো। আমার বাংলা ব্লগ কমিউনিটিতে এখন পর্যন্ত ৩৭৫২ জন সদস্য হয়েছেন এবং বর্তমান এ্যাকটিভ পোষ্টের সংখ্যা ২০২।

আমরা পুরো বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা বাঙালিদের নিজের মাতৃভাষায় আবেগ, অনুভূতি ও জীবনের গল্পগুলোকে ভাগ নেয়ার সুযোগ করে দিতে চাই। কারন তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে ব্লকচেইন সবার মাঝে একটি সেতু বন্ধন তৈরী করতে সক্ষম হয়েছে। আমরা এই সুযোগটির পূর্ণ ব্যবহার এবং বাঙালি কমিউনিটির একটি নির্দিষ্ট অবস্থান নিশ্চিত করার মাধ্যমে পারস্পরিক সম্পর্ক এবং অভিজ্ঞতা বিনিময় সহজসাধ্য করতে চাই।

হ্যাংআউট-৬১

হ্যাংআউটের নির্ধারিত সময়ের পূর্বে চলে আসেন আমার বাংলা ব্লগের এ্যাডমিন @shuvo35 ভাই এবং তারপর যথারীতি কিছু বিষয় নিয়ে সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এরপর কাউন্ট ডাউন মিউজিক এর মাধ্যমে শুরু হয় কাংখিত হ্যাংআউট টান টান উত্তেজনা নিয়ে। সকলের মাইক অফ রাখতে বলেন এবং আজকের হ্যাংআউটটি আরো বেশী কালারফুল হবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

এরপর আমি @hafizullah কথা বলি, সবাইকে আমার বাংলা ব্লগের ৬১তম হ্যাংআউটে স্বাগতম জানাচ্ছি। সময়ের সাথে সাথে আমার বাংলা ব্লগ এগিয়ে যাচ্ছে এবং আমরা বাঙালীরাও দারুণ উৎসাহ পেয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। কারন আমার বাংলা ব্লগ আছে বলেই আজ বাঙালীদের জয়যাত্রা সুখকর হচ্ছে, ব্লকচেইন এর জার্নি আনন্দময় হচ্ছে।

এই সপ্তাহে যে সকল ইউজার আমার অধীনে ছিলো, একজন বাদে বাকি সবাই বেশ এ্যাকটিভ ছিলো। সত্যি বলতে অনেক দিন পর পুরনো সেই স্বাদ পেলাম সুপার এ্যাকটিভ তালিকা তৈরী করার ক্ষেত্রে, কাকে রেখে কাকে রাখবো? এই রকম জটিল একটা পরিস্থিতিতে পড়েছিলাম। তবে সমস্যা হয় নাই যেহেতু দাদা দারুণ একটা ফর্মুলা তৈরী করে দিয়েছেন ইউজারদের র‌্যাংকিং করে বাছাই করার জন্য। তবে দুইজন ইউজারের কথা বলবো, @jibon47 আপনার কমেন্টগুলো কাংখিত মানের হচ্ছে না, তাই রোবটিক কমেন্ট না করে একটু কাংখিত কমেন্ট করার বিষয়ে মনোযোগ দেয়ার অনুরোধ করছি। তারপর বলবো @bidyut01 আপনার কমেন্টগুলো একই রকম হয়ে যাচ্ছে, দেখা যাচ্ছে আপনি ২০০ কমেন্ট করছেন তার মাঝে ইউনিক কমেন্ট থাকছে মাত্র ১০০, সুতরাং এই বিষয়ে আরো একটু সতর্ক হওয়ার অনুরোধ করছি।

Untitled00.png

এরপর কমিউনিটির এ্যাডমিন @winkles ভাই কথা বলেন, শুরুতেই তার অধীনে থাকা ইউজারদের নিয়ে কথা বলেন। এই ক্ষেত্রে @samratsahaকে নিয়ে কিছু কথা বলেন, তার পোষ্ট সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে গত ইউকে মাত্র দুটি পোষ্ট করেছেন, ডিসকর্ড এ্যাকটিভিটি জিরো, এবং কমিউনিটির এনগেজমেন্টও কম, তাই এগুলো বাড়াতে বলেন। এছাড়াও @tarique52কে নিয়ে কথা বলেন, সময় কম দেয়া হচ্ছে তাই তাকে আরো বেশী সময় ব্যয় করার অনুরোধ করেন। আর বাকী ইউজারদের এ্যাকটিভিটি ঠিক ঠাক আছে। এরপর কাংখিত কমেন্ট বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন।

এরপর কথা বলেন কমিউনিটির এ্যাডমিন এবং কোয়ালিটি কন্ট্রোলার @rex-sumon সুমন ভাই, প্রথমেই কমিউনিটির নিয়মাবলীর প্রতি সকলের দৃষ্টি আকর্ষন করেন, কমিউনিটির নিয়মের ব্যাপারে কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে সেগুলো যদি পড়া না হয় তাহলে অজানাই থেকে যাবে এবং কাজ করার ক্ষেত্রে নিজেরাই ক্ষতিগ্রস্থ হবেন। তাছাড়া অনেক প্রশ্নের উত্তরও সেখান হতে সহজে পেয়ে যাবেন। বিগত কয়েকটি হ্যাংআউটে আমরা ধারাবাহিকভাবে একটা বিষয়ে বলে আসছি, সেটা আসলে আর বলতেও ইচ্ছে করছে না, সেটা হলো মার্কডাউনের সঠিক ব্যবহার। পোষ্টকে অর্থবহ করে তোলা এবং লেখাগুলোকে সুসজ্জিত করার ক্ষেত্রে সঠিক মার্কডাউন গুরুত্বপূর্ণ।

আমরা মান নির্ণয়ের ক্ষেত্রে যখন পোষ্টগুলো চেক করি, তখন কিন্তু সঠিক মার্কডাউনের উপস্থিতি না থাকার কারনে মার্ক কম পাচ্ছেন এবং আপনারাই তাতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। তাই এ বিষয়ে গুরুত্বারোপ করার জন্য অনুরোধ করেন। এরপর তার অধীনে থাকা ইউজারদের নিয়ে কথা বলেন, সবাই বেশ ভালো কাজ করছেন। আমরা অনেকটা দ্বিধায় পড়ে গিয়েছিলাম, কাকে রেখে কাকে বাদ দিবো সেটা নিয়ে। আমরা আসলে এই রকমই থাকতে চাই এবং আশা প্রকাশ করেন সবাই এই এ্যাকটিভিটি ধরে রাখবে।

আমার বাংলা ব্লগের এ্যাডমিন @shuvo35 ভাই কথা বলেন এরপর, প্রথমেই তিনি পাওয়ার আপ কনটেষ্ট নিয়ে কথা বলেন। পাওয়ার আপ এর ফলাফল ইতিমধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে, সবাইকে সেটা দেখার অনুরোধ করেন এবং কারো কোন অভিযোগ থাকলে আজকের মধ্যেই জানানোর অনুরোধ করেন। কারন পাওয়ার আপ এর রিওয়ার্ডস একদিন পর প্রেরণ করা হয়। সকলের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন এটা কাজের জায়গা কিন্তু এখানে এসে যদি আনপ্রফেশনাল কাজ করেন, নানা ধরনের এক্সকিউজ উপস্থাপন করেন, এগুলো পরিহার করতে বলেন এবং প্রসঙ্গক্রমে কমিউনিটির প্রতিষ্ঠাতার কথা উল্লেখ করেন, তিন এতো ব্যস্ততার মাঝেও কমিউনিটিতে ধারাবাহিকভাবে সময় দিয়ে যাচ্ছেন। তাই সবাইকে অনুরোধ করেন যদি এখানে কাজ করা বেশী প্রেসার হয়ে যায় তাহলে সেটা ছেড়ে দিন।

Untitled11.png

এখানে থাকতেই হবে এমন কোন কথা নেই, যারা কাজকে ভালোবাসেন আমরা শুধুমাত্র তাদেরকে নিয়েই এগিয়ে যেতে চাই। তথাপিও একান্তই যদি কোন সমস্যা থাকে তাহলে আমরা সে বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলার চেষ্টা করি। দিন শেষে অল্প কিছুটা সময় ব্যয় করা খুব বেশী কষ্টকর না, আজকালতো সবাই সোস্যাল সাইটগুলোতে প্রচুর সময় ব্যয় করেন। কিন্তু কাজের ক্ষেত্রে এতো বেশী অমনোযোগি অপ্রত্যাশিত। এ প্রসঙ্গে কয়েকজন নতুন ভেরিফাইড ইউজারের কথা বলেন যারা ছোট খাটো এক্সিকিউজ নিয়ে কাজ না করার চেষ্টা করেন। তাদেরকে কমিউনিটির নিয়মাবলীর আপডেট পোষ্টটি চেক করতে অনুরোধ করেন। সবাইকে লেগে থাকতে বলেন এবং কাংখিত অবস্থানে এগিয়ে যেতে বলেন।

এরপর কমিউনিটির এ্যাডমিন @moh.arif আরিফ ভাই কথা বলেন, শুরুতেই আমার বাংলা ব্লগের এ্যাকটিভ তালিকা নিয়ে কথা বলেন। পাঁচজন ইউজারের নাম বলেন যাদের এ্যাকটিভ তালিকা হতে বাদ দেন যদিও কয়েকজন তাদের সমস্যার কথা জানিয়ে গিয়েছিলেন। এরপর বলেন একজন ইউজারকে ইনএ্যাকটিভ তালিকা হতে এ্যাকটিভ তালিকায় নিয়ে আসছেন তার নামটিও প্রকাশ করেন। এরপর তার অধীনে থাকা ইউজারদের নিয়ে কথা বলেন, এ সপ্তাহে যারা ছিলেন সবাই বেশ ভালো ছিলেন একজন ইউজার বাদে। তারপর কমিউনিটির আপডেট নিয়মাবলী সম্পর্কিত দাদার পোষ্টটির প্রতি সকলের দৃষ্টি আকর্ষন করেন। সেখানে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় এবার যুক্ত হয়েছে, সেটা হলো এ্যাকটিভ এবং ইনএ্যাকটিভ ইউজারদের কিভাবে বিবেচনা করা হবে।

এখানে ইনএ্যাকটিভ ইউজারদের দুই ভাবে ভাগ করা হবে, টেম্পরারী ইনএ্যাকটিভ এবং পারমানেন্ট ইনএ্যাকটিভ ইউজার। সে বিষয়ে আরিফ ভাই বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করেন এবং সবাইকে সেটা মনে রাখার অনুরোধ করেন। এই সপ্তাহে নতুন নিয়ম অনুযায়ী যারা দুই মাসের অধীক সময় ইনএ্যাকটিভ ছিলেন তাদেরকে নতুন ট্যাগটি দেয়া হয়েছে, তাদের নাম প্রকাশ করেন। পুনরায় এ্যাকটিভ হতে চাইলে তাহলে নতুন নিয়মগুলো ফলো করতে হবে এবং লেভেলগুলো আবার কমপ্লিট করে আসতে হবে। তাই সবাইকে আবারও অনুরোধ করেন, কোন সমস্যা হলে অবশ্যই কমিউনিটিকে জানিয়ে যেতে হবে। ইনএ্যাকটিভ কেউ এ্যাকটিভ তালিকায় আসতে চাইলে বৃহস্পতিবারের আগেই তাকে জানানোর অনুরোধ করেন।

এরপর কথা বলেন কমিউনিটির মডারেটরগন। প্রথমে @alsarzilsiam ভাই কথা বলেন, প্রথমেই লেভেল-৩ নিয়ে কথা বলেন। লেভেল ৩ এ বর্তমানে ১৩ জন মেম্বার রয়েছেন। এর মধ্যে তিনজন রেগুলার পোস্ট করেন, দুইজন ছুটিতে আছেন এবং বাকি ৮ জন ইনএকটিভ মেম্বার। তাদের অনেকেই Discord সার্ভারে এবং কমিউনিটি আমি কমেন্ট করে এসেছি। আপনি কেন ইনএকটিভ রয়েছেন সেই বিষয়ে অবশ্যই আমাদেরকে জানাবেন। লেভেল ৩ এ যারা রয়েছেন তাদের মধ্যে বানান ভুলের সংখ্যাটা ইদানিং একটু বেড়ে গিয়েছে। অনুগ্রহ করে আপনার পোস্ট এবং কমেন্ট করার আগে বানানগুলো অবশ্যই চেক করে নেবেন। অনেকেই দেখা যাচ্ছে লেভেল ৩ অতিক্রম করার পরও পোস্টে মার্কডাউন গুলো সঠিকভাবে ব্যবহার করছেন না। এই বিষয়ে অবশ্যই আপনাকে গুরুত্ব দিতে হবে এবং সঠিক মার্কডাউন ব্যবহার করতে হবে। সর্বশেষে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ার সাইটের লিংক গুলো শেয়ার করেন।

Untitled22.png

এরপর মডারেটর @rupok ভাই কথা বলেন, আমি আজ প্রথমেই লেভেল ওয়ান ইউজারদের নিয়ে কথা বলব, এবার লেবেল ওয়ান পাশ করেছে ১২ জন সদস্য, তাদের ভেতরে ৫ জন সদস্য এখন পর্যন্ত একটিও পোস্ট করেনি। লেভেল ওয়ান পাওয়ার পর থেকে বাকি ৭ জন অন্তত একটি হলেও পোস্ট করেছে। তবে যারা পোস্ট করেছে তাদের ভেতরে তিনজন মেম্বার আছেন যারা বেশ ভালো করেছেন সেই তিনজন হচ্ছেন পায়েল বি ব্লগার শান্ত মনীষা শ্রাবন্তী । একটি বিষয় নিয়ে প্রতি হ্যাংআউটে কথা বলতে হয়। আজও সেই বিষয়ে বলতে হচ্ছে। আমরা আপনাদেরকে সবসময় বলি প্রতিনিয়ত পোস্ট করতে পোস্ট করলে আপনাদের সাপোর্ট পাওয়ার ভালো সম্ভাবনা থাকে। আমরা আপনাদের সাপোর্ট দেয়ার জন্য তৈরি আছি তারপরেও আপনারা কেন পোস্ট করছেন না? সেটা বুঝতে পারিনা। লেভেল ওয়ান ইউজারদের সাপোর্ট পাওয়া সবচাইতে সহজ কারণ তাদের আরসি কম থাকার কারণে তাদেরকে কমেন্টের ব্যাপারে কখনো প্রেসার দেয়া হয় না, আপনারা শুধু ভালো মানের পোস্ট করলেই সাপোর্ট পেতে পারেন।

আপনাদের দুটো কাজ করতে হবে ভেরিফাইড মেম্বারদের পোস্টগুলো পড়বেন এবং ভালো মানের পোস্ট করবেন। রেফারেল সিস্টেম নিয়ে কিছু বলতে চাচ্ছি যদিও শুভ ভাই এর আগে এই বিষয়ে অনেক কথা বলেছেন। সাথে আমি আরো কিছু যোগ করতে চাচ্ছি। রেফারেলের মাধ্যমে আপনারা স্টিম আয় করতে পারবেন। তবে ভেরিফাইড মেম্বারদের উদ্দেশ্যে বলছি আপনারা যাদেরকে রেফার করবেন এটা নিশ্চিত করার চেষ্টা করবেন যেন তারা সমস্ত নিয়ম-কানুন মেনে কমিউনিটিতে কাজ করতে থাকে। এমন মানুষকে রেফার করবেন যাকে আপনারা গাইড করতে পারেন। এমন কাউকে রেফার করবেন না যে আপনার কথা শুনবে না।

কমিউনিটির মডারেট @kingporos ভাই কথা বলেন এরপর, শুরুতেই সবাইকে জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা জানান। তারপর লেভেল ছাড়া ইউজারদের নিয়ে কথা বলেন তারা প্রায় সবাই ইনএ্যাকটিভ হয়ে গেছেন। মাঝে মাঝে আপনাদের বলা হয় এ্যাকটিভি ধরে রাখলে দীর্ঘ মেয়াদে কাজ করাটা সহজ হয়ে যায়। যারা নতুন তারা হয়তো আমাদেরকে নিয়ে ভিন্ন চিন্তা করেন, তারা জানেন না আমরা কিভাবে স্টিমিট জার্নি শুরু করেছি। আমরাও আপনাদের মতো নতুন ইউজার হিসেবে কাজ শুরু করেছিলাম, ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছিলাম এবং নিজেদের লেভেলটা একটা স্থানে ধরে রাখার চেষ্টা করেছিলাম। আমরা সব কিছু ঠিক ঠাক রাখতে পেরেছিলাম বলেই কমিউনিটির প্রতিষ্ঠাতার নজরে আসতে পেরেছিলাম। আমরা যারাই দায়িত্বে রয়েছি সবাই কিন্তু সেভাবেই এখানে এসেছি। কমিউনিটির ভেরিফাইড কিংবা পুরনো ইউজাররা এই বিষয়টি ভালোভাবেই জানেন। তাছাড়া তারা ভালোবেসেই কমিউনিটিতে কাজ করেন, কারন ভালোবাসা না থাকলে কাজের ধারাবাহিকতা ধরে রাখাটা সম্ভব না।

নতুনদের উদ্দেশ্যে বলেন আপনাদের নিজেদের একটা টার্গেট কিংবা গোল থাকতে হবে, কমিউনিটিতে পোষ্ট করার ক্ষেত্রে, কমেন্ট করার ক্ষেত্রে তাহলে পোষ্ট করার সাথে সাথে নিজেদের মাঝে একটা ভালোলাগা কাজ করবে। এটাই হয়তো অনেকেই বুঝতে পারছেন না। আমরা যখন প্রথম কাজ শুরু করেছিলাম, তখন ভোট পাওয়াটা কি রকম কষ্ট ছিলো সেটা হয়তো আপনারা এখন বুঝতে পারবেন না। আমার বাংলা ব্লগ আপনাদের যে সুযোগটা দিয়েছে সেটা পূর্ণ ব্যবহার করার চেষ্টা করুন। নতুনদের আবারও অনুরোধ করেন বিষয়গুলো খেয়াল রাখার এবং নিয়মিত হওয়ার।

Untitled33.png

এরপর মডারেটর @nusuranur আপু কথা বলেন, প্রথমেই আপু বলেন লেভেল ৪ এর পোস্ট কোয়ালিটি বেশ ভালো, যা আমি এর আগের হ্যাংগআউটেও বলেছিলাম এবং এনগেজমেন্ট ও। অনেক মাস পরে বোধহয় আমার কিউরেশন করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে, যা অবশ্যই ভালো লাগার। তবে ডিস্কোর্ড এনগেজমেন্ট অনেক বৃদ্ধি করতে হবে। তবে কিছু সাজেশন আমি দিবো যাতে আপনাদের পোস্ট কোয়ালিটি আরো বৃদ্ধি পায়। প্রথমত আর্ট পোস্টে অবশ্যই এমন একটা ছবি থাকতে হবে যেটাতে আপনার হাত ক্লিয়ার ভাবে দেখা যাচ্ছে। এরপরে,টেন পিক্স ফটোগ্রাফি করা যাবে না। অর্থাৎ একটা ছবির পিছনের কথাগুলো একটু বিস্তারিত লিখতে হবে।বেশি করে ছবি আর একেবারে কম লেখা এমন পোস্ট করা যাবেনা।

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, কিভাবে পোস্টের লোকেশন দিতে হয়, তা পিন পোস্টে পাবেন, আরিফ ভাই এর একটি টিউটোরিয়াল পোস্ট পাবেন। সেটা দেখে সেভাবে লোকেশন দিবেন। এটা আমি আপনাদের প্রতিটি পোস্টেই কমেন্ট করে বারবার বলছি। আর কোনো নির্দিষ্ট পোস্ট দিয়ে তার কোয়ালিটি ঠিক আছে কি নেই এসব জিজ্ঞেস করলে সে পোস্টটি কিউরেশনে যাবেনা। কারণ শুধুমাত্র এ ধরনের ডিএম এর জন্যে আমার অনেক ইম্পরট্যান্ট মেসেজ মিস হয়ে যায়। নিজের পোস্টের কমেন্টের রিপ্লাই অবশ্যই ১/২ দিনের মধ্যে দিবেন। তা না হলে আপনার এনগেজমেন্ট কম ধরা হবে। ছেলে এবং মেয়ে সবাই অবশ্যই নিজেদের লিমিটের মধ্যে থেকে কথা বলবেন। কিছু বিষয় আজকাল চোখে পরছে যা প্রফেশনাল ব্যবহারের আওতায় পরে না। আপনাকে কেও এলাউ না করলে শুধু তার বয়স কম বলে আপনি তাকে তুমি বলে সম্বোধন করবেন না। যদি সে এলাউ করে তাহলে অবশ্যই ভালো। আর আপুদের কোনো সমস্যা হলে,অবশ্যই আমাকে নির্দ্ধিধায় ডিএম করবেন।

এরপর শুভ ভাই আসেন এবং যথারীতি আমার বাংলা ব্লগ কমিউনিটির মডারেটর @tangera আপুর বিষয়ে কথা বলেন, তারপর আপু তার বক্তব্য লিখে প্রকাশ করেন। আশাকরি সকলেই ভালো আছেন।আজকে আমি shy-fox এর ভোটের ব্যাপারে একটি বিষয়ে ক্লিয়ার করে বলতে চাই কারন অনেকেই এখনো এ বিষয়ে পুরো ক্লিয়ার নন। যারা সুপার একটিভ লিস্টে রয়েছেন তারাই শুধু shy-fox এর সাপোর্ট পাবেন, এক্ষেত্রে যারা টায়ার -১, টায়ার -২ অথবা প্রগ্রেসিভ লিস্টে রয়েছেন তারা প্রত্যেকেই সপ্তাহে কমপক্ষে দুটি করে সাপোর্ট পাবেন। এমন নয়, যে টায়ার -১ এ থাকবে সে টায়ার-২ থেকে বেশি সাপোর্ট পাবেন, সকলেই সমান সাপোর্ট পাবেন। যারা সপ্তাহে দুটির কম সাপোর্ট পান তাঁরাই আমার এ লিস্টে যোগ হন। এছাড়া দাদা যাকে খুশি তাকে, যত ইচ্ছে ততো সাপোর্ট করে থাকেন এ বিষয়ে আমাদের কারও কিছু বলার নেই। আশা করি সকলেই এ বিষয়ে ক্লিয়ার হয়েছেন ।এটিই ছিল বলার, ধন্যবাদ সকলকে।

আমার বাংলা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা @rme দাদা কথা বলেন এরপর, রাখি উৎসব নিয়ে নিজের অনুভুতি তুলে ধরেন, বেশ উপভোগ করেছিলেন দাদা সেদিনটি, প্রথমবার ভার্চুয়ালি রাখি পড়েছেন এবং বেশ ভালো গিফট পেয়েছেন সেটা উল্লেখ করেন। তারপর স্বাধীনতা দিবস নিয়ে কথা বলেন, নিজের অনুভূতি প্রকাশ করেন, এ প্রসঙ্গে নিজের পোষ্টের কথা বলেন। ইন্ডিয়ান ইউজারদের কিছু গিফট দেয়া হয়েছে যেটা প্রতি বছর করার কথা বলেন এবং বাংলাদেশী এ্যাডমিনদেরও অনুরোধ করেন তারাও যেন সেটা করেন। এরপর টিনটিন বাবুর বিষয়ে ভালো এবং মজার কিছু কথা বলেন। বিশেষত আর্ট করার বিষয়টি, খুবই নিখুঁত এবং সুন্দর আর্ট করছেন ১২/১৩ বছরের ছেলেদের মতো। শিশু মনের কালার কম্বিনেশনটা দারুণ করছেন, যেটা হয়তো মাঝে মাঝে আমরাও পারছি না। কালার এর শেডগুলো দারুণভাবে করছে, লাল মানে শুধুই লাল না বরং লালের শেড ব্যবহার করার চেষ্টা করছে। প্রসঙ্গক্রমে দাদা তার ছোট বেলার আর্টের দক্ষতার বিষয়টি বলেন।

Untitled44.png

টিনটিন বাবুর বিষয়ে আরো কিছু কথা বলেন, যা সত্যি খুবই মজার ছিলো, সবাই কথাগুলো দারুণভাবে উপভোগ করেন। কমিউনিটির সব কিছু ঠিকঠাকই চলছে। নতুন নিয়মের বিষয়ে কথা বলেন, নতুন তিনটি বিষয় সংযুক্ত করা হয়েছে কমিউনিটির আপডেট নিয়মাবলীতে। সে প্রসঙ্গে কথা বলেন দাদা, নিয়মগুলো শুধুমাত্র আমার বাংলা ব্লগের জন্য। এ প্রসঙ্গে দাদা প্রতিটি বিষয়ে কথা বলেন, যার নিয়মগুলো ভিন্ন ভিন্ন। এ প্রসঙ্গে দাদা নতুন আরো একটি উদ্যোগের বিষয়ে তুলে ধরেন এবং আমি @hafizullah কথা বলি। এবিবি ফান এর উত্তোরোত্তর সফলতায় আমরা নতুনভাবে কবিতা নিয়ে এবং কবিতা প্রেমিকদের আরো বেশী উৎসাহ যোগাতে নতুন এই উদ্যোগটি নিতে যাচ্ছি। যেখানে এবিবি ফান এর মতো তবে সপ্তাহে দুই দিন দুটি পোষ্ট করা হবে, পোষ্টে মাঝে ৪/৬ লাইনের কবিতা লিখা থাকবে যেটা দেখে আপনারা আরো ৪/৬ লাইন কবিতা যুক্ত করবেন নিজেদের দৃষ্টিভঙ্গির আলোকে। যাদের লাইনগুলো সুন্দর হবে তাদেরকে যথারীতি এবিবি ফানের মতো দুই ডলারের সাপোর্ট দেয়া হবে।

তারপর এ বিষয়ে দাদা আরো কিছু কথা বলেন, ছাত্র জীবনে কবিতা দাদার খুবই প্রিয় ছিলো, প্রচুর কবিতার বই পড়তেন। আধুনিক কবিতা, পুরনো যুগের কবিতা, রবীন্দ্র যুগের কবিতা সবগুলোই মোটামোটি দাদা পড়েছেন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় একটা আলাদা ব্যাপার ছিলো, সে যুগের জন্য সেটা পারফেক্ট ছিলো। বর্তমান যুগের কবিতাগুলো ছন্দের মিল ঠিকই আছে,অন্তমিল মানে প্রথম লাইনে শেষ শব্দটির সাথে দ্বিতীয় লাইনের শেষের শব্দটির মিল পরিলক্ষিত হয় না কারন এখন অন্ত মিলের চেয়ে কবিতার বিষয়বস্তু, অর্ন্তনিহিত ভাব এগুলোর গুরুত্ব অনেক বেশী। এরপর রবীন্দ্রোত্তর যুগের কবিতার প্রভাব নিয়ে দাদা কিছু কথা বলেন। কোন কবিই তখন রবীন্দ্রনাথের প্রভাব কাটিয়ে কবিতা লিখতে পারছিলেন না। বিস্তারিত বলে দাদা সবাইকে আশ্বস্ত করার চেষ্টা করেন, কবিতা মানেই যে কঠিন শব্দের ব্যবহার তা ঠিক না। সহজ সরল ভাষায় যদি আপনি মনের ভাবটা প্রকাশ করতে পারেন তাহলেও সেটা কবিতার সৌন্দর্য বৃদ্ধি করবে। এ ব্যাপারে দাদা নিজের অভিমত তুলে ধরেন।

কবিতায় মনের ভাব যেটা ভালো লাগবে সেটাই উল্লেখ থাকবে। দুর্বোধ্য কিছু দাদা নিজেও পছন্দ করেন না। এ প্রসঙ্গে দাদা একজন কবির নাম বলেন যার কবিতাগুলো বেশ দুর্বোধ্য। হালের নতুন কবিদের ব্যাপারেও দাদা নিজের অভিমত প্রকাশ করেন। এই জন্যই আমাদের নতুন এই উদ্যোগটি নেয়া। এখানে দারুণ মজা হবে কবিতা নিয়ে। একটা অর্ধ সমাপ্ত কবিতা নিজের মতো করে শেষ করা, দারুণ একটা অভিনব উদ্যোগ। দাদা আশা প্রকাশ করেন খুব দ্রুত নতুন উদ্যোগটি বাস্তবায়ন হবে।

Untitled55.png

এরপর শুভ ভাই ফিরে আসেন এবং নতুন উদ্যোগটির ব্যাপারে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করেন। এবিবি স্কুল নিয়ে কথা বলেন, সেখানে বেনিফিশিয়ারির বিষয়টি সবাইকে স্মরণ করিয়ে দেন এবং এবিবি স্কুলে যা শেখানো হচ্ছে সেগুলোর প্রতি গুরুত্বারোপ করতে অনুরোধ করেন। তারপর কথা বলেন হিরোইজম প্রজেক্ট নিয়ে এটা আমাদের প্রজেক্ট। কারা কারা নিয়মিত কিউরেশন এবং লিকুইড রিওয়ার্ডস পাচ্ছেন ডেলিগেশন করার মাধ্যমে তাদের দেখতে চান। তারপর কথা বলেন এবিবি চ্যারিটি নিয়ে, যারা বিশ্বাস করেন মানুষ মানুষের জন্য তাদের দেখতে চান। প্রসঙ্গক্রমে এবিবি চ্যারিটি হতে ডোনেশন দেয়ার বিষয়গুলো তুলে ধরেন। এক্ষেত্রে এবিবি চ্যারিটি হতে কারা সাপোর্ট নিতে পারবেন সে বিষয়ে নিয়মগুলো উপস্থাপন করেন। তারপর হিরোইজম নিয়ে আমার বাংলা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা @rme দাদা কথা বলেন, আমার বাংলা ব্লগ একটা কমিউনিটি এখানে সকলের সকল পোষ্টে নিয়মিত সাপোর্ট দেয়া সম্ভব না। কেউ যদি মনে করেন এতো কষ্ট করে পোষ্ট করি, তাই প্রতিদিন অল্প পরিমানে হলেও সাপোর্ট পাওয়া উচিত, সেটা তার দিক হতে ঠিক আছে কিন্তু কমিউনিটি হতে সেটা করা সম্ভব না।

তাই ডেলিগেশন করার বিষয়টি তুলে ধরেন, এটা হয়তো সবাই জানেন। স্টিম ব্লকচেইনের সবচেয়ে যাদুকরী ও কার্যকর উদ্যোগ ছিলো এই ডেলিগেশন সিষ্টেম চালু করা। হিরোইজম এর সাপোর্ট দেয়ার বিষয়টি দাদা বিস্তারিত তুলে ধরেন। তাই রেগুলার ভোট পেতে হলে হিরোইজম এ ডেলিগেশন করতে হবে, যেহেতু আমার বাংলা ব্লগ ডেলিগেশন গ্রহণ করে না। স্টিমিটে অন্যান্য সকল কমিউনিটি ডেলিগেশন গ্রহণ করেন। হিরোইজম এর একক কোন মালিকানা নেই, সবগুলো কি কমিউনিটির সকল এ্যাডমিন মডারেটরদের কাছে রয়েছে, এখানে ডেলিগেশন করলে আপনারা লাভবান হবেন। দাদা নিজের মতো করে সবাইকে কিছুটা উৎসাহ দেয়ার চেষ্টা করেন।

এরপর শুভ ভাই ডেলিগেশন এর ব্যাপারে আরো কিছু কথা বলেন, যা প্রতিবারই হ্যাংআউটে বলার চেষ্টা করেন। আশা প্রকাশ করেন দাদার কথাগুলো শুনার পর সকলের নিকট বিষয়টি আরো বেশী পরিস্কার হয়ে যাবে। তারপর শুভ ভাই লাজুক খ্যাঁকের সপ্তাহ এবং ইউজারদের উদ্দেশ্যে কিছু কথা বলেন। এবিবি ফান নিয়ে কথা বলেন এবং ইউজারদের অভিমত জানার চেষ্টা করেন।

এরপর শুরু করা হয় কুইজ পর্ব। আমার বাংলা ব্লগের এ্যাডমিন আরিফ ভাই পর্বটি পরিচালনা করেন যথারীতি। তবে যেহেতু নিয়মগুলো একই রয়েছে তাই সে বিষয়ে নতুন করে কিছু বলেন নাই। আর এই পর্বে আরিফ ভাইকে সহযোগিতা করেন সুমন ভাই এবং আমি। শুরুতে সবাইকে প্রস্তুত থাকার অনুরোধ করেন এবং অনাকাংখিত ইমোজি শেয়ার হতে বিরত থাকার অনুরোধ করেন। তারপর আরিফ ভাই কুইজের প্রশ্নগুলো শেয়ার করেন, একে একে চারটি প্রশ্ন করেন সবাই বেশ আনন্দ নিয়ে কুইজগুলোতে অংশগ্রহণ করার চেষ্টা করেন। কুইজ শেষে যারা বিজয়ী হয়েছে তাদেরকে পরপবর্তীতে পুরস্কার প্রদান করা হবে। এরপর কমিউনিটির মডারেটর তানজিরা ম্যাডামের পক্ষ হতে কুইজ ধরা হয় এবং বিজয়ীকে তার পক্ষ হতে ৫ স্টিম পুরস্কার দেয়া হয়। তারপর দাদার পক্ষ হতে কুইজ ধরা হয় এবং এ পর্বটি সকলের নিকট দারুণ আকর্ষণীয় হয়ে উঠে, কারন দাদার কুইজ মানেই নতুন কিছু শেখা এবং জানার সুযোগ। দাদা সাভাবিক নিয়মগুলো এড়িয়ে একটু ভিন্নভাবে কুইজ করার চেষ্টা করেন। তারপর দাদার পক্ষ হতে বিজয়ীকে পুরস্কৃত করা হয়।

Untitled66.png

এরপর শুভ ভাই ফিরে আসেন এবং আমার বাংলা ব্লগের প্রতিযোগিতা-২১ নিয়ে কথা বলেন, যারা অংশগ্রহণ করেছেন এবং ইউনিক রেসিপি শেয়ার করেছেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানান। বিশেষ করে এবারের প্রতিযোগিতা সকলের পোষ্টগুলোর মাঝে বেশ ভিন্নতা ছিলো, ইউনিক ইউনিক রেসিপ শেয়ার করেছেন সবাই তাই বিজয়ী নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশ বেগ পেতে হয়েছিলো আমাদের। তারপর শেষের দিন হতে বিজয়ীদের নাম প্রকাশ করেন এবং তাদের অভিমত শেয়ার করার সুযোগ দেন। প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় হওয়া বৌদির রেসিপিটি ব্যাপারে দাদার অনুভূতি শেয়ার করেন। দারুণ স্বাদের ছিলো রেসিপিটি কারন ইলিশ মাছ সব সময়ই সেরা। এ প্রসঙ্গে দাদার রেসিপিটির কথাও বলেন, সেটা বেশ স্বাস্থ্য সম্মত রেসিপি ছিলো। প্রসঙ্গক্রমে দাদা অতীতের ঐতিহ্য রেসিপি সম্পর্কে কিছু তথ্য উপস্থাপন করেন। এরপর দাদা বিজয়ী হওয়ার ইউজারদের তার পক্ষ হতে কিছু পুরস্কার দেয়ার ঘোষনা দেন। এরপর বিজয়ীদের বাহিরে আরো একজন ইউজারের পোষ্টের কথা উল্লেখ করেন, যার পোষ্টটি দাদার কাছে খুবই ভালো লাগে এবং তাকে দাদার পক্ষ হতে ৩০ স্টিম পুরস্কার দেয়ার ঘোষনা করেন । পরবর্তীতে দাদা শুধু এ্যাডমিন মডারেটরদের নিয়ে একটা নতুন প্রতিযোগিতা আয়োজনের কথা বলেন।

এরপর শুভ ভাই ফিরে আসেন, বিজয়ীদের নতুনভাবে দাদার পক্ষ হতে পুরস্কার দেয়ার ঘোষণাকে স্বাগতম জানান। তারপর সুপার এ্যাকটিভ তালিকা নিয়ে কথা বলেন, যারা টায়ার এ থাকতে পারেন নাই তাদের ব্যাপারে কিছু পরামর্শ দেন শুভ ভাই। মন খারাপ না করে কাজের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে বলেন। তারপর টায়ার-১ হতে টায়ার-৩ পর্যন্ত সকল ইউজারের নাম প্রকাশ করেন।

এরপর শুরু করা হয় সর্ব শেষ সেগমেন্ট অর্থাৎ গানের পর্ব। এই পর্বে শুভ ভাইকে দারুনভাবে সহযোগিতা করেন @selinasathi1 আপু, ছন্দে ছন্দে তিনি ইউজারদের নাম ঘোষণা করেন এবং তারা নিজেদের মতো করে পারর্ফম করেন। একে একে @jahidulislam01 কবিতা, @britychaki গান, @miratek গান, @shyamshundor কৌতুক, @shipracha গান, @saymaakter কবিতা, @selinasathi1 কবিতা এবং @santa14 গান পরিবেশন করেন। তবে সব শেষে শুভ ভাইয়ের কণ্ঠে দারুণ একটা গান সবাই উপভোগ করেন।

এরপর সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে শুভ ভাই হ্যাংআউটের সপ্তাপি ঘোষণা করেন।

ধন্যবাদ সবাইকে।

@hafizullah

break .png

Community TEAM

@rme ADMIN ✠ Founder 🔯
@blacks ADMIN Executive Admin ♛
@winkles ADMIN Admin India Region 🇮🇳 ✨
@rex-sumon ADMIN Admin Quality Controller ✨
@hafizullah ADMIN Admin Bangladesh Region 🇧🇩 ✨
@shuvo35 ADMIN Admin Bangladesh Region 🇧🇩 ✨
@moh.arif ADMIN Admin Bangladesh Region 🇧🇩 ✨
@rupok MOD Community Moderator 🇧🇩 ✨
@alsarzilsiam MOD Community Moderator 🇧🇩 ✨
@kingporos MOD Community Moderator 🇮🇳 ✨
@nusuranur MOD Community Moderator 🇧🇩 ✨
@tangera MOD Community Moderator 🇧🇩 ✨
@ayrinbd MOD Community Moderator 🇧🇩 ✨
@swagata21 MOD Apprentice Mod 🇮🇳
@shy-fox MOD Extreme Curator 🐺
@abb-school MOD Steem School ✍
@endplagiarism04 MOD Steemit Watcher 🔍
@amarbanglablog MOD Primary Curator ♛♝
@royalmacro MOD Secondary Curator ♝
@curators MOD Secondary Curator ♝
@photoman MOD Secondary Curator ♝
break .png
Banner Annivr4.png
break .png
Banner.png

আমার বাংলা ব্লগের ডিসকর্ডে জয়েন করুনঃডিসকর্ড লিংক

break .png

Support @heroism Initiative by Delegating your Steem Power and get Amazing Support

250 SP500 SP1000 SP2000 SP5000 SP

Heroism_3rd.png

Sort:  
 4 months ago 

ভাইয়া, আপনি সাপ্তাহিক হ্যাংআউট রিপোর্ট-1 থেকে 61 পর্যন্ত সবগুলো রিপোর্ট খুব সুন্দরভাবে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে প্রকাশ করেছেন।যেটা পড়ে আমরা সম্পূর্ণ ধারণা পাই ,এই কষ্টসাধ্য কাজের জন্য আপনাকে সাধুবাদ জানাই।ধন্যবাদ ভাইয়া।

 4 months ago 

এখানে থাকতেই হবে এমন কোন কথা নেই, যারা কাজকে ভালোবাসেন আমরা শুধুমাত্র তাদেরকে নিয়েই এগিয়ে যেতে চাই।

আমরা যদি ভালোবেসে কাজ করি তাহলে অবশ্যই নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব। তাইতো আমি সব সময় ভালোবেসে কাজ করার চেষ্টা করি। আশা করছি যতদিন কাজ করব ততদিন ভালোবেসে কাজ করব। যাই হোক ভাইয়া আপনি অনেক সুন্দর ভাবে হ্যাংআউট রিপোর্ট তুলে ধরেছেন দেখে অনেক ভালো লাগলো। এছাড়া অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো আবারো জানতে পেরে অনেক ভালো লাগলো। শুভকামনা ও ভালোবাসা রইলো ভাইয়া। ❤️❤️❤️

 4 months ago 

প্রতিবারের ন্যায় এবারের হ্যাংআউট প্রোগ্রামও অনেক আনন্দঘন ছিল। তবে আবার হ্যাংআউট প্রোগ্রামে দাদার কথাগুলো অনেক ভালো লেগেছে বিশেষ করে এডমিন ও মডারেটরদের মধ্যে একটি রেসিপি পোস্ট কনটেস্টের বিষয়ে। এভাবেই আনন্দঘন হয়ে উঠুক প্রতিটি হ্যাংআউট প্রোগ্রাম।

 4 months ago 

এই সপ্তাহের সাপ্তাহিক হ্যাংআউট আমার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। বিশেষ করে কমেন্ট করার ক্ষেত্রে আমি হাফিজুল্লাহ ভাইয়ের কাছ থেকে অনেক সুন্দর উপদেশ পেয়েছি যেটা আমার ভবিষ্যতের জন্য অত্যন্ত ভালো একটি দিক। এছাড়াও প্রতিযোগিতা-২১ এর পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণার পরবর্তী আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছিল । পাশাপাশি আমাদের প্রিয় দাদা অনেক সুন্দর দিক-নির্দেশনা মূলক উপদেশ দিয়েছিলেন। যাহোক, এই সপ্তাহের হ্যাংআউটটি আমার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সকলের জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইল

 4 months ago 

দেখতে দেখতে ৬১ নাম্বার হ্যাংআউট পার করে ফেললাম। প্রতি সপ্তাহেই হ্যাংআউটের জন্য অপেক্ষা করি। ভালো লাগে সবার কথা শুনতে। আর বিনোদন পর্ব তো আছেই।

 4 months ago 

আমার বাংলা ব্লগ হ্যাং আউট এর কথা শুনলেই মনের মধ্যে অন্যরকম একটা অনুভূতি আসে । কারণ এই হ্যাংআউটের মাধ্যমে আমরা সবার সাথে আমাদের মত বিনিময় করতে পারি। তাছাড়া মত বিনিময়ের পাশাপাশি অনেক ধরনের আনন্দ ও বিনোদন পেয়ে থাকি। যেটা আমাদের মনটাকে ভালো করে রাখে ।

 4 months ago 

৬১ তম সপ্তাহে বেশ ভালই মজা হয়েছিল, আরো অনেকদিন পরে দাদা আমাদের মাঝে কুইজ দিয়েছিল। সবশেষে এমন দাঁতভাঙ্গা একটি প্রশ্ন করেছিল যেটার উত্তর সঠিক সময়ের মধ্যে কেউ দিতে পেরেছিল না।

 4 months ago 

এবারের হ্যাংআউট জমজমাট ছিল। বিশেষ করে সুমন ভাইয়ের কথা শুনেই বুঝা যাচ্ছিল। কারণ এ সপ্তাহে এক্টিভ লিস্ট তৈরি করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। ব্যবহারকারীরা সক্রিয় হয়ে পড়ছে। এটা আসলে আমাদের কমিউনিটির জন্য ই ভালো দিক। এরপরে দাদা সকলের উদ্দেশ্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথা বলেন। সবমিলিয়ে এবারের হ্যাংআউট চমৎকার ছিল। আপনারের বরাবরের ন্যায় চমৎকারভাবে রিপোর্ট উপস্থাপন করে থাকেন।

 4 months ago 

আপনার এই রিপোর্টটি আমার কাছে খুবই ভালো লাগে। লোডশেডিং হওয়ার ফলে আমরা অনেক সময় অনেক তথ্য শুনতে পারি না কিন্তু আপনার এই পোস্টটি দেখার পরে সেগুলো খুব ভালোভাবে ধারণা লাভ করে যাই । আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ভাইয়া এমন সুন্দর একটা পোস্ট করতে সপ্তাহে আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।

Upvoted! Thank you for supporting witness @jswit.
default.jpg

Congratulations, your post has been upvoted by @dsc-r2cornell, which is the curating account for @R2cornell's Discord Community.

Manually curated by @jasonmunapasee

r2cornell_curation_banner.png

 4 months ago 

দেখতে দেখতে ৬১তম হ্যাংআউট শেষ হয়ে গেল। ৬১ তম হ্যাংআউটে পুরো সময় ধরে উপস্থিত ছিলাম। অনেক আনন্দ অনেক মজা হল এবং গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথা হলো। সত্যি খুবই ভালো লেগেছে। হ্যাংআউট এর পুরো সময় উপস্থিত ছিলাম। আপনি খুবই সুন্দরভাবে বিস্তারিত আবার আলোচনা করলেন। আপনার জন্য রইল শুভকামনা।

 4 months ago 

প্রিয় ভাইয়া আপনার হ্যাংআউট প্রতিবেদন সেই শুরু থেকে আজ অবধি দেখে আসছি যে বিষয়টি আমার কাছে দারুন লাগে।হ্যাং আউট এর একটি কথা ও এ দিক সে দিক হয়না।পুরো হ্যাংআউট এই প্রতিবেদন আকারে আপনি তুলে ধরেন যেটা আমার কাছে খুব আশ্চর্যজনক মনে হয়।তবে বিনোদন পর্বে ছন্দে ছন্দে শুভ ভাইয়াকে সহযোগিতা করার জন্য আমার নিজেরও অনেক বেশি ভালো লাগে।।এত সুন্দর প্রতিবেদন এর জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি অন্তরের অন্তস্তল থেকে।

 4 months ago 

আমার বাংলা ব্লগ সবকিছুকে ছাপিয়ে এখন একটি পরিবার হয়ে উঠেছে। এই পরিবারের একজন সদস্য হতে পেরে আমার মধ্যে সব সময় একটা ভালো কাজ করে। যাইহোক ভাইয়া বরাবরের মত এই দিনে এসে আপনার এই রিপোর্টটি আমি পড়ার জন্য অপেক্ষায় থাকি। আসলে এবারের হ্যাংআউটে স্পেশাল একটি মোমেন্ট ছিল সেটা হল "পটল নিয়ে ইউনিক রেসিপি" প্রতিযোগিতার ফলাফল। সব মিলিয়ে অনেক মজা হয়েছিল সেদিন বিশেষ করে দাদার কুইজ পর্বটি। ধন্যবাদ আপনাকে।

 4 months ago 

প্রত্যেক সপ্তাহে এত কষ্ট করে রিপোর্টটি তৈরি করেন আপনি। কথাগুলো মনে রেখে হুবহু তৈরি করেন রিপোর্টটি। প্রত্যেক মডারেটর এর মন্তব্যগুলো সহ কুইজ নিয়ে সবকিছুই আপনি উল্লেখ করেন।
এটা আসলেই কঠিন একটি কাজ ভাইয়া ‌। আপনাকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ সবসময় আমার কষ্ট করে রিপোর্টটি তৈরি করে আমাদের মাঝে উপস্থিত করার জন্য।

 4 months ago 

প্রথমেই আপনাকে চমৎকার এই রিপোর্টটি প্রকাশ করার জন্য ধন্যবাদ জানাই। আপনার মেধা শক্তি দেখে আমি অবাক হয়ে যাই। আমি তো মাঝে মাঝেই অনেক কিছুই ভুলে যাই আর মোবাইলে অন্তত দশটা এলার্ম দেয়া থাকে। আপনার কাজটি সত্যিই প্রশংসনীয়।

কমিউনিটির কিছু নিয়ম-কানুন দেয়া হয়েছে তা সবার মেনে চলা জরুরি এবং সঠিক মার্কডাউনের ব্যাবহার জরুরি। আর বানানের ভীষণ মাত্রারিক্ত ভুল রয়েছে। আমি নিজেও আমার সহকর্মীদের পোস্ট দেখে তাদের ভুল ধরিয়ে দেয়ার জন্য চেষ্টা করছি। যাক সবমিলিয়ে তবুও আমাদের কমিউনিটির পরিবেশ সুন্দর কারন আমরা সম্মান দিতে জানি এবং নিতেও জানি।

সত্যি বলতে হ্যাংআউট পুরো সপ্তাহের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু 🤗

 4 months ago 

৬১ তম হ্যাংআউট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিলো। এই হ্যাংআউটের ২১তম কনটেস্ট এর বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছিল। আপনি অনেক সুন্দর ভাবে আমাদের মাঝে রিপোর্ট তৈরি করে প্রকাশ করেছেন ভাইয়া। ধন্যবাদ প্রত্যেক সপ্তাহের ন্যায় এই সপ্তাহেও রিপোর্ট তৈরি করে আমাদের মাঝে প্রকাশ করার জন্য।

 4 months ago 

৬১তম হাং আউট পর্বে অংশগ্রহণকারী সকল ইউজার ভাইদের জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা। দীর্ঘতম একটি অনুষ্ঠান আপনি সুচারুরূপ পরিচালনা করে একটি রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন। সেই সাথে এই পর্বের আমার বাংলা ব্লগ’-সাপ্তাহিক হ্যাংআউট রিপোর্ট-৬১ খুবই সুচারুরূপে বিবরণ দিয়েছেন। সত্যি সত্যিই আপনি প্রশংসার যোগ্য। আপনার জন্য অনেক অনেক শুভ কামনা রইল।

Coin Marketplace

STEEM 0.18
TRX 0.05
JST 0.022
BTC 16996.23
ETH 1256.31
USDT 1.00
SBD 2.11