একটি গোধূলি বেলায় সবুজের সান্নিধ্যে কিছু সময় কাটানো।।০২ জুলাই ২০২২।।

in আমার বাংলা ব্লগlast month
IMG_20220702_180013.jpg

হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন?আশা করি ভালো আছেন এবং সুস্থ আছেন।সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে আজকে আমি আমার পোস্ট লেখা শুরু করছি।আজকে আবার একটু বেরিয়ে পড়লাম।আর আমার বেড়ানো মানেই একটু শহর থেকে দূরে।দিন দিন শহর আমার কাছে বড় একঘেয়েমি হয়ে উঠেছে।তাই আমি চেষ্টা করি একটু শহর থেকে দূরে হোক সেটা যেমনই একটু সবুজ আর দূষণ মুক্ত হলেই হলো।আমার ভীষণ ভালো লাগে নির্মল হাওয়ায় শ্বাস নিতে।আমি মনে করি একটু সময় বের করে সপ্তাহে অন্তত একদিন দূষণ মুক্ত পরিবেশে আমাদের অক্সিজেন গ্রহণ করা উচিত।তাহলেই আমাদের মন ও দেহ দুটোই উজ্জীবিত হয়ে উঠবে।আর আমরা আমাদের কাজে আরো বেশি মনোযোগী হতে পারবো।


IMG_20220702_175922.jpg

IMG_20220702_175320.jpg

আজকে গিয়েছিলাম ব্যারাকপুর-কৃষ্ণনগর রোড বাইপাস এ।এই রোড টা একসময় এতটাই খারাপ ছিলো যে এখানে যেতেই ভয় করতো।যাকে বলে বীভৎস রকমের খারাপ।কিন্তু কয়েক বছর হলো এই রোড টা অনেক বড় ও সুন্দর হয়েছে।এতটাই সুন্দর যে বাইক আরোহীদের কাছে এই রোড এক কথায় স্বর্গ।আমি তো প্রায়ই এই রোডে bike ride করতে চলে যেতাম।এখন ব্যস্ততার কারণে পারি না।হয়তো তাড়াতাড়ি bike চালানো ও বন্ধ করে দেবো।যাই হোক অনেক দিন পর কাছের বন্ধু তন্ময় কে নিয়ে গেলাম ওই road।আসলে আগে থেকে কোনো প্ল্যানই ছিলো না।তন্ময়ের সাথে দেখা হয়না তা প্রায় সাত মাস।কিন্তু আগে সব থেকে বেশি সময় কাটাতাম ওর সাথে তারপর আমাদের এডমিন @winkles এর সাথে।সময়ের সাথে সাথে আমাদের সবারই ব্যস্ত হয়ে যেতে হয়।এটাই নিয়ম কারণ সবাই একটা সময় পর নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবতে শুরু করে।

IMG_20220702_175245.jpg

IMG_20220702_175240.jpg

যাই হোক হঠাৎ whatsapp এ তন্ময় জানালো আজকে একটু বেরোতে চায় আমার সাথে।অনেক দিন দেখা হয় না তাই আমি ও রাজি হলাম।মোটামুটি পাঁচটার দিকে বেরিয়ে পড়লাম।কিন্তু বেরিয়েই বৃষ্টির কবলে পড়লাম।তাই একটা দোকানের সেডের নীচে প্রায় ৪০ মিনিট অপেক্ষা করলাম বৃষ্টি থামার।একসময় বৃষ্টি থামলো আমরা আবার বেরিয়ে পড়লাম।

অনেকদিন পর বেরিয়ে খুব ভালোই লাগলো।বেশ হাওয়া ছিলো আর বৃষ্টির কারণে পরিবেশ ও ঠান্ডা ছিলো।হঠাৎ দেখলাম আম বাগানে একটা বাঁশ দিয়ে রেস্টুরেন্ট তৈরি করা হয়েছে।theme টা ও আমাদের কাছে দারুন লাগলো।কিন্তু এদের decoration আর পরিবেশ ভালো হলেও সার্ভিস ও খাবারের মান খুবই হতাশাজনক।আমি আর দ্বিতীয়বার এখানে যাওয়ার ইচ্ছে রাখছি না।

IMG_20220702_175203.jpg

IMG_20220702_174644.jpg

IMG_20220702_174641.jpg

IMG_20220702_174637.jpg

এরপর গেলাম কৃষ্ণনগর রোড এ পাশে অবস্থিত বিখ্যাত মৌচাক ধাবায়।এখানে একটি বিশেষ মালাই চা পাওয়া যা এক কথায় অসাধারণ।তো আমরা দুজনে গিয়ে দুটো মালাই চা অর্ডার করলাম।যেহেতু শনিবার তাই বেশ ভিড় ছিলো।আমাদের বেশ কিছুটা সময় অপেক্ষা করতে হলো।এদিকে আবহাওয়া ও স্বাভাবিক হয়ে গেল।

চা খেয়ে আমরা বাড়ির উদ্দেশ্যে যাত্রা করলাম।সত্যি মালাই চা টা দারুন ছিলো বরাবরের মতো।----------------------

|| আমার বাংলা ব্লগ-শুরু করো বাংলা দিয়ে ||

standard_Discord_Zip.gif

>>>>>|| এখানে ক্লিক করো ডিসকর্ড চ্যানেলে জয়েন করার জন্য ||<<<<<

Support @heroism Initiative by Delegating your Steem Power

250 SP500 SP1000 SP2000 SP5000 SP

Heroism_3rd.png


ধন্যবাদ।সবাই ভালো থাকবেন।

BoC- linet.png
-cover copy.png

|| Community Page | Discord Group ||


image.png

png_20211106_204814_0000.png

Beauty of Creativity. Beauty in your mind.
Take it out and let it go.
Creativity and Hard working. Discord

Sort:  
 last month 

গোধূলি লগ্নে প্রিয় বন্ধুর সাথে সবুজ প্রকৃতির মাঝে সুন্দর একটি বাঁশের রেস্টুরেন্টে সুন্দর একটি সময় অতিবাহিত করেছেন দাদা।আবার সেখানে বন্ধুর সাথে একসাথে মালাই চা খেয়েছেন।আসলে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেওয়ার মাঝে অন্যরকম একটা ভালো লাগা কাজ করে, যা অন্য কোথাও পাওয়া যায় না।রেস্টুরেন্টেটা দেখতে খুবই সুন্দর ছিল এবং আপনি অনেক সুন্দর ভাবে ফটোগ্রাফি করে আমাদের মাঝে উপস্থাপন করলেন। যা দেখে খুবই ভালো লাগছে। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি দাদা আমাদের মাঝে এত সুন্দর একটি পোষ্ট উপহার দেওয়ার জন্য।

This post has been upvoted by @italygame witness curation trail


If you like our work and want to support us, please consider to approve our witness




CLICK HERE 👇

Come and visit Italy Community



 last month 

আসলেই দাদা,,সপ্তাহে একদিন সবুজ প্রকৃতির কাছে যাওয়া উচিত।কিন্তু কয়জনই আমরা পারি হুটহাট বেরতো পারে। যাই হোক বাঁশের রেস্টুরেন্ট বেশ সুন্দর। কিন্তু খাওয়া দাওয়ার কথা শুনে মনে হচ্ছে, উপর দিয়ে ফিটফাট ভেতর দিয়ে সদরঘাট 😉😉।ভালো লাগলো।ধন্যবাদ

 last month 

আজকে আমার পোস্টের সাথে দাদার দুই লাইনের মিল পেলাম তা হলো পুর্বের কোন ভয়ংকর স্থান যা এখন স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছে । আমি নিজেও সব সময় চেষ্টা করি কোলাহল মুক্ত জীবন ছেড়ে একটু সবুজের মাঝে যেয়ে নয়ন জুড়ানো মুহুর্ত গুলো উপভোগ করতে । মাঝে মাঝে তা করেও ফেলি বেরিয়ে যায় স্পর্শ পেতে এই সুন্দর সবুজের সমারোহের ।
তবে দাদা একটি কথা এখন আমার জীবনেও সত্যি হয়ে উঠছে কাছের বন্ধুদের থেকে দূরে সরে যাওয়া শুধু একটায় কারণ সময়ের সাথে মিল না থাকা সবাই সবার নিজের লাইফে ব্যাস্ত । যাদের সাথে একসময় দিনের অর্ধেক সময় কেটেছে তাদের সাথে একবছরেও এতটা সময় পাওয়া মুশকিল ।

আপনার আজকের তথ্যবহুল ছবি সমৃদ্ধ পোস্টটি পড়ে ভাল লাগলো । ধন্যবাদ দাদা ।

 last month 

গোধূলি বেলায় সবুজের সান্নিধ্যেবেশ ভালোই হয়েছে। সাথে বন্ধুর সঙ্গে মালাই চা খেয়ে সময় কাটানো অত্যন্ত চমৎকারভাবে লাগলো আমার কাছে। আপনার জন্য শুভকামনা রইল।

 last month 

একটি বিষয় লক্ষ্য করেছে দাদার ইদানিং পোস্টগুলো প্রকৃতির সাথে অনেক বেশি সম্পর্কযুক্ত। ঘুরাফেরা নিজেকে সময় দেয়া এরকম।
আমারও দাদা আপনার মত সবুজ প্রকৃতিতে খোলা আকাশে বুক ভরে নিঃশ্বাস নিতে খুব ভালো লাগে।
ইদানিং এমন হয়েছে এই রোদ এই বৃষ্টি সকালবেলা বাসা থেকে বের হব চমৎকার রোদ ছাতা আনা হয়নি ১০ মিনিট চলার পর বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে।
আজকাল রোডে বাইক নিয়ে চলাফেরা অনেক রিস্কি হয়ে পড়েছে তাই দাদা একটু সাবধানে চলবেন। আপনারা ভালো থাকলে আমরাও ভালো থাকি।

 last month 

দাদা আপনার এই কথাটা আমার কাছে বেশ ভালো লেগেছে আমাদের সকলের উচিত সপ্তাহে একদিন দূষণমুক্ত পরিবেশে অক্সিজেন গ্রহণ করা উচিত ।আর আপনি আজকে আপনার বন্ধুর সঙ্গে বেশ ভাল সময় কাটিয়েছেন আপনার পোস্টটি পড়ে জানতে পারলাম। আর ফটোগ্রাফি গুলো চমৎকার হয়েছে।জায়গাটি মনে হয় বেশ সুন্দর ।খুব ভালো সময় উপভোগ করেছেন বুঝতে পারছি। তবে দাদা মালাই চা টা কেমন ?এর মধ্যে কি আইসক্রিম থাকে? জানার ইচ্ছা ছিল ।ধন্যবাদ আপনাকে।

 last month 

সর থাকে।

 last month 

ধন্যবাদ দাদা।

 last month 

গোধূলি বেলায় সবুজের সান্নিধ্যে কিছু সময় কাটানো মুহূর্ত খুবই আনন্দের ছিল। আপনি খুবই সুন্দর সময় পার করেছেন এবং ফটোগ্রাফি গুলো আমাদের সাথে শেয়ার করলেন। আসলে অনেকদিন পর এই সৌন্দর্যময় জায়গায় এসে এবং বৃষ্টির কারণে পরিবেশটা ঠান্ডা ছিল। সৌন্দর্যময় পরিবেশের মধ্যে আমবাগানে রেস্টুরেন্টের পরিবেশটাও আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে। তবে খাবারের মান খারাপ জানার পরে নিজের কাছে হতাশা লাগছে। আসলে পরিবেশটা অনেক সুন্দর ছিল ফটোগ্রাফি গুলো দেখতে পেয়ে ভালো লাগলো আমার।

 last month 

একদম ঠিক বলেছেন দাদা আমাদের সবারই উচিত সপ্তাহে একদিন সময় করে অন্তত বাইরে ঘুরতে যাওয়া অক্সিজেন নেওয়ার উদ্দেশ্যে ।আপনি ভালো কাজ করেন সময় পেলেই প্রকৃতির মাঝে চলে যান সময় কাটাতে শহরের কোলাহল আসলেই ভালো লাগেনা ।বাইপাস রোড হলে সেই রোডে বাইক চালিয়ে আরাম পাওয়া যায় ভালোই করেছেন বন্ধুকে নিয়ে বেরিয়ে পড়েছেন। হুটহাট বেড়ানোর মজাই আলাদা ,ভাগ্যিস বৃষ্টিতে থেমেছিল তা না হলে আপনাদের ঘোরাটাই মাটি হয়ে যেত ।আবার এক দিক দিয়ে বৃষ্টি নামা ভালো হয়েছে পরিবেশটা অনেক ভালো পেয়েছেন ।আপনারা ঘুরেও এত মজা পেয়েছেন এবং জায়গাটাও এত ভালো ছিল যদি দ্বিতীয়বার যাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেছেন ।খুব ভালো লাগলো দাদা আপনার পোস্টটি পড়ে। আর খুব সুন্দর সুন্দর কিছু ফটোগ্রাফির সাথে শেয়ার করেছেন।

 last month 

আসলে আমাদের সবার উচিত সপ্তাহে অন্তত একদিন মুক্ত মনে ঘুরে বেড়ানো তাতে আমাদের মন ফ্রেশ থাকবে। আপনার পোস্টটি পড়ে আর ফটোগ্রাফি দেখে খুবই ভালো লাগলো দাদা। এমন পরিবেশে ঘুরতে গেলে মন খারাপ থাকলেও মন ভালো হয়ে যাবে। বাড়ি ফেরার আগে দুই বন্ধু মিলে মালাই চা খেয়েছেন, সব কিছু মিলিয়ে অনেক ভালো সময় কেটেছে আপনাদের। শুভকামনা রইলো দাদা।

 last month 

দীর্ঘদিন পরে বন্ধুর সঙ্গে , বেশ ভালই সময় কাটিয়েছেন ।তা আপনাদের মুহূর্তের ফটো গুলো দেখেই বোঝা যাচ্ছে । তবে কেন আপনি বাইক চালানো ছেড়ে দিবেন, এই ব্যাপারটা শুনে একটু চিন্তিত হলাম । হয়তো নিরাপত্তার কথা ভেবেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন । তবে যাইহোক আপনি যেটা মনে করেন, আমি বিশ্বাস করি বুঝে শুনেই করেন। তাছাড়া গ্রামীন পরিবেশের ভিতরে আলাদা একটা যে শান্তি পাওয়া খুঁজে পাওয়া যায়, এটা একদম সত্য কথা ভাই ।

শুভেচ্ছা রইল

 last month 

একটি গোধূলি বেলায় সবুজের সান্নিধ্যে কিছু সময় কাটানো সুন্দর মুহূর্ত শেয়ার করেছেন দেখে ভীষণ ভালো লাগলো দাদা। আপনার মালাই চা খাওয়ার কথা শুনে মালাই চা খাওয়ার ইচ্ছে হচ্ছে। যাক খেয়ে নিবো। আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন সবসময় এই কামনাই করি।

 last month 

দাদা আপনার মত আমারও শহরের বাইরে কোলাহলমুক্ত দূষণমুক্ত সবুজ প্রকৃতি আমার খুবই পছন্দ। তেমন একটি পরিবেশে আপনারা বন্ধুরা মিলে আড্ডা দিয়েছেন। দেখে খুবই ভালো লাগলো।
বাঁশের থিমের রেস্টুরেন্ট গুলো আমার কাছে খুবই ভালো লাগে। কিন্তু সার্ভিস এবং খাবারের মান খারাপ শুনে একটু খারাপ লেগেছে। যাই হোক দাদা আপনাদের জন্য অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল।

 last month 

গ্রামের পরিবেশে ঘুরে বেড়ালে শহরের পরিবেশ এক ঘেয়েমী লাগারই কথা। আপনি তো মাঝেমধ্যেই গ্রামের দিকে চলে যান ঘুরতে এজন্য আপনার কাছে ঐ দিকটাই বেশি ভালো লাগে। রেস্টুরেন্ট গুলো দেখে তো খুব চমৎকার লাগছে। ভাবছিলাম যে খাবার মনে হয় খুব সুস্বাদু হবে । কিন্তু খাবারের মান ভালো না হলে এত সুন্দর ডেকোরেশন দিয়ে কি লাভ। ক্রেতা তো একবার খাবার খেয়ে দ্বিতীয়বার আর যাবে না।
অনেকদিন পর বন্ধুর সঙ্গে বেশ ভালো সময় কাটিয়েছেন দেখে বোঝা যাচ্ছে। কিন্তু মালাই চা য়ের কথা বলেই তো লোভ লাগিয়ে দিলেন। মালাই চা আমার খুবই পছন্দের।

 last month 

দিন দিন শহর আমার কাছে বড় একঘেয়েমি হয়ে উঠেছে।

দাদা আপনার এই কথাটির সাথে সহমত পোষণ করছি। আমরা যারা শহরে বসবাস করি শুধু তারাই এই কষ্ট উপলব্ধি করতে পারি। শহরের পরিবেশ দিনে অসহ্যকর হয়ে উঠছে। আসলে একঘেয়েমি জীবন থেকে মুক্তি পেতে হলে মাঝে মাঝে যদি আমরা গ্রামীন নিরিবিলি কোন পরিবেশে সময় কাটাই তাহলে যেমন মানসিক প্রশান্তি আসে তেমনি কাজের প্রতি আগ্রহ বেড়ে যায়। দাদা আপনি আপনার বন্ধুর সাথে সুন্দর একটি জায়গায় গিয়েছেন এবং অনেক সুন্দর সময় কাটিয়েছেন এটা বুঝতেই পারছি। আপনার কাটানো সুন্দর মুহূর্ত ফটোগ্রাফির মাধ্যমে উপস্থাপন করেছেন এজন্য আপনাকে জানাচ্ছি ধন্যবাদ। সেই সাথে আপনার জন্য শুভকামনা ও ভালোবাসা রইলো দাদা। ❤️❤️❤️

 last month 

বেশ দারুন সময় কাটিয়েছেন দাদা।

পুরনো বন্ধু গুলো বয়স বাড়ার সাথে সাথে হারিয়ে যায়। ব্যস্ত হয়ে পড়ে সবাই নিজ নিজ কর্মে। কিন্তু মাঝে মাঝে এমন দেখা হয়ে গেলে সত্যিই পুরনো দিনগুলোর কথা ভীষণ মনে পড়ে, আর সময়টাও দারুণ কাটে।

দাদা আপনারা যে লোকেশনে গিয়েছেন জায়গাটা আমার কাছে ভালই লাগলো। সিমসাম বেশ সুন্দর 👌

Hi @blacks,
my name is @ilnegro and I voted your post using steem-fanbase.com.

Come and visit Italy Community

 last month 

আসলে এই ধরনের জায়গায় পরিবেশ খুব সুন্দর হলেও খাবারের মান খুব একটা ভালো হয় না। তবে শেষ এ চা টা বেশ ভালো হয়েছে বলেই তো মনে হচ্ছে আপনার কথা শুনে।

 last month 

দাদা আপনার এই পোস্টটি পড়ে মনে হচ্ছে অনেকদিন পরে তন্ময় এর সাথে বিকেল বেলার সময়টুকু দারুন ভাবে কাটিয়েছেন। যদিও রেস্টুরেন্টের পরিবেশ আপনাদের হতাশ করেছিল কিন্তু মালাই চা নিশ্চয় আপনাদের প্রাণবন্ত করে তুলেছিল।

 last month 

দাদা আপনার সবুজের মাঝে ঘোরাঘুরি বিষয়টা আমার খুব ভালো লাগে। ব্যারাকপুর কৃষ্ণনগর বাইপাস রোডের কথা শুনে আমারও সেখানে বাইক রাইড করতে ইচ্ছা করছে। দাদা আবার বলতে হয় সবুজ প্রকৃতির মাঝে গেলে শরীর ও মন নিমিষেই অনেক ফুরফুরে হয়ে যায়। আমার কাছেও আম বাগানের ভিতর বাঁশের তৈরি রেস্টুরেন্টটি অসাধারণ লেগেছে। আশা করছি ওদের পরিবেশন ও খাবারের মান ধীরে ধীরে আপডেট হবে। আপনার লেখার পাশাপাশি ফটোগ্রাফি গুলো অসাধারণ হয়েছে, আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে। দাদা শেষ পর্যায়ে এসে মালাই চায়ের কথা বলে লোভ লাগিয়ে দিলেন।

 last month 

রাস্তা টা খুব চেনা লাগলো। বেশ কয়েক বার হয়তো যাতায়াত হয়েছে। আজ অনেক দিন পর বেশ ভালো লাগলো। আর এমন পরিবেশ মনকে চাঙ্গা করে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। সাথে মালাই চা , উফ 👌👌। জমে ক্ষীর পুরো।

 last month 

দাদা, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য কার না ভালো লাগে। আবার তাতে যদি সাথে থাকে পুরাতন কোন বন্ধু। যাই হোক গোধূলি বেলায় প্রকৃতির সৌন্দর্যের সন্ধানে অনেক দিনের পুরাতন বন্ধু তন্ময় ভাইকে নিয়ে ব্যারাকপুর কৃষ্ণনগর রোড বাইপাস রোডে ভালোই সময় কাটিয়েছেন। রেস্টুরেন্টের ছবি দেখে মনে হচ্ছে ভালোই আপডেট। কিন্তু আপনি বলছেন এদের সার্ভিস ও খাবার খুবই হতাশা জনক। ওদের সার্ভিসটা ভালো হওয়া উচিত ছিল। দাদা আপনার ছবির দৃশ্য গুলো খুবই সুন্দর ছিল। দেখে ভালো লাগলো। আপনার জন্য শুভকামনা রইল। ধন্যবাদ।

 last month 

আমি একদম দাদা ঠিক বলেছেন সপ্তাহের একটা দিন আমাদের অন্তত উচিৎ বাইরে কোন নির্মল পরিবেশে গিয়ে মুক্ত বাতাস গ্রহণ করা । এভাবেই মুক্ত বাতাস গ্রহণ করলেও মনটা ফ্রেশ হয়ে যায় । বাঁশের তৈরি রেস্টুরেন্ট দেখতে খুবই চমৎকার দেখাচ্ছে ,তবে খাবারের মান আশানুরূপ না হওয়া তো ঝামেলা । খাবারের মান ভালো হলে অনেক লোকের সমাগম ধীরে ধীরে বাড়তে থাকবে । যাইহোক আপনার বন্ধু তন্ময় দাদা কে নিয়ে ভালো সময় কাটিয়েছেন

 last month 

পুরনো বন্ধুর সাথে অনেকদিন পর সময় কাটাতে নিশ্চয়ই আপনার অনেক ভালো লেগেছে। তবে আপনারা যে রেস্টুরেন্টে গিয়েছিলেন সেখানকার খাবার খারাপ হলেও ডেকোরেশনটা আমার কাছে বেশ ভালই লেগেছে। আর খাবারের দামটাও একেবারে সাধ্যের ভিতরে। তবে খাবার ভালো না হলে দাম কম রেখে লাভ কি? যদিও আমি চায়ের খুব একটা ভক্ত না তারপরেও মালাই চা খাওয়ার ইচ্ছা আছে। এখন পর্যন্ত খাওয়া হয়নি। চমৎকার লিখেছেন দাদা। ধন্যবাদ আপনাকে।

 last month 

দাদা আপনি ঠিকই বলেছেন এই ইট পাথরের শহরে চার দেওয়ালে আটকা থাকতে এমনিতে একঘেয়েমি লাগে। দূরে কোথাও গিয়ে চিরসবুজের নির্মল অক্সিজেন গ্রহণ করতে অনেক ভালো লাগে। মন অনেক সতেজ হয়ে যায় এবং শরীরে আলাদা একটা এনার্জি চলে আসে। তবে আপনি আপনার বন্ধুকে নিয়ে ব্যারাকপুর ঘুরতে গিয়ে খুব সুন্দর সুন্দর ফটোগ্রাফি উপহার দিয়েছেন। যেখানে ছিল সবুজের সমাহার। চির সবুজের মাঝে হারিয়ে যেতে আমারও খুব ভালো লাগে। আমাদের মাঝে আপনার অনুভূতিগুলো শেয়ার করার জন্য আপনার প্রতি রইল ভালোবাসা অবির।

 last month 

এটা ঠিক বলেছেন দাদা, সত্যি সবুজ প্রকৃতির মাঝে কিংবা সবুজের সান্নিধ্যে কিছু সময় কাটানো মানে নিজেকে আরো বেশী সতেজ ও উজ্জীবিত রাখা। আমার কাছেও ভালো লাগে সবুজ প্রকৃতি এবং কোলাহল ও দূষণমুক্ত পরিবেশ। তাইতো দ্রুত ঢাকা শহর ছাড়তে চাইছি। ফটোগ্রাফিগুলো দারুণ ছিলো।

 last month 

প্রথমে ভেবেছিলাম এতো সুন্দর আর চমৎকার রেস্টুরেন্ট হয়তো সবকিছু দারুন হবে। কিন্তু আপনি জানালেন খাবারের মান ভীষণ খারাপ। যাক তারপরও একটু মুক্ত বাতাসের আশায় বেশ কষ্ট হলেও বেড়িয়েছেন এটাই বড় ব্যাপার।
ভালো থাকুন দাদা সবসময়ই।
দোয়া রইল।

 last month 

গোধূলি বেলা, সবুজের সান্নিধ্য আর দীর্ঘদিন পর পুরনো বন্ধু সব মিলিয়ে সেই রকম ভাল সময় কাটিয়েছেন ভাইয়া । ফটোগ্রাফি গুলো তাই বলে । অনেক শুভ কামনা আপনার জন্য।

 last month 

বাঁশ দিয়ে তৈরি রেস্টুরেন্টটি আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে।তবে খাবারের মান হতাশাজনক জেনে খারাপ লাগলো।যাইহোক এইরকম পরিবেশ সময় কাটানোর জন্য খুবই ভালো।সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সবাই নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ে এটাই স্বাভাবিক।ধন্যবাদ দাদা,সুন্দর সময় কাটিয়েছো।

 last month 

দাদা কৃষ্ণনগর আমার বাড়ি, কাছ দিয়ে চলে গেলেন। খাওয়া দাওয়া টা কিন্তু আমার বাড়িতেও হতে পারতো দাদা😶

 last month 

দেখেই বোঝা যাচ্ছে দাদা খুব কোয়ালিটি সময় ব্যয় করেছেন গোধূলি বেলায় সবুজের সান্নিধ্যে। আসলে মাঝে মাঝে এরকম সবুজের সান্নিধ্যে সময় কাটালে মন অনেক ভালো হয়ে যায়। আর আপনার ফটোগ্রাফি গুলোও দুর্দান্ত ছিল ধন্যবাদ আপনাকে।

 last month 

একটি গোধূলি বেলায় সবুজের সান্নিধ্যে কিছু সময় কাটানো চমৎকার অনুভূতি আমাদের সাথে শেয়ার করেছেন।তবে যখন আপনি কৃষ্ণনগর রোড এ পাশে অবস্থিত বিখ্যাত মৌচাক ধাবায়।একটি বিশেষ মালাই চা পাওয়া যায় যেখানে এবং দুজনে গিয়ে দুটো মালাই চা অর্ডার করলেনন ।যেহেতু শনিবার তাই বেশ ভিড় ছিলো। তাইআপনাদের বেশ কিছুটা সময় অপেক্ষা করতে হলো।এদিকে আবহাওয়া ও স্বাভাবিক হয়ে গেল। চা খেয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা,,,,সবমিলিয়ে দারুণ সময় কাটিয়েছেন দাদা খুব ভালো লাগলো।♥♥

Coin Marketplace

STEEM 0.27
TRX 0.07
JST 0.033
BTC 24421.85
ETH 1876.39
USDT 1.00
SBD 3.30